ঢাকা, রোববার 16 April 2017, ৩ বৈশাখ ১৪২৩, ১৮ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মৃত ভেবে ডোবায় ফেলে রাখার ৫ ঘন্টা পর জীবিত উদ্ধার

মাধবদী (নরসিংদী) সংবাদদাতা: মাধবদী থানার উত্তর শিলমান্দী গ্রামে যৌতুকের জন্য গৃহবধূ মুন্নী আক্তারকে হত্যা করার চেষ্টা করে পাষন্ড স্বামী মজনু। প্রচন্ড প্রহার করে মৃত ভেবে বস্তাবন্দী করে ইটভাটার ডোবায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায় স্বামী। ঘটনাটি ঘটেছে গত ৯ এপ্রিল রোববার রাতে উল্লেখিত গ্রামের নুরু মিয়ার বাড়িতে। খোঁজ নিয়ে জানা যায় নুরু মিয়ার ছেলে মজনু ৩ বছর পূর্বে বিয়ে করে নবীনগর উপজেলার ধরাভাঙ্গা গ্রামের সাদত আলীর ২য় মেয়ে মুন্নী আক্তারকে। বিয়ের ১ বছর পর থেকেই মুন্নীর স্বামী মজনু নেশাগ্রস্ত হয়ে পড়লে স্বামীকে এ পথ থেকে ফেরানোর জন্য মুন্নী আক্তার অনেক চেষ্টা করে আর এতে পিত্রালয় থেকে বেশ ক’বারই টাকাও এনে দেয় মজনুকে। দু’বছরে প্রায় ৬০হাজার টাকা এনেছে বলে জানিয়েছেন গৃহবধূ মুন্নীর ভাই। টেক্সটাইল শ্রমিক মজনু গত ১৫ দিন আগে থেকেই আবারো মুন্নীর বাবার বাড়ি থেকে ৫০হাজার টাকা যৌতুক এনে দেয়ার জন্য মুন্নীর উপর অমানুষিক নির্যাতন চালিয়ে আসছিল বলে পরিবারিক কলহ চরমে উঠেছিল এমন তথ্য দিয়েছেন আশপাশের বাড়ির লোকজন। এ অবস্থায় গত ৯ এপ্রিল রোববার রাতে মুন্নীর মাথার চুল কর্তন করে তাকে প্রচন্ড প্রহার করলে সে অজ্ঞান হয়ে পড়ে। এতে মুন্নীর স্বামী মজনু মুন্নীকে মৃত ভেবে প্লাস্টিকের বস্তাবন্দী করে গভীর রাতে বাড়ির পশ্চিমে সোলায়মান খাঁ’র ইটভাটার গর্তে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। ঐদিনই ভোর রাতে আনুমানিক প্রায় ৫/৬ ঘন্টা পর ফজরের নামাজের জন্য মসজিদে যাওয়ার সময় মুসলিম নামের এক বৃদ্ধ ইটভাটার ডোবার কাঁদাজলে বস্তা দেখে পাশের রাস্তা দিয়ে মসজিদে যাতায়াতরত দু’জনকে ডেকে বস্তাটি দেখায়। বস্তাটির কাছে যেতেই তারা গোঙরানীর শব্দ পেয়ে বুঝতে পারে এটা কোন মানুষের শব্দ তারা কাছে গিয়ে বস্তার মুখ খুলে অচেতন মহিলাকে দেখে তাৎক্ষণিক আশপাশের বাড়ির লোকজনকে খবর দিলে জড়ো হওয়াদের একজন গৃহবধূ মুন্নীকে চিনে ফেলে। মজনুর বাড়িতে খবর দিলে মজনুর এক ভাই সহ অন্যরা এসে তাকে উদ্ধার করে নরসিংদী সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন। সকাল ৭টায় মজনুর বাড়িতে গিয়ে জানাযায় সে ঔ রাতেই ব্যাগ ভরে কিছু জামা কাপড় নিয়ে পালিয়ে গেছে। তার মোবাইল ফোনটিও বন্ধ রয়েছে। মজনুর বাড়ি থেকে মুন্নীর পিত্রালয়ে খবর দিলে নবীনগর থেকে মুন্নীর ভাই, ভগ্নিপতি সহ লোকজন এসে হাসপাতালে মুন্নীকে দেখতে গিয়েছেন সুস্থ হলে তারা মুন্নীকে নিজ বাড়ি নবীনগর নিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন আগত মুন্নীর আত্মীয় স্বজনরা। তারা জানিয়েছেন মুন্নী সুস্থ হলে তার কাছ থেকে বিস্তারিত শুনে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ