ঢাকা, শুক্রবার 21 April 2017, ৮ বৈশাখ ১৪২৩, ২৩ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

আমতলীতে ফসলী জমি অধিগ্রহণের বিরুদ্ধে অভিযোগ

আমতলী (বরগুনা) সংবাদদাতা : বরগুনার আমতলী পৌরসভার ময়লা আবর্জনা রিফাইনের জায়গা অধিগ্রহণের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেছেন চাওড়া ইউপি চেয়ারম্যান মো. আখতারুজ্জামান বাদল খান। বরগুনা জেলা প্রশাসক বরাবর দেয়া অভিযোগ পত্রে চাওড়া ইউনিয়নের ঘটখালী মৌজার তিন ফসলী জমি পৌরসভার ময়লা আবর্জনা রিফাইনের জন্য অধিগ্রহন না করার অনুরোধ করা হয়।

জানা গেছে, আমতলী পৌরসভার ময়লা আবর্জনা রিফাইন করার জন্য বরগুনা জেলা প্রশাসকের কার্যলয় থেকে চাওড়া ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের আমতলী পটুয়াখালী সড়কের পূর্বপাশে ঘটখালী গ্রামের ৫ একর জমি অধিগ্রহনের প্রস্তাব করা হয় । বুধবার বরগুনা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. নুরজ্জামান প্রস্তাবিত অধিগ্রহন কৃত জমি সরেজমিনে তদন্তে গেলে জমির মালিকরা অধিগ্রহনের কথা জানতে পারে। ভুক্তভোগি জমির মালিকরা তাৎক্ষনিক ভাবে স্থানীয় চেয়ারম্যান কে জানালে চাওড়া ইউনিয়ন পরিষদ বৃহস্পতিবার সকালে জরুরী সভা ডাকে। সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী চাওড়া ইউনিয়নের ঘটখালী মৌজার জমি অধিগ্রহন না করার জন্য বরগুনা জেলা প্রশাসকের বরাবরে লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন। চাওড়া ইউপি চেয়ারম্যান আখতারুজ্জামান বাদল খান জানান, আমতলী পৌরসভা অসৎ উদ্দেশে নিজের আওতাধীন জমি থাকা সত্ত্বেও আমাদের চাওড়া ইউনিয়নের তিন ফসলী কৃষি জমি অধিগ্রহণ করার জন্য অপচেষ্টায় লিপ্ত আছেন। এ প্রসঙ্গে বরগুনার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. নুরজ্জামান বলেন পৌরসভার ময়লা আবর্জনা রিফাইন করার জন্য পৌরসভার মধ্যে প্রকল্প নেয়া যাবেনা। বিধায় পৌরশহরের বাহিরে যে কোন জায়গায় প্রকল্প নিতে হবে। 

প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

বরগুনার আমতলীতে বৃহস্পতিবার এক দিনব্যাপী প্রিন্ট, অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার আমতলী তালতলী উপজেলার ২৫ জন সাংবাদিকদের নিয়ে প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ মানবাধিকার সাংবাদিক ফোরাম এ প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করে।

আমতলী প্রেস ক্লাবের সভাপতি এ্যাডঃ শাহাবুদ্দিন পাননার সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন আমতলী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জি এম দেলওযার হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আমতলী প্রেসক্লাব সাধারন সম্পাদক মো. জসিম উদ্দিন সিকদার । 

মানবাধিকার সাংবাদিকতা বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালায় জাতিসংঘ মানবাধিকার সনদ, জাতিসংঘ নারী অধিকার সনদ (সিডো), জাতিসংঘ শিশু অধিকার সনদ, মানবাধিকার, নারী ও শিশু অধিকার রক্ষায় গণমাধ্যমের ভূমিকা নিয়ে দিনভর কর্মশালায় প্রশিক্ষণ প্রদান করেন বাসসের সিনিয়র রিপোর্টার ও মানবাধিকার সাংবাদিক ফোরামের মহাসচিব খায়রুজ্জামান কামাল ও ভাষানটেক সরকারী কলেজের অধ্যাপক আব্দুল্লাহ আলমামুন মোহন। বাসস বরগুনা জেলা প্রতিনিধি একেএম খায়রুল বাশার বুলবুলের সঞ্চনালয়ে কর্মশালায় বক্তব্য রাখেন রেজাউল করিম, জাকির হোসেন, মস্তফা কবির, সাইদ খোকন, মোঃ খালেদ মোশাররফ সোহেল, এস.এম. নাসির মাহমুদ, মোঃ মনিরুজ্জামান সুমন, গাজী মতিয়ার রহমান, সৈয়দ নুহু উল আলম নবীন প্রমুখ। কর্মশালায় মোট ২৫ জন সংবাদকর্মী অংশগ্রহণ করেন। কর্মশালা শেষে অংশগ্রহনকারী সাংবাদিকদের প্রশিক্ষণ সনদ ও সম্মানী ভাতা প্রদান করা হয়।

স্বামী গ্রেফতার

বরগুনার আমতলী উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের কুলাইচর গ্রামে দ্বিতীয় বিয়ে করে পাষ- স্বামী আফজাল মৃধা বুধবার প্রথম স্ত্রী রেহেনা বেগম (৪৫) কে পিটিয়ে হত্যা করেছে। এ ঘটনায় পুলিশ পাষন্ড স্বামীকে গ্রেফতার করেছে । নিহতের ভাই নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে আমতলী থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, আফজাল মৃধা রেহেনা বেগমকে ২০ বছর পূর্বে বিয়ে করে। এদের ঘরে রয়েছে ৩ সন্তান। অতি সম্প্রতি আফজাল মৃধা পটুয়াখালী হেতালীয় বাঁধঘাট এলাকায় শিরিনা বেগমের সাথে মোবাইলে প্রেম থেকে এ বছর বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়। বুধবার সকালে প্রথম স্ত্রী রেহেনা বেগমের সাথে আফজাল মৃধা ও দ্বিতীয় স্ত্রী শিরিনা বেগমের কথা কাটাকাটির এক পর্যায় শিরিনা ও আফজাল রেহেনা বেগমকে বেধরক মারধর করেন। রেহেনা অসুস্থ হয়ে পরলে গোপনে চিকিৎসার জন্য পটুয়াখালী নেয়ার পথে মহিষকাটা বজারে বসে তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় নিহতের ভাই নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে ঘাতক স্বামী আফজাল মৃধা ও তার দ্বিতীয় স্ত্রী শিরিনা বেগম কে আসামী করে বুধবার রাতে আমতলী থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ তাৎক্ষণিকভাবে পাষন্ড স্বামীকে গ্রেফতার করে। বৃহস্পতিবার ঘাতক আফজাল মৃধাকে পুলিশ আমতলী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে প্রেরন করেন। বিজ্ঞ বিচারক বৈজয়ন্ত বিশ্বাস আসামী আফজালের জামিন না মঞ্জুর করে বরগুনা জেল হাজতে প্রেরন করেন। আমতলী থানার ওসি শহিদ উল্লাহ জানান, এ ঘটনায় হত্যা মামলা হয়েছে।

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ