ঢাকা, বুধবার 12 April 2017, ২৯ চৈত্র ১৪২৩, ১৪ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

গণভবনে আল্লামা শফি

স্টাফ রিপোর্টার : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহ্বানে বৈঠকে যোগ দিতে গণভবনে গেছেন হেফাজতে ইসলামের আমীর ও বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশের (বেফাক) সভাপতি আল্লামা শাহ আহমদ শফী। এখানে তার নেতৃত্বে গেছেন প্রায় ৩০০ জন আলেম। বৈঠকে কওমী আলেমদের উপস্থিতিতে আনুষ্ঠানিকভাবে কওমী মাদরাসার সনদের স্বীকৃতি দিতে পারে সরকার। 

প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইং থেকে জানানো হয়েছে, গতকাল মঙ্গলবার রাত সোয়া ৮টার দিকে শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক করেন কওমী আলেমরা। বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বেফাকের সহ-সভাপতি আশরাফ আলী, আনোয়ার শাহ, বেফাক মহাসচিব মাওলানা আবদুল কুদ্দুস, নূর হোসাইন কাসেমী, মাওলানা মোস্তফা আজাদ, মুফতি মুহাম্মদ ওয়াক্কাস, বেফাকের মহাপরিচালক মাওলানা জোবায়ের আহমদ চৌধুরী, মাওলানা সাজিদুর রহমান, মাওলানা মুসলেহ উদ্দীন রাজু, মাওলানা আবদুল হামিদ প্রমুখ। এসব তথ্য জানিয়েছেন বেফাকের যুগ্ম-মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক। 

বেফাক ছাড়াও শোলাকিয়া ঈদগাহের খতিব ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ, গহরডাঙ্গা মাদরাসার মহাপরিচালক মুফতি রুহুল আমীন, বসুন্ধরা ইসলামিক রিসার্চ সেন্টারের মহাপরিচালক মুফতি আরশাদ রাহমানি, পটিয়া মাদরাসার আবদুল হালীম বোখারী, সিলেটের মুফতি আবদুল হক প্রমুখ উপস্থিত থাকবেন।

প্রসঙ্গত,কওমী মাদরাসার দাওয়ায় হাদিসের মান হচ্ছে এমএ (আরবি/ ইসলামের ইতিহাস) সমমান। এর মধ্য দিয়ে সনদের স্বীকৃতি নিয়ে কওমীপন্থীদের সঙ্গে সরকারের টানাপোড়েনের অবসান হতে যাচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ