ঢাকা, সোমবার 17 April 2017, ৪ বৈশাখ ১৪২৩, ১৯ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

নরসিংদীতে সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের তিনজনসহ নিহত ৪

নরসিংদী সংবাদদাতা : গতকাল রোববার সকালে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের শিবপুর থানাধীন নোয়াদিয়া গাঙপাড় এলাকায় প্রাইভেটকার ও মাইক্রোবাসের মুখোমুখী সংঘর্ষে সাফিয়া বেগম (৬০), আবুল মিয়া (১৮) ও বিল্লাল মিয়া (৩২) নামে একই পরিবারের ৩ জন ও রাসেল মিয়া (২৫) নামে একজন মাইক্রো চালক নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে ৮ জন যাত্রী। খবর পেয়ে ইটাখোলা হাইওয়ে ফাঁড়ি পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহত ও আহতদেরকে উদ্ধার করে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে প্রেরণ করেছে।
নরসিংদী জেলা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মিজানুর রহমান ও ইটাখোলা হাইওয়ে ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই শফিকুল ইসলাম জানিয়েছেন, মুন্সীগঞ্জ জেলার সিরাজদী খান থানার সাফিয়া, তার নাতি আবুল হোসেন ও নাতনী জামাই বিল্লাল হোসেন ঢাকার কেরানীগঞ্জ থেকে একটি মাইক্রোবাসে (ঢাকা মেট্রো চ-১৩-১০৭৮) চড়ে সিলেট মাজারের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে। মাইক্রোবাসটি সকাল সাড়ে ৮টায় শিবপুর উপজেলাধীন পাহাড়ীয়া নদীর নোয়াদিয়া এলাকায় পৌঁছলে বিপরীত দিক রায়পুরা থেকে ঢাকাগামী একটি প্রাইভেটকার (ঢাকা মেট্রো গ-২১-৮৮২২) দ্রুতবেগে এসে মাইক্রোবাসটির সাথে সংঘর্ষ  হয়। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন প্রাইভেটকার আরোহী সাফিয়া। মারাত্মক আহত হয় ১১ জন যাত্রী। এসময় যাত্রীদের চিৎকারে আশেপাশের লোকজন দৌড়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে সাফিয়া বেগমকে মৃত এবং অন্যান্যদেরকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে। খবর পেয়ে ইটাখোলা হাইওয়ে ফাঁড়ি পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদেরকে দ্রুত নরসিংদী জেলা হাসপাতালে প্রেরণ করে। সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার আবুল হোসেন, বিল্লাল হোসেন ও মাইক্রোবাসের ড্রাইভার রাসেল মিয়াকে মৃত ঘোষণা করে। আহতদের মধ্যে রায়পুরার কুড়েরপাড় গ্রামের হিরামনি (১২), সিদ্দিক মিয়া (৬০) ও সুরাইয়া (৫৫)সহ ৮ জনকে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ