ঢাকা, সোমবার 17 April 2017, ৪ বৈশাখ ১৪২৩, ১৯ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

গণতন্ত্রকে কবর দেয়ার সময় হয়েছে

১৬ এপ্রিল, আল আরাবিয়া : গণতন্ত্রকে কবর দিয়ে ইসলামিক আইন চালু করে খিলাফাত প্রতিষ্ঠাতার দাবি জানিয়েছে তিউনিশিয়ার ইসলামিক দল হিজবুত তাহরির মুভমেন্ট। মুসলিম আইনই সর্বোৎকৃষ্ট বলে তা বাস্তবায়নের দাবি জানায় ইসলামি এ দলের নেতারা। গত শনিবার দলটির বার্ষিক সম্মেলনে তিউনিশিয়ার হিজবুত তাহরিরের প্রধান আব্দুর রউফ আমরি বলেন, গণতন্ত্র সর্বোত্র আকর্ষণীয় নয়। এটি মানুষকে সবসময় সন্তুষ্ট করতে পারে না। গণতন্ত্রকে আর মঙ্গলজনক নয়। গণতন্ত্রকে কবরে রাখার সময় হয়েছে। সময় হয়েছে খিলাফাত প্রতিষ্ঠার। মানুষের মধ্যে ইসলামিক খিলাফাতই মঙ্গল বয়ে আনতে পারে। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের হিজবুত তাহরির নিষিদ্ধ ঘোষিত একটি সংগঠন। তিউনিশিয়ার সরকারও বার বার তাদের কাজে আপত্তি জানিয়ে আসছে। দেশটির সরকারের অভিযোগ দলটি জনশৃঙ্খলায় ব্যাঘাত ঘটাচ্ছে। সম্মেলন উপলক্ষে কংগ্রেসের বাইরে সমবেত হয়েছে হিজবুত কর্মীরা। তারা খিলাফাতের প্রশংসা করে মানবতা সুরক্ষা করে গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে যে নিপীড়ন চালু রয়েছে তা বন্ধ করার দাবি জানান। তিউনিয়ার সুশীল সমাজ সম্পর্ক বিষয়কমন্ত্রী মেহেদী বিন গারবিয়া বলেন, দেশের গণতন্ত্র বিরোধী বক্তৃতার জন্য এই সংগঠনের কার্যক্রম ১ মাস নিষিদ্ধ করার আবেদন জানিয়েছেন তিনি। তিউনিশিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হেদী মাজদোভ বলেন, এই সংগঠনের কার্যক্রম কোনো বেসামরিক চরিত্রের মধ্যে পরে না। হিজবুত তাহরিরের ২০১৬ সালের তিউনিশিয়া সম্মেলন নিরাপত্তাজনিত কারণে নিধিদ্ধ করা হয়েছিল। ২০১৫ সালে প্রেসিডেন্টের নিরাপত্তাকর্মীদের উপর হামলার পর জরুরী দেশটিতে জরুরী অবস্থা চলছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ