ঢাকা, বুধবার 19 April 2017, ৬ বৈশাখ ১৪২৩, ২১ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

গ্রেফতারি পরোয়ানা সাক্কুর বিরুদ্ধে

স্টাফ রিপোর্টার: দুর্নীতির মামলায় কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র ও বিএনপির নেতা মনিরুল হক সাক্কুর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। একই সঙ্গে তার মালামাল জব্দের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

গতকাল মঙ্গলবার সকালে ঢাকা মহানগরের জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ মো. কামরুল হোসেন মোল্লা এ আদেশ দেন।

সাক্কুর বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) অভিযোগপত্র আমলে নিয়ে আদালত এ আদেশ দেন বলে জানান দুদকের আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল।

তিনি বলেছেন, মনিরুল হক সাক্কুর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। এ বিষয়ে আগামী ১৪ মে পরবর্তী শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

তবে পরোয়ানা জারির এ বিষয়ে মনিরুল হক সাক্কু বলেন, ‘আমি ওই মামলায় আদালতে হাজির না হওয়ার কারণে এ আদেশ জারি করা হয়েছে। ওই মামলায় আমি সুপ্রিম কোর্ট থেকে স্থায়ী জামিন নিয়েছি। তবে আমার আইনজীবী বিষয়টি আদালতের কাছে উল্লেখ না করায় এ অবস্থা হয়েছে। বুধবার আদালতে এ-সম্পর্কিত নথিপত্র উপস্থাপন করব।’

মামলার বিবরণী অনুযায়ী, ২০০৮ সালের ৭ জানুয়ারি দুদকের সহকারী পরিচালক শাহীন আরা মমতা বাদি হয়ে সাক্কু ও তার স্ত্রী আফরোজা জেসমিনের বিরুদ্ধে জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জন ও তথ্য গোপন করার অভিযোগে রমনা থানায় মামলা করেন। দীর্ঘ আট বছর তদন্ত শেষে গত বছরের ৪ ফেব্রুয়ারি দুদকের সহকারী পরিচালক নুরুল হুদা আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন। তবে মামলা থেকে সাক্কুর স্ত্রীকে অব্যাহতি দেয়ার আবেদন জানানো হয়।

অভিযোগপত্রে সাক্কুর বিরুদ্ধে বলা হয়, ১ কোটি ১২ লাখ ৪০ হাজার ১২০ টাকার তথ্য গোপনের অভিযোগ প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হয়েছে। ৪ কোটি ৫৭ লাখ ৭৩ হাজার ৯৩৩ টাকা জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ আনা হয়েছে।

গত ৩০ মার্চ কুমিল্লা আওয়ামী লীগের প্রার্থী আঞ্জুর আরা সুলতানা সীমাকে প্রায় ১১ হাজার ভোটের ব্যবধানে হারিয়ে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী হিসেবে মেয়র হিসেবে নির্বাচিত হন মনিরুল হক সাক্কু।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ