ঢাকা, রোববার 09 March 2017, ২৬ চৈত্র ১৪২৩, ১১ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

সরাইলে আওয়ামী লীগ নেতা  গ্রেফতার

 

সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) সংবাদদাতা : সরাইল উপজলা চুন্টা ইউনিয়নের যুবলীগ নেতা শামসুল আরিফিন (৪০) গতকাল বিকালে মাধবপুর বাজারস্থ ঢাকা-সিলেট মহাসড়কস্থ ব্রীজের কাছ  থেকে এক মহিলাকে অপহরণ করার সময় জনতা  গণধোলাই দিয়ে থানায় সোপর্দ করে। ভিকটিম মুক্তা রানী দাস, স্বামী- শ্যামল দাস, সাং- আন্দিউড়া,উপজেলা- মাধবপুর, জেলা- হবিগঞ্জ বাদী হয়ে মাধবপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন। মামলার বিবরণে জানা যায়। মুক্তা রানী দাস সরাইল, চুন্টা ব্র্যাক অফিসে হিসাবরক্ষক পদে চাকরি করেন। চুন্টা আওয়ামী লীগ নেতার বাড়িতে ব্র্যাক অফিসটি ছিল। শামসুল আরিফিনের এই সুবাদে তার সাথে পরিচয় হয়। এক পর্যায়ে আমাকে  প্রেমের প্রস্তাব দিতে থাকে। আমি তার প্রস্তাবে সাড়া না দিলে সে আমাকে বিয়ে করবে বলে  জানায়। আমি তার প্রস্তাবে রাজি না হয়ায় সে আমাকে বিভিন্ন সময় বিভিন্নভাবে উত্ত্যক্ত করতে থাকে। আওয়ামী লীগ নেতা হওয়াতে এবং তাহার আত্মীয় সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতা হওয়ায় কথিত সাংবাদিক ও সরাইল উপজেলা  প্রেস ক্লাবের কার্যকরী সদস্য শামসুল আরিফিনের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হইয়া ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সরাইল উপজেলার চুন্টা ইউনিয়নের ব্র্যাক অফিস থেকে প্রায় ২ বছর আগে হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর উপজেলার বদলী হয়ে চলে আসি। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস.আই লোকমান মিয়া জানান যে মামলার আসামীর বিরুদ্দে তদন্ত সাপেক্ষে আদালতে অভিযোগ দেওয়া হবে। 

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ