ঢাকা, মঙ্গলবার 11 March 2017, ২৮ চৈত্র ১৪২৩, ১৩ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

বৈশাখী ভাতার আন্দোলনে নামছেন শিক্ষকরা

খুলনা অফিস : পহেলা বৈশাখের উৎসব ভাতা না পেয়ে আন্দোলনে নামছেন খুলনাসহ দেশের সাড়ে ৫লাখ এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মকর্তা কর্মচারীরা। দাবি আদায়ে তারা আজ মঙ্গলবার বেসরকারি সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাঠদান বন্ধ রেখে সকাল ১১টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত অবস্থান ধর্মঘট পালন করবেন। প্রত্যেক জেলা ও উপজেলার স্ব-স্ব শহীদ মিনারের পাদদেশে এ অবস্থান কর্মসূচী পালিত হবে।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত বছর এক অনুষ্ঠানে ঘোষণা দেন পহেলা বৈশাখ বাঙালির সার্ব্বজনীন উৎসব। এ উৎসবে সকল সরকারি  ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের চাকরিজীবীদের তাদের মূল বেতনের ২০ শতাংশ বৈশাখী ভাতা হিসেবে প্রদান করা হবে। প্রধানমন্ত্রীর এ ঘোষণার পর সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা কর্মচারীরা বৈশাখী ভাতা পেলেও পাননি বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাড়ে ৫লক্ষাধিক শিক্ষক কর্মকর্তা কর্মচারী। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের বৈশাখী ভাতা ছাড় করলেও বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা কর্মচারীদের  বৈশাখী ভাতা প্রদানের ক্ষেত্রে তার অনীহা এখনও সেই একই অবস্থায় রয়েছে। যে কারণে বঞ্চিত হচ্ছেন বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকসহ অন্যরা। প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দেয়ার পরও বেসরকারি শিক্ষকরা  বৈশাখী ভাতা পাবেন না এটা কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছেন না শিক্ষকরা। এদিকে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে সম্প্রতি এক প্রজ্ঞাপন জারী করে বলা হয়েছে, সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উৎসবমুখর পরিবেশে বৈশাখী উৎসব পালন করতে হবে। শিক্ষকদের পকেটে টাকা নেই, বৈশাখী ভাতার খবর নেই, তারপরও উৎসবমুখর পরিবেশে বৈশাখী উৎসব পালন করতে হবে। এ যেন হাত-পা বেঁধে সাঁতার কাটতে বলার মতো। এছাড়া ৫ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট দেয়ার কথা থাকলেও সেটি পাননি বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। অথচ সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সকলেই বৈশাখী ভাতা ও ইনক্রিমেন্ট পাচ্ছেন। এমনকি সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ইনক্রিমেন্ট ৫শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৮ শতাংশ করার দাবি উঠেছে।
সূত্র জানায়, এমনিতেই বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা সরকারি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের তুলনায় সর্বসাকুল্যে অনেক কম বেতন পান। তারপরও সন্তান-সন্ততি নিয়ে বৈশাখী উৎসব উদযাপন করার যে স্বপ্ন বেসরকারি শিক্ষক-কর্মকর্তা কর্মচারীরা দেখছিলেন তাও পূরণ হচ্ছে না। ফলে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, কর্মকর্তা কর্মচারীরা দারুণভাবে ক্ষুব্ধ ও হতাশ।
এ ব্যাপারে বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতি (বাকশিস) খুলনা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ বুলু বলেন, কেন্দ্রীয় কমিটির নির্দেশনা অনুযায়ী বৈশাখী ভাতা পাওয়ার দাবিতে আজ মঙ্গলবার খুলনাসহ সারাদেশে ২ঘণ্টা অবস্থান ধর্মঘট পালন করা হবে।
এদিকে অবস্থান ধর্মঘট সফল করার জন্য বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সকল শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টার মধ্যে  নগরীর শহীদ হাদিস পার্কে উপস্থিত হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতির (বাকশিস) খুলনা জেলা সভাপতি অধ্যক্ষ দেলওয়ারা বেগম ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ বুলু।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ