ঢাকা, রোববার 23 April 2017, ১০ বৈশাখ ১৪২৩, ২৫ রজব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

দোয়ারাবাজারে মোটর সাইকেল চালকদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

নূরুল ইসলাম, ছাতক (সুনামগঞ্জ) সংবাদদাতা : দোয়ারাবাজারে প্রশাসনের নাকের ডগায় ভাড়াটে মোটর সাইকেল চালকদের দৌরাত্ম্য আশংকাজনকহারে দিন দিন বেড়েই চলেছে। ফলে প্রশাসনের সুষ্টু নজরদারি না থাকায় চালকরা ভারত থেকে অস্ত্র, মাদকদ্রব্যসহ অন্যান্য অবৈধ মালামাল আমদানি ছাড়াও বিভিন্ন অপরাধের সাথে জড়িত হচ্ছে।
জানা যায়, দোয়ারাবাজার উপজেলার ভারতীয় সীমান্তবর্তী প্রতিটি ইউনিয়নে প্রতিটি দূর্গম রাস্তায় যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম হচ্ছে ভাড়াটে মোটর সাইকেল। নিরুপায় হয়ে এগুলো দিয়েই পরিবহন করা হয় ডেলিভারী রোগিসহ অন্যান্য রোগিদের। কিন্তু এদের উপর প্রশাসনের নজরদারি না থাকায় চালকরা প্রতি কিলোমিটারে জনপ্রতি নিয়ন্ত্রণহীনভাবে ভাড়া ৭০থেকে ১০০টাকা হারে আদায় করছে।
নাম্বার প্লেট ও লাইসেন্স বিহীন এগুলোর অধিকাংশই চোরাই সাইকেল বলে জানা গেছে। এসব সাইকেলে বখাটে যুবক, অস্ত্র, মাদক ও চোরাচালানিসহ পেশাদার সন্ত্রাসীদের আনাগোনা এখন চোখে পড়ার মতো। এদের অপতৎপরতায় যাত্রীসহ রেহাই পাচ্ছেনা স্কুলগামি ছাত্রছাত্রী। ১৮এপ্রিল দোয়ারাবাজার-ভোজনা সড়কে যাত্রিবাহী সাইকেল চালক ইদ্রিছ আলী স্কুলগামি এক ছাত্রীকে অপহরণের প্রচেষ্টা চালায়। গত ১৯এপ্রিল লক্ষীপুর ইউপির পশ্চিম বাংলাবাজারের চানপুর গ্রামের আবদুল মতিনের পুত্র চালক ইদরিছ আলীর বিরুদ্ধে সুরমা ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে অভিযোগ করেন। সে ভোজনা গ্রামের জয়নাল আবেদিনের মেয়ে স্থানীয় টেংরা হাইস্কুলের দশম শ্রেণীর ছাত্রী সুমাইয়া বেগমকে অপহরণকালে আত্মরক্ষা করতে লাফ দিয়ে পড়ে গুরুতর আহত হয়। পরে তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এর প্রতিবাদে ১৯এপ্রিল টেংরা বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। এসময় সুরমা ইউপি চেয়ারম্যান খন্দকার মামুনুর রশীদ, টেংরাবাজার কমিটির সভাপতি মেজবাহুল গনি সুমন, টেংরা হাইস্কুল কমিটির সভাপতি শের মাহমুদ ভূঁইয়া, প্রধান শিক্ষক সুরঞ্জিত দাস, অভিভাবক কাজি মনিরুজ্জামান, পশ্চিম বাংলাবাজার মোটর সাইকেল সমিতির সভাপতি রেজাউল চৌধুরী, আহত সুমাইয়া বেগমের পিতা জয়নাল আবেদিন, শিক্ষার্থী রাকিবুর রহমান রাতুল প্রমুখ মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ