ঢাকা, শনিবার 22 April 2017, ৯ বৈশাখ ১৪২৩, ২৪ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

ঝালকাঠিতে গৃহবধূকে হত্যা করে লাশ হাসপাতালে রেখে পালিয়েছে শ্বাশুড়ী

ঝালকাঠি সংবাদদাতা: ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার ষাটপাকিয়া গ্রামের এক গৃহবধূকে হত্যার পর লাশ হাসপাতালে রেখে স্বজনরা পালিয়ে গেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সোমবার রাত ৯ টার দিকে ঝালকাঠি সদর হাসপাতাল সূত্রে এ তথ্য পাওয়া গেছে।
হাসপাতাল সূত্রে জানাগেছে,  নিহত গৃহবধূ মারুফা বেগম (২২) ষাটপাকিয়া গ্রামের মৃত মানিক মিয়ার মেয়ে। ৪ বছর আগে ওই গ্রমের সুমনের সাথে তার বিয়ে হয়। বিয়ের পর সৌদি আরব প্রবাসে চলে যায় স্বামী সুমন।
এরপর থেকেই শ্বশুর বাড়ির লোকজন মারুফাকে  নির্যাতন করে আসছিল।
নিহতের স্বজনরা অভিযোগ করেছেন, সোমবার রাত ৮টার দিকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর মারুফাকে  হাসপাতালে আনে শ্বাশুড়ী ননদ ও জা। পরে মৃতদেহ হাসপাতালে রেখে তারা পালিয়ে যায়।
মঙ্গলবার দুপুরে  সদর থানার এসআই আশিক, এসআই মিজান ও এএসআই লিজা হাসপাতালে গিয়ে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেন।
নিহতের হাতে ও গলায় দাগ রয়েছে বলে এসআই আশিক জানান। কর্তব্যরত চিকিৎসক বদিউজ্জামান জানান, ময়না তদন্তের পরে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।
ময়না তদন্ত শেষে দুপুরেই নিহতের পরিবারের নিকট লাশ হস্তান্তর করা হয়।
সদর থানার ওসি তাজুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ