ঢাকা, সোমবার 17 April 2017, ৪ বৈশাখ ১৪২৩, ১৯ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

ভারত গিয়ে হাসিনা গোলামীর চুক্তি করে এসেছেন -রিজভী

গতকাল রোববার ভাসানী মিলনায়তনে জাতীয়তাবাদী মহিলা দল ভাসানটেক থানা আয়োজিত কর্মী সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ -সংগ্রাম

স্টাফ রিপোর্টার : বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ভারত সফর করে শেখ হাসিনার অর্জন হিন্দি ভাষা। সবকিছু বিসর্জন দিয়ে ভোটারবিহীন নির্বাচনের মাধ্যমে দাদাদের সহযোগিতায় আবারও ক্ষমতায় যেতে তিনি গোলামী চুক্তি করে এসেছেন।
গতকাল রোববার রাজধানীর নয়া পল্টনে ভাসানী মিলনায়তনে মহিলা দলের কর্মী সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। ভাসানটেক থানা মহিলাদল সম্মেলনের আয়োজন করে। থানা মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক পেয়ারা মোস্তফার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মলনে অন্যদের মধ্যে মহিলা দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ, দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক কাউন্সিলর শামসুর নাহার, উত্তরের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাবেক কমিশনার রোকেয়া সুলতানা তামান্না, সাবেক কমিশনার রাবেয়া আলম, কাউন্সিলর খালেদা আলম, ভাসানকেট থানা বিএনপি নেতা বজলুর রহমান বজলু, হাজী লেয়াকত আলী, আমির হোসেন আমির, শহিদুল ইসলাম সোহেল, ভাসানটেক থানা মহিলা দলের আহ্বায়িকা বুলবুল নাহার বুলু, যুগ্ম আহ্বায়িকা খুরশেদা বেগম, সাবেরা বেগম ডলি প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে রুহুল কবির রেজভী বলেন, বর্তমান নির্বাচন কমিশন তার প্রমাণ আজকে সারাদেশে ১৫৮টি ইউপি নির্বাচনে পটুয়াখালী, সিরাজগঞ্জ ও চট্টগ্রামে জোর করে চর দখলের মতো প্রশাসন ও সরকারি গুণ্ডাবাহিনী আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের পাস করানোর জন্য সকল কেন্দ্র দখল করে নিয়েছে। আমরা আগেই বলেছি, এই নির্বাচন কমিশন  আগামী নির্বাচনে তারা আওয়ামী লীগের অঙ্গসংগঠনের মতো একই কাজ করবে। জনগণ ভোট দিতে যেতে পারবে না। এরপরও যে ভোট পড়বে, সে ভোট চলে যাবে জাদুঘরে।
রিজভী অভিযোগ করেন, আমরা বারবার বলেছিলাম প্রধান নির্বাচন কমিশনার আপনি আওয়ামী লীগের দলবাজ হিসেবে পরিণতি হবেন না। কিন্তু চোর না শুনে ধর্মের কাহিনী। আজকের ইউপি নির্বাচনে নির্বাচন কমিশনের ভূমিকা প্রমাণ করে একমাত্র নিরপেক্ষ ও নির্দলীয় সরকার ছাড়া এদেশের কোনো সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনে জনগণের আশার প্রতিফলন ঘটবে না।
তিনি বলেন, ভারত সফর করে শেখ হাসিনার অর্জন হিন্দি ভাষা। সবকিছু বিষর্জন দিয়ে ভোটারবিহীন নির্বাচনের মাধ্যমে দাদাদের সহযোগিতায় আবারও ক্ষমতায় যেতে তিনি গোলামী চুক্তি করে এসেছেন।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মহিলা দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ বলেন, দেশের দুর্যোগ মুহূর্তে দেশনেত্রী আমাদের যে দায়িত্ব দিয়েছেন আমরা সে গুরুদায়িত্ব পালনে রাজপথে থেকে যেমন আন্দোলন করব তেমনি মহিলা দলকে আরো শক্তিশালীকরণে ঘরে ঘরে কর্মীবাহিনী সৃষ্টি করে স্বৈরাচারী শেখ হাসিনা সরকারের পতন ত্বরান্বিত করব। শেখ হাসিনা ভারতে গিয়ে নারী জাতিকে কলঙ্কিত করেছেন। ভারতের রাষ্ট্রপতি ভবনে রান্নাঘরে কাজের বুয়ার দায়িত্ব পালনের মধ্য দিয়ে দেশের নারী সমাজ ও প্রধানমন্ত্রীর আসনের অমর্যাদা করেছেন। তাকে এ জন্য দেশবাসী কোনো দিন ক্ষমা করবে না।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ