ঢাকা, সোমবার 29 May 2017, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৩, ২ রমযান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

প্যারিসে সন্ত্রাসী হামলায় পুলিশসহ নিহত ২

অনলাইন ডেস্ক:প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের মাত্র তিনদিন আগে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে বন্দুকধারীর হামলায় এক পুলিশ সদস্য এবং হামলাকারী নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আরো দুই পুলিশ সদস্য। খবর বিবিসির।

প্যারিসের চ্যাম্প এলিসিস এলাকায় এক বন্দুকধারী নির্বিচারে গুলিবর্ষণ গুরু করলে এক পুলিশ সদস্য ঘটনাস্থলেই মারা যান। এ সময় আরও  দুই পুলিশ সদস্য গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়েছেন।নিরাপত্তাকর্মীদের পাল্টা গুলিতে ওই বন্দুকধারীও মারা যান। দেশটির সন্ত্রাসবিরোধী ইউনিট এরই মধ্যে বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে।

পুলিশের সূত্র দিয়ে ডেইলী মিরর জানিয়েছে, সন্ধ্যায় রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ সড়কে দুই আততায়ী পুলিশের ওপর গুলি চালায়। পুলিশ বলছে এটি একটি সন্ত্রাসী হামলা।এ ঘটনায় পুলিশের পাল্টা গুলিতে এক সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে। অপর সন্ত্রাসী পালিয়ে গিয়েছে।

ফ্রান্সের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র পিয়েরি হেনরি ব্রান্ডিট বলেছেন, ‘রাত ৯টার পরে রাস্তার পাশে পার্ক করে রাখা একটি পুলিশের গাড়ির পাশে আরেকটি গাড়ি এসে থামে। দ্রুত ওই গাড়ি থেকে এক ব্যক্তি বের হয়ে আসে এবং পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে। এতে এক পুলিশ সদস্য গুরুতর আহত হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, হামলাকারী একজন ছিল। পরে গুলিতে সে নিহত হয়। এ ঘটনার পর পুরো চ্যাম্পস-এলেসিস অ্যাভিনিউ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

প্যারিসের সরকারি কৌঁসুলি ফ্রাঁসোয়া মলিনস জানিয়েছেন, হামলাকারীকে চিহ্নিত করা হয়েছে। তবে তার সঙ্গে আরো কোনো সঙ্গী ছিল কি না নিশ্চিত করতে তদন্তকারীরা তা খতিয়ে দেখছেন।

এদিকে, হামলার পরপর মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক চরমপন্থি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট এর দায় স্বীকার করেছে। গোষ্ঠীটির মুখপাত্র আমাক নিউজ এজেন্সিতে বলা হয়েছে, ইসলামিক স্টেটের যোদ্ধারা এ হামলা চালিয়েছে।

ফরাসি প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওঁলাদ জানিয়েছেন, এটি যে সন্ত্রাসী হামলা সে ব্যাপারে তাকে নিশ্চিত করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে তিনি এ বিষয়ে পরবর্তী করণীয় নির্ধারণে মন্ত্রী পরিষদের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন।

প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালের পর থেকে ফ্রান্সে এ পর্যন্ত কয়েক দফা সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। প্যারিস হামলার পর থেকে দেশটিতে জরুরি অবস্থা জারি রয়েছে।

 

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ