ঢাকা, মঙ্গলবার 18 April 2017, ৫ বৈশাখ ১৪২৩, ২০ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

চার খুন ও ১০ ধর্ষণ মার্চ মাসে খুলনায় ৫২৭ অপরাধ সংঘটিত

খুলনা অফিস : গত মার্চ মাসে খুলনার ১৭ থানায় ৫ খুন, ৩ টি ডাকাতি, ১০ ধর্ষণ, ৬৫টি নারী ও শিশু নির্যাতনসহ মোট ৫২৭ টি অপরাধ সংগঠিত হয়েছে। রোববার খুলনা জেলা আইনশৃঙ্খলা এবং সন্ত্রাস-নাশকতা কমিটির মাসিক সভায় এ তথ্য জানানো হয়
আইনশৃঙ্খলা প্রতিবেদনে বলা হয়, খুলনা মহানগরীর আটটি থানায় গত মার্চ-১৭ মাসে ডাকাতি ১টি, চুরি ১০টি, খুন ১টি, অস্ত্র আইন ১টি, দ্রুত বিচার ১টি, ধর্ষণ ৪টি, নারী ও শিশু নির্যাতন ৩১টি, নারী ও শিশু পাচার ৩টি, মাদকদ্রব্য ১৮১টি এবং অন্যান্য ২৬টিসহ মোট ২৫৯টি মামলা দায়ের হয়েছে। গত ফেব্রুয়ারি-১৭ মাসে এ সংখ্যা ছিল ১৬১টি।
এছাড়া জেলার নয়টি থানায় গত মার্চ মাসে ডাকাতি ২টি, রাহাজানি ১টি, চুরি ৩টি, খুন ৪টি, অস্ত্রআইনে ৩টি, ধর্ষণ ৬টি, অপহরণ ১টি, নারী ও শিশু নির্যাতন ৩৪টি, নারী ও শিশু পাচার ৫টি ও  মাদকদ্রব্য ১২৭টি এবং অন্যান্য আইনে ৮২টিসহ মোট ২৬৮টি মামলা দায়ের হয়েছে। গত ফেব্রুয়ারি-১৭ মাসে এ সংখ্যা ছিল ১৭৮টি।
রোববার সকালে খুলনা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন  খুলনা জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট নাজমুল আহসান। সভায় জানানো হয়, বর্ষবরণে পহেলা বৈশাখ শান্তিপূর্ণভাবে উদযাপনের লক্ষ্যে শহরের নিরাপত্তায় সব রকম প্রস্তুতি রয়েছে।  পহেলা বৈশাখসহ বিভিন্ন জাতীয় দিবসে সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ রুখতে এবং সমাজে শান্তি প্রতিষ্ঠায় ভূমিকা রাখতে প্রতিটি মসজিদে গণসচেতনতামূলক বক্তব্য প্রদানের বিষয়ে সভায় অভিমত প্রকাশ করা হয়। ইলিশের সরবরাহ স্বাভাবিক রাখতে জাটকা ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ সরকারের নীতিগত সিদ্ধাস্ত। তাই  পহেলা বৈশাখে সরকারি কোন আয়োজনে ইলিশ থাকবে না। 
র‌্যাবের প্রতিনিধি জানান, সম্প্রতি দু’শতটি প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালানো হয় এবং ১০ হাজার জাটকা ইলিশ আটক করা হয়।  মার্চ, ২০১৭ তে ভেজাল খাদ্যদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ করার জন্য পরিচালিত তিনটি অভিযানে তিন মামলায় তিনজন আসামীর কাছ থেকে মোট ১০ হাজার সাতশত টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।
সভাপতি জানান, মাদকের বিষয়ে জিরো টলারেন্স নীতিগত সিদ্ধান্ত।  সর্বোচ্চ সাজা নিশ্চিত করতে হবে। এ ক্ষেত্রে শুধু অর্থদন্ড যথেষ্ট নয়, তবে কোন নিরপরাধ ব্যক্তি যেন শান্তি না পায়। তিনি বলেন, জেলাসহ উপজেলাতেও শতভাগ ই-মোবাইল কোর্ট চালু করতে হবে।  পুলিশ সুপার জানান, ইতোমধ্যে চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়া মাদকের পৃষ্ঠপোষকতাকারীদেরকে সতর্ক করা হয়েছে। মাদক বিরোধী গণসচেতনতার ওপরও গুরুত্বারোপ করা হয়।
সভায় জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশিদ, উপজেলা চেয়ারম্যান, সিভিল সার্জন, উপ-পুলিশ কমিশনার (নর্থ), পুলিশ সুপার, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, র‌্যাব প্রতিনিধি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ কমিটির অন্যান্য সদস্যগণ অংশগ্রহণ করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ