ঢাকা, বৃহস্পতিবার 13 April 2017, ৩০ চৈত্র ১৪২৩, ১৫ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

শ্রীপুরে মামলা করায় প্রতিপক্ষের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে বাদী

শ্রীপুর (গাজীপুর) সংবাদদাতা : গাজীপুরের শ্রীপুরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে কৃষক পরিবারকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করার ঘটনায় মামলা করায় প্রতিপক্ষের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন মামলার বাদী। মামলা সূত্রে জানা যায়, টেপিরবাড়ী গ্রামের মোজাফ্ফর হোসেনের পুত্র মোশাররফ হোসেনের সাথে একই এলাকার মিঞা বক্সের পুত্র হারুন অর রশিদ সহ তার কতক সহযোগীরা দীর্ঘদিন যাবত জমি জমাসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিরোধ সৃষ্টি করে আসছিল। গত ২৭ মার্চ মোশাররফ তার পৈত্রিক ভোগদখলীয় জমিতে কাজ করতে গেলে একই এলাকার প্রতিপক্ষ হারুন অর রশিদ, সোহাগ মিয়ার নেতৃত্বে ১০/১২জনের একদল ভাড়াটে কাজে বাধা দেয়। এ সময় কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে সোহাগ মিয়া ও তার লোকজন মোশাররফ হোসেন, তার ভাই আনোয়ার হোসেনের ওপর হামলা চালিয়ে এলোপাথারী কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে স্থানীয় লোকজন রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ব্যাপারে মোশাররফ হোসেন বাদী হয়ে প্রতিপক্ষ  সোহাগ মিয়া, হারুন অর রশিদ, জামাল উদ্দিন, রমজান আলী, খোসরু মিয়াসহ অজ্ঞাত ১০/১২জনের বিরুদ্ধে শ্রীপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। মোশাররফ হোসেন জানান, মামলা করার পর থেকে প্রতিপক্ষের লোকদের ভয়ে তিনি ও তার পরিবারের লোকজন নিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। তাদের ভয়ে দোকানপাট ও ব্যবসা বাণিজ্য বন্ধ রয়েছে। গত ১১ এপ্রিল দুপুরে টেপিরবাড়ী গ্রাম থেকে পুলিশ আমার মামলার আসামী সোহাগ মিয়ার ম্যানেজার শফিকুল ইসলামকে ইয়াবাসহ আটক করেছে। এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শ্রীপুর থানার এস.আই লুৎফুর রহমান জানান, শফিকুল ইসলাম ওই মামলার আসামী না। তাকে অন্য অভিযোগে আটক করা হয়েছে। এ ব্যাপারে শ্রীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আসাদুজ্জামান জানান, মামলার আসামীরা পলাতক থাকায় তাদের গ্রেফতার করা সম্ভব হচ্ছে না, তবে আসামীদের গ্রেফতারের অভিযান অব্যাহত আছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ