ঢাকা, বুধবার 12 April 2017, ২৯ চৈত্র ১৪২৩, ১৪ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

নিঃশব্দ প্রতিবাদে মুসলিম বিদ্বেষীকে রুখে দিলেন সাফিয়া খান

১১ এপ্রিল, দ্য গার্ডিয়ান/এপি : ব্রিটেনের মুসলিম বিদ্বেষী ডানপন্থী জোট ইংলিশ ডিফেন্স লিগ (ইডিএল)। মাঝে মাঝে ইডিএলের হাজারো সমর্থক রাস্তায় নেমে মুসলিম অভিবাসনের বিরোধিতা করে মিছিল করে। গত শনিবার (৮ এপ্রিল) বার্মিংহামে তেমনই একটি বিক্ষোভ মিছিল আয়োজিত হয়। আর এ মিছিলের একটি ছবি সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। বিশ্বব্যাপী আলোচনার জন্ম দিয়েছে।
ছবিতে দেখা যায়, মিছিল চলার সময় ইডিএলের লোগোযুক্ত কালো রঙের টি-শার্ট পরিহিত একজন উগ্র সমর্থক এক মুসলিম মেয়ের সঙ্গে মারমুখী ভঙ্গিতে চিৎকার করছেন। পাশেই একজন পুলিশ তাকে বাধা দেয়ার চেষ্টা করছেন। কিন্তু আসন্ন আক্রমণের মুখে মেয়েটি নির্বিকার! আত্মরক্ষা কিংবা পাল্টা আক্রমণের বদলে নিঃশব্দে, শুধু একটি হাসি দিয়ে প্রতিপক্ষের মোকাবেলা করেন তিনি।
বার্তাসংস্থা অ্যাসোসিয়েট প্রেসের (এপি) আলোকচিত্রী জো গিডেনস সেই মুহূর্তের ছবি ক্যামেরাবন্দি করেন। ছবিটি সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হলে মেয়েটির প্রশংসায় মেতে ওঠেন অনেকেই। হিংসার বিরুদ্ধে নিঃশব্দ হাসি দিয়ে প্রতিবাদ করায় তার মনোভাবের প্রশংসা করেন সবাই। অল্প সময়ের মধ্যেই তিনি ইসলাম ও অভিবাসী বিরোধী আন্দোলনের বিরুদ্ধে আইকনে পরিণত হন।
গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, মেয়েটির নাম সাফিয়া খান। সাফিয়ার ভিন্ন রকমের প্রতিবাদের ভাষার প্রশংসা করেছেন ব্রিটিশ রাজনীতিকরাও। দেশটির এমপি জেস ফিলিপ তাকে নিয়ে টুইট করেন। তিনি লিখেন, ‘তিনি (সাফিয়া) নিঃশব্দ হলেও, তাকেই শক্তিশালী লাগছিল। আসল প্রতিবাদকারী তিনিই। অন্যদিকে ইডিএল সারাদিন শহরে আন্দোলন করলেও, মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণে সফল হয়নি।’
প্রসঙ্গত, ২০০৯ সালের ২৭ জুন যাত্রা শুরু করে ইডিএল। শুরুতে এর নেতা ছিলেন চরম ডানপন্থী হিসেবে পরিচিত টমি রবিনসন ও কেভিন ক্যারল। ২০১৩ সালের অক্টোবর থেকে টিম আবলিটের নেতৃত্বে এ জোট পরিচালিত হচ্ছে। ব্রিটেনে মুসলিম অভিবাসী, জিহাদি মনোভাব ও শরিয়াহ আইনের প্রতি আকর্ষণ বৃদ্ধির প্রতিবাদে আন্দোলন করছে এ জোট। দেশব্যাপী বিক্ষোভ সমাবেশ, মিছিল করে মানুষের মধ্যে মুসলিম বিদ্বেষী মনোভাব জাগিয়ে তোলাই ডানপন্থী ইডিএলের মূল কাজ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ