ঢাকা, শনিবার 22 April 2017, ৯ বৈশাখ ১৪২৩, ২৪ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

সিরিয়ায় সেনা ক্যাম্পে হামলায় রুশ মেজর নিহত

আরটি: সিরিয়ায় সরকারি বাহিনীর একটি সেনা ক্যাম্পে জঙ্গি হামলায় রুশ সেনাবাহিনীর মেজর পদমর্যাদার এক সামরিক উপদেষ্টা নিহত হয়েছেন। গত বৃহস্পতিবার রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এ তথ্য জানিয়েছে।
নিহত সামরিক উপদেষ্টার নাম মেজর সের্গেই বোরদোভ। রুশ সামরিক উপদেষ্টা হিসেবে তিনি সিরীয় সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ দিচ্ছিলেন।
আরটি জানিয়েছে, সিরীয় সরকারি বাহিনীর একটি ক্যাম্পে হামলায় মেজর নিহত হন। প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, হামলার সময় বোরদোভ সিরীয় সেনাবাহিনীকে প্রতিরক্ষামূলক ব্যবস্থা ও পদক্ষেপ নিতে ভূমিকা রাখেন। নিহত মেজরের পদক্ষেপের ফলে সেনা ক্যাম্পটি রক্ষা করা গেছে।
চলমান গৃহযুদ্ধে সিরীয় প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদকে সমর্থন করছে রাশিয়া। আসাদবিরোধী বিদ্রোহী ও ইসলামিক স্টেট (আইএস)-এর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সেনা ও বিমানহামলা চালিয়ে সহযোগিতা করে যাচ্ছে রাশিয়া।
৪ এপ্রিল সিরিয়ার সরকারি বাহিনী বিদ্রোহীদের ওপর রাসায়নিক অস্ত্র হামলা চালায়। এতে অন্তত ৮৯ জন নিহত হয়েছেন। পরে এই রাসায়নিক হামলার অভিযোগে শুক্রবার একটি সিরিয়ার শায়রাত বিমানঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় যুক্তরাষ্ট্র। ওই দিন ভোরে দুই মার্কিন যুদ্ধজাহাজ ইউএসএস পোর্টার এবং ইউএসএস রস থেকে আসাদ সরকার নিয়ন্ত্রিত ওই বিমানঘাঁটিতে ৫৯টি টমাহক ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়। সিরীয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, হামলায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতিসহ অন্তত ছয়জন নিহত হয়েছেন। বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।
এরপর এক সংবাদ সম্মেলনে সিরিয়ার প্রতি দৃঢ় সমর্থনের কথা পুনর্ব্যক্ত করেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন। তিনি বলেন, ‘পশ্চিমা দেশগুলো ও তুরস্ক ইদলিবে রাসায়নিক হামলায় সিরীয় সরকারের জড়িত থাকার কথা বলছে। এটা ২০০৩ সালে ইরাকে মার্কিন আগ্রাসনের সময় সাদ্দাম হুসেইনের বিরুদ্ধে বলা কথিত ব্যাপক বিধ্বংসী অস্ত্রের প্রচারণার মতোই। এই ঘটনা এরই মধ্যে আমরা দেখতে পেয়েছি।’
সংবাদ সম্মেলনে পুতিন জানান, ‘রাশিয়ার কাছে তথ্য রয়েছে যে, মার্কিন বাহিনী ভুয়া রাসায়নিক হামলার পরিকল্পনা করছে, এর ওপর ভিত্তি করে তারা আরও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাবে।’
তিনি আরও জানান, বিভিন্ন সূত্র থেকে এ বিষয়টি পরিষ্কার যে, ৪ এপ্রিল খান শেইখুনে হামলার পেছনে আসাদ সরকারের হাত নেই।
তবে মার্কিন কর্তৃপক্ষ ভুয়া রাসায়নিক হামলা চালিয়ে ওই ক্ষেপণাস্ত্র হামলাকে সঠিক হিসেবে প্রচার করবে বলেও পুতিন উল্লেখ করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ