ঢাকা, মঙ্গলবার 18 April 2017, ৫ বৈশাখ ১৪২৩, ২০ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

কর্পোরেট কর ১০ শতাংশ কমানোর প্রস্তাব ফিকির

স্টাফ রিপোর্টার: ২০১৭-১৮ অর্থবছরে কর্পোরেট কর ১০ শতাংশ কমানো ও করজাল বাড়ানোর প্রস্তাব করেছে ফরেন ইনভেস্টরস চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি (এফআইসিসিআই বা ফিকি)। 

গতকাল সোমবার বিকেলে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড সম্মেলন কক্ষে এক প্রাক-বাজেট আলোচনায় ফিকির সভাপতি রূপালী চৌধুরী এ প্রস্তাব করেন।

তিনি বলেন, চলতি বাজেটে নন পাবলিকলি ট্রেডেড কোম্পানির ৩৫ শতাংশ, লিস্টেট পাবলিক ট্রেডেড কোম্পানির ২৫ শতাংশ, ব্যাংক, ইন্সুরেন্স ও অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠানের জন্য (লিস্টেট) ৪০ শতাংশ ও (নন লিস্টেড) ৪২দশমিক ৫ শতাংশ, মার্চেন্ট ব্যাংকের ৩৫ শতাংশ, সিগারেট ম্যানুফ্যাকচারার্স কোম্পানির ৪৫ শতাংশ ও মোবাইল অপারেটর কোম্পানি ৪৫ শতাংশ কর্পোরেট ট্যাক্স বিদ্যমান রয়েছে। এই কর ১০ শতাংশ করে কমানো এবং আগামী ৫ বছর তা অব্যাহত রাখার প্রস্তাব করেন তিনি।

রূপালী চৌধুরী বলেন, এনবিআরকে করজাল বাড়াতে হবে। যারা ট্যাক্স দিচ্ছে তাদের কাছ থেকেই ট্যাক্স আদায়ে চাপ দেয়া হচ্ছে। যারা দিচ্ছে না, তারা দিচ্ছেই না। এটা লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড হতে পারে না। সেজন্য করজাল বাড়াতে এনবিআরকে উদ্যোগ নিতে হবে।

বাজেটের পলিসি পরিবর্তন করার সুপারিশ করে তিনি বলেন, অর্থনীতির ধীরগতি দেখছি। রয়েছে অবকাঠামো সমস্যাও। এ অবস্থার মধ্যে প্রতিবছর বাজেটে পলিসি পরিবর্তন করা হচ্ছে। এতে ব্যবসায়ীরা দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা করতে পারে না। অন্তত ৩ থেকে ৫ বছরের জন্য পলিসি বহাল রাখা উচিত। তাহলে উদ্যোক্তারা সে অনুযায়ী পরিকল্পনা হাতে নিতে পারবে।

তিনি বলেন, বাজেটের আগে এনবিআরের সঙ্গে অনেক আলোচনা হয়। কিন্তু বাজেটে এর প্রতিফলন দেখা যায় না। তাই বাজেটের পর ব্যবসায়ীদের বাধ্য হয়ে অর্থমন্ত্রীর কাছে দৌড়াতে হয়। কিছু কিছু বিষয় এনবিআরকেই সমাধান দিতে হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ