ঢাকা, শনিবার 08 March 2017, ২৫ চৈত্র ১৪২৩, ১০ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

অবৈধ গ্যাস বৈধ করার দাবিতে রূপগঞ্জে তিতাস গ্যাস অফিস ঘেরাও

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) সংবাদদাতাঃ নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে অবৈধ গ্যাস বৈধকরণ ও সংযোগ বিচ্ছিন্ন না করার দাবিতে তিতাস গ্যাস অফিস ঘেরাও ও বিক্ষোভ কর্মসুচী পালন করেছেন অবৈধ সংযোগ নেয়া গ্রাহকরা। বুধবার দুপুরে উপজেলার তারাব পৌরসভার যাত্রামুড়া এলাকার তিতাস গ্যাস অফিস ঘেরাও করে বিক্ষোভ কর্মসুচী পালন করেন তারা।
প্রত্যক্ষদর্শী ও বিক্ষোভকারীরা জানান, উপজেলার তারাব, বরাব, রূপসী, হাটিপাড়া, চনপাড়া পুনর্বাসন কেন্দ্র, যাত্রামুড়া, খাদুন, মৈকুলী, বরপাসহ বিভিন্ন এলাকায় বিতরণ লাইন স্থাপন করে অবৈধ ভাবে বাসাবাড়িতে গ্যাস সংযোগ দেয়া হয়েছে। এসব গ্যাস সংযোগ নিতে গিয়ে প্রতি গ্রাহককে ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকা গুনতে হয়েছে।
কেউ ঋণ নিয়ে, কেউ ধার-দেনা করে, কেউ স্বর্ণালংকার বিক্রি করে, কেউ গবাদি পশু বিক্রি করে গ্যাস সংযোগের জন্য টাকা যোগান দিতে হয়েছে। এসব গ্রাহককে বোঝানো হয়েছিলো, অবৈধ গ্যাস লাইন বৈধ করে দেয়া হবে। এখন অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে আসবে এ আতঙ্কে থাকেন ভুক্তভোগীরা গ্রাহকরা। আর প্রভাবশালী ব্যক্তিরা এসব গ্যাস সংযোগ দিয়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। অবৈধ ভাবে গ্যাস সংযোগ নেয়া গ্রাহকরা জানতে পারেন, ইদানীং তাদের গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হবে।
এ কারণে অবৈধ গ্যাস বৈধকরণ ও সংযোগ বিচ্ছিন্ন না করার দাবিতে দুপুর ১টার দিকে যাত্রামুড়া এলাকার তিতাস গ্যাস অফিসের সামনে শত শত নারী-পুরুষ অবস্থান নেয় এবং তিতাস অফিস ঘেরাও ও বিক্ষোভ শুরু করেন। সেখানে বক্তব্যে রাখেন, স্থানীয় কাউন্সিলর আতিকুর রহমান আতিক, ইউপি সদস্য বিউটি আক্তার কুট্টি, যুবলীগ নেতা নুরুল ইসলাম, বকুল ভুইয়া, ইঞ্জিনিয়ার মনির হোসেন, শহীদ মিয়া প্রমুখ। পরে বিক্ষোভকারীদের চাপের মুখে পড়ে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হবে বলে জানান। পরে বিক্ষোভকারীরা তিতাস গ্যাস অফিসের সামনে থেকে চলে আসেন।
এ বিষয়ে যাত্রামুড়া এলাকার তিতাস গ্যাস অফিসের উপ-মহা ব্যবস্থাপন ফয়জার রহমান জানান, অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা সরকারের নির্দেশ রয়েছে। সে ক্ষেত্রে অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা ছাড়া তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষের কোন উপায় নেই।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ