ঢাকা, শুক্রবার 21 April 2017, ৮ বৈশাখ ১৪২৩, ২৩ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

সনুর বিরুদ্ধে মামলা

২০ এপ্রিল, পার্সটুডে : আজান নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে ফেঁসে গেছেন সনু নিগম এবং মুম্বাইয়ে তার বাড়ির আশেপাশে অবস্থান নিয়ে আজানের ধ্বনি শুনতে পাননি কোনো সাংবাদিক। স্থানীয়রাও বলেছেন, সনু নিগম মিথ্যা বলেছেন। আসলে তার বাড়ি থেকে আজানই শোনা যায় না। গতকাল বিবিসিসহ বেশ কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমের সাংবাদিকরা আজানের আগে অর্থাৎ ভারতের স্থানীয়সময় ভোর ৫টার আগে সনুনিগমের বাড়ির সামনে সমবেত হন। আজানের শব্দ সত্যিই শোনা যায় কিনা সরেজমিনে যাচাই করে দেখার জন্য সাংবাদিকরা সেখানে জড়ো হয়েছিলেন। ব্যস্ত মুম্বাইয়ের রাস্তা সে সময় প্রায় জনমানবহীন ছিল। আন্ধেরির ভেসোভা এলাকায় অবস্থিত সনু নিগমের দোতলা বাড়ির আলো তখনো নেভানো ছিল। বাড়ির বাইরে মোতায়েন ছিল পুলিশের গাড়ি। আজান শোনার জন্য সাংবাদিকরা অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করতে থাকেন। কিন্তু সনুর বাড়ির কাছ থেকে আজানের কোনো ধ্বনি সাংবাদিকরা আদৌও শুনতে পাননি। রাস্তায় মাঝে মাঝে গাড়ি চলাচলের শব্দ ছাড়া আর কোনো শব্দই কার্যত শুনতে পাননি তারা। খোঁজ নিয়ে সাংবাদিকরা জানতে পারেন সনুর বাড়ি থেকে অনেক দূরে কয়েকটি মসজিদ রয়েছে। কিন্তু ওইসব মসজিদের আজানের ধ্বনি সনুর বাড়ি পর্যন্ত পৌঁছায় না। এরপর সাংবাদিকরা সেখানে উপস্থিত হয়ে এর সত্যতার প্রমাণ পান। সাংবাদিকরা আজানের কোনো শব্দ শুনতে পাননি।সনুর প্রতিবেশী লতা সানদেবও জানান, তিনিও কখনো ওই এলাকায় আজানের ধ্বনি শুনতে পাননি। একই কথা বলেন কিরণ ওয়াসান নামের অপর এক হিন্দু নারী। স্থানীয় আরেক ব্যক্তি বলেছেন, এ এলাকায় সনু এসেছেন দুই থেকে চার বছর হবে, কিন্তু এ এলাকায় তারা গত ৩০-৩৫ বছরে ধরে বসবাস করছেন। তবে এএলাকার কাউকে তারা আজান নিয়ে কখনোই বিরূপ মন্তব্য করতে শোনেননি।

এদিকে আযান সংক্রান্ত ইস্যুতে ভারতের পানিপথের একটি আদালত সনু নিগমের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ২৯৪, ২৯৫, ২৯৫-এ, ২৯৬, ৫০০ এবং ৫০১ ধারায় মামলার নির্দেশ দিয়েছেন। আযান ইস্যুতে আইনজীবী মোমিন মালিক পানিপথের সিজেএম আদালতে বুধবার আবেদন জানালে ওই নির্দেশ দেয়া হয়। আগামী ২ মে ওই মামলার পরবর্তী শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়া গতকাল বৃহস্পতিবার আওরঙ্গবাদের মারাথওয়াদায় পুলিশস্টেশনে ওই অভিযোগ জমা দিয়েছেন স্থানীয় একটি ধর্মীয় সংগঠনের প্রধান নাদিম রানা। আওরঙ্গবাদের কমিশনার অব পুলিশ অমিতেষ কুমার বলেছেন, ওই শিল্পীর বিরুদ্ধে আমরা একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। সনু নিগম প্রচার পাওয়ার জন্য এ কাজ করেছেন বলে অনেকে উল্লেখ করেছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ