ঢাকা, রোববার 16 April 2017, ৩ বৈশাখ ১৪২৩, ১৮ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

সাংস্কৃতিক আগ্রাসন বন্ধ করা এখন সময়ের দাবি

ঐতিহ্যবাহী সাংস্কৃতিক সংগঠন তমদ্দুন মজলিসের উদ্যোগে বাংলা নববর্ষ-১৪২৪ উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, বাঙালী জাতির নিজস্ব ঐতিহ্যবাহী সংস্কৃতি রয়েছে। যার মধ্যে নেই কোনো অশ্লীলতা ও বেহায়াপনা। কিন্তু বর্তমানে বিজাতীয় অপসংস্কৃতি আগ্রাসনে আমাদের সংস্কৃতিকে ভূলুণ্ঠিত করছে। বাঙালীর কোনো উৎসব আসলেই সংস্কৃতির বিকৃতকরণ আরো প্রকট আকার ধারণ করে। সাংস্কৃতিক আগ্রাসন বন্ধ করা এখন সময়ের দাবি।

তারা বলেন, দেশে মঙ্গল শোভাযাত্রার নামে যে সংস্কৃতি বর্ষবরণ নামে পালন করা হয় বাঙালী সংস্কৃতিতে তার কোনো ভিত্তি নেই। তারা পহেলা বৈশাখকে ঘিরে যে বেহায়াপনা ও অশ্লীলতা চলছে তরুণ যুবসমাজকে এর থেকে বের হয়ে সত্যিকারের বাঙালী ঐতিহ্যবাহী সংস্কৃতি চর্চা করার আহ্বান জানান। এছাড়াও বিদেশী টিভি চ্যানেল, ভাষা, সংস্কৃতি আমাদের ঐতিহ্যবাহী সংস্কৃতিকে ধ্বংসের যে চেষ্টা চালাচ্ছে তা গোটা দেশকে জিম্মি করেছে। এই আগ্রাসন থেকে বাদ যাচ্ছে না শিশুরাও।

পহেলা বৈশাখ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ শুক্রবার মহানগর কার্যালয় হোসাফ শপিং কমপ্লেক্স, মালিবাগ মোড়, ঢাকার তমদ্দুন মজলিসের সিনিয়র নেতা এরতাজ আলমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রখ্যাত ভাষাসৈনিক ও প্রবীণ সাংবাদিক অধ্যাপক মোহাম্মদ আবদুল গফুর। এছাড়াও আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন অধ্যাপক হাসান আবদুল কাইয়ুম, মোহাম্মদ শাহাবুদ্দীন খান, কবি শাহ সিদদিক, কবি মানসুর মুজাম্মেল, ইঞ্জিনিয়ার শওকত আজিজ, মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান খান, হাফেজ মোহাম্মদ বায়েজিদ হাসান প্রমুখ। 

আলোচনা সভা শেষে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের মাধ্যমে দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা করা হয়। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ