ঢাকা, শনিবার 22 April 2017, ৯ বৈশাখ ১৪২৩, ২৪ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মেয়াদ উত্তীর্ণের পূর্বেই ব্যাংকের সার্টিফিকেট মামলা

পত্নীতলা (নওগাঁ) সংবাদদাতা : নওগাঁর পত্নীতলায় রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের পত্নীতলা শাখা অফিস হতে দেড় লাখ টাকা ঋণ নিয়ে বিপাকে পড়েছে পদ্মপুকুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও ২০০৬ সালের রাজশাহী বিভাগের শ্রেষ্ঠ শিক্ষক মো. ইউনুছার রহমান। নিজে দুর্ঘটনার শিকার হয়ে পঙ্গুত্ব হওয়া ও মেধাবী সন্তানদের পড়ালেখার খরচ যোগাতে গিয়ে সময়মতো ঋণের টাকা পরিশোধ করতে না পারায় ব্যাংক কর্তৃপক্ষের সার্টিফিকেট মামলা মাথায় নিয়ে এখন প্রায় পাগল প্রায় এই শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক। ঋণের টাকার সুদ মওকুফ ও কিস্তিতে টাকা পরিশোধের সুযোগ চেয়ে তিনি ব্যাংক ম্যানেজার ও সার্টিফিকেট অফিসারের নিকট ধর্ণা দিয়ে কোন প্রতিকার না পেয়ে বাধ্য হয়ে গত ২০/০৩/২০১৭ তারিখে বাংলাদেশ ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপক বরাবর একটি লিখিত আবেদন করেছেন। সেই সাথে আবেদনের অনুলিপি প্রদান করেছেন রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের পত্নীতলা শাখা ব্যবস্থাপক, সহকারী মহা-ব্যবস্থাপক, মহাব্যবস্থাপক, সার্টিফিকেট অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বরাবর।
ভুক্তভোগী প্রধান শিক্ষকের আবেদন হতে জানা গেছে, শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রাখার জন্য ২০০৬ সালে তিনি রাজশাহী বিভাগের শ্রেষ্ঠ শিক্ষক  নির্বাচিত হন। পারিবারিক আয় বৃদ্ধির লক্ষ্যে গাভী ক্রয়ের জন্য তাঁর স্ত্রী রোকেয়া বেগম বসতবাড়ির সাড়ে ১৪ শতক জমি বন্ধক রেখে রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের পত্নীতলা শাখা হতে ০৫/১২/২০১২ তারিখে দেড় লাখ টাকা ঋণ গ্রহণ করেন। এই ঋণ পরিশোধের শর্ত ছিলো প্রতি ৬ মাস পর পর কিস্তীর মাধ্যমে পরবর্তী ৪ বছরে ঋণের টাকা সুদসহ পরিশোধ করতে হবে।
সে হিসাবে আগামী ৩০/০৪/২০১৭ তারিখে ঋণের সর্বশেষ কিস্তী পরিশোধের কথা। ঋণ গ্রহণের সময় ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে ২০ হাজার টাকা উৎকোচ প্রদান করতে হয় বলেও তিনি আবেদনে উল্লেখ করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ