ঢাকা, বুধবার 12 April 2017, ২৯ চৈত্র ১৪২৩, ১৪ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মোদি আমলে গো-রক্ষার নামে ৯ জনের বেশি মুসলিমকে হত্যা

১১ এপ্রিল, পার্সটুডে : ভারতের মজলিশ-ই ইত্তেহাদুল মুসলেমিন (মিম) প্রধান ব্যারিস্টার আসাদউদ্দিন ওয়াইসি এমপি বলেছেন, ধর্মের নামে আইন তৈরি হলে ভারত হিন্দু রাষ্ট্র হয়ে যাবে। সোমবার গণমাধ্যমে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি ওই মন্তব্য করেন। ভারতে গরু জবাই বন্ধ করতে আইন তৈরি করতে রোববার আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত যে মন্তব্য করেছেন ওয়াইসি তার প্রতিক্রিয়ায় এ কথা বলেন। ওয়াইসি বলেন, কেন্দ্রীয় নরেন্দ্র মোদি সরকারের আমলে গো-রক্ষার নামে নয়জনেরও বেশি মুসলিমকে হত্যা করা হয়েছে। রাজস্থানের আলওয়ারে সম্প্রতি স্বঘোষিত গো-রক্ষকদের হামলায় পেহেলু খান নামে যে ব্যক্তি নিহত হয়েছেন তার উল্লেখ করে ওয়াইসি বলেন, এ ধরনের কার্যকলাপে দেশের কী লাভ হচ্ছে? ওয়াইসি আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবতকে টার্গেট করে বলেন, ‘আইন ধর্মীয় ভাবাবেগ বা আস্থার উপরে নির্ভর করে তৈরি করা যায় না। এরকম করা হলে ভারত হিন্দু রাষ্ট্র হয়ে যাবে, যা দেশের জন্য ঠিক নয়।’ ওয়াইসি বলেন, ‘উনি গরু জবাই বন্ধ করতে দেশ জুড়ে আইন আনার পক্ষে সাফাই দিয়েছেন। তার উচিত, আলওয়ারের ঘটনার এফআইআর কপি পড়ে নেয়া। ওই ঘটনায় অভিযুক্তদের তালিকায় বিশ্ব হিন্দু পরিষদ ও বজরং দলের সদস্যদের নাম রয়েছে। ওরা তার ইঙ্গিতেই এ ধরণের অপকর্মগুলো করেছে।’ মিম প্রধান বলেন, ‘বিজেপি বলছে, উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলোর জন্য গরু জবাই বন্ধ করতে কোনো আইন আনা হবে না। এই দ্বিমুখী নীতি কেন?’ বিজেপিশাসিত গুজরাটে সম্প্রতি গরু জবাই সংক্রান্ত আইন সংশোধন করে গরু জবাই করলে যাবজ্জীবন কারাদ-ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। অন্যদিকে, বিজেপিশাসিত ছত্তিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রী রমন সিং গরু জবাই করলে তাকে ফাঁসিতে ঝোলানোর হুমকি দিয়েছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ