ঢাকা, বুধবার 12 April 2017, ২৯ চৈত্র ১৪২৩, ১৪ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

বাংলাদেশ-ভারত পতাকাবাহী মালবাহী ট্রেন ২২শ মে. টন জালানি তেল নিয়ে পার্বতীপুর এসেছে

আমজাদ হোসেন, পার্বতীপুর: ভারতের পশ্চিম বঙ্গের উত্তর দিনাজপুরের রাধিকাপুর থেকে জালানি তেলবাহী একটি ট্রেন আজ রোববার রাত সাড়ে ৩টায় পার্বতীপুর রেল স্টেশনে এসে পৌঁছে। পরে ভোর ৬টায় তেল খালাসের জন্য পার্বতীপুর রেল হেড ওয়েল ডিপো তেল নিয়ে যাওয়া হয় উল্লেখিত ট্রেনটিকে।
পার্বতীপুর রেল স্টেশন সূত্রে জানা গেছে বাংলাদেশ ও ভারতের জাতীয় পতাকাবাহী উল্লিখিত মালবাহী ট্রেনের ২হাজার ২শ’ মে.টন হাইস্পিড ডিজেল ছিলো। ট্রেনটি শনিবার বাংলাদেশ সময় ১টা ৫০ মিনিটে রাধিকাপুর রেল স্টেশন ছেড়ে বেলা ২টা ৪০ মিনিটে বিরল রেল স্টেশনে এসে পৌছে। এ সময় রেলওয়ের লালমনিরহাট ডিভিশনের বিভাগীয় ব্যবস্থাপক (ডিআরএম) মোঃ নাজমুল ইসলাম, বিভাগীয় প্রকৌশলী আরিফুল ইসলাম, বিভাগীয় মেকানিক্যাল প্রকৌশলী মোঃ মমোতাজুল ইসলামসহ রেলওয়ের কর্মকর্তা ও দিনাজপুর ও বিরলের প্রশাসনিক কর্মকর্তা, রাজনৈতিক  নেতৃবৃন্দসহ বিপুল সংখ্যক মানুষ সেখানে উপস্থিত ছিলেন।
জান যায়, উল্লিখিত মালবাহী ট্রেনের পরিচালক ছিলেন, মোঃ শফিকুল ইসলাম। আর লোকোমোটিভ মাস্টার ছিলেন মোঃ রবিউল ইসলাম। বাংলাদেশ রেলওয়ের পশ্চিমযোনের লালমনিরহাট বিভাগের একটি সূত্র জানায়, দীর্ঘ এক যুগ অপেক্ষার পর বিরল স্থল বন্দরের রেল পথ দিয়ে বাংলাদেশ-ভারতের আমদানী রপ্তানী কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়েছে শনিবার দুপুরে। নয়াদিল্লির হায়দ্রাবাদ হাউজে সফররত বাংলাদেশের প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধান মন্ত্রী নরেন্দ্রনাথ দামোদর মোদি ভিডিও কনফারেন্স এর মাধ্যমে বাণিজ্যিক কার্যক্রমটি উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনী মালবাহী ট্রেনে ৪২টি ওয়াগনে ২ হাজার ২শ’ ৫০ মেঃটন হাইস্পিড ডিজেল আমদানি করা হয়।
এদিকে, রেলওয়ে লালমনিরহাট ডিভিশন সূত্রে বলা হয়েছে ব্রিটিশ আমলে অবিভক্ত ভারত ও স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে ২০০৪ সাল পর্যন্ত মিটার গেজ রেলপথে নেপাল, ভারত ও মিয়ানমারের মধ্যে সীমিত সংখ্যক পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল করতো। ২০০৬ সালে ভারতের রাধিকাপুর পর্যন্ত মিটার গেজের পরিবর্তে ব্রডগেজ রেলপথ স্থাপন করা হলে এ রুটে বাংলাদেশের সাথে রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। গত ৮মার্চ ২৪৭২ মে.টন পাথর নিয়ে ৪২টি ওয়াগানের একটি মালবাহী ট্রেন পরীক্ষামূলকভাবে বাংলাদেশে প্রবেশ করে। ইতিমধ্যে এরুটে পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল সুবিধার্থে ভারতের পশ্চিম বঙ্গের উত্তর দিনাজপুরের রাধিকাপুরের সাথে বাংলাদেশে পার্বতীপুর রেলওয়ে জংশন পর্যন্ত ডুয়েল গেজ রেলপথ স্থাপন করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ