ঢাকা, শনিবার 29 April 2017, ১৬ বৈশাখ ১৪২৩, ০২ শাবান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

চট্টগ্রাম জেলার বাঁশখালীর ১৪টি ইউপি’র নির্বাচন সম্পন্ন

বাঁশখালী (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা: কয়েকটি স্থানে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, গোলাগুলি ও  সংঘর্ষের ঘটনার মধ্যদিয়ে গত মঙ্গলবার চট্টগ্রাম জেলার বাঁশখালীতে ১৪টি ইউপি’র নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। সকাল ৮ টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ শেষে ভোট গণনা চলছে। কয়েকটি স্থানে চেয়ারম্যান প্রাথীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ ও গোলাগুলিতে ১০ জন আহত হয়েছে। পুলিশ ৫ জনকে আটক করেছে।
চট্টগ্রাম আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো: মুনীর হোসাইন খান বলেছেন, কিছু বিচিছন্ন ঘটনা ছাড়া বাশঁখালীতে নির্বাচন শানিতপুর্ন ভাবে শেষ হয়েছে।অনিয়মের বড় কোন অভিযোগ পাওয়া যায় নি।
পুলিশ কর্মকর্তারা  সাংবাদিকদের জানান, কালীপুর, কাথারিয়া, চাম্বল, পুকুরিয়াতে কিছু সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। ১০-১৫ জন আহত হয়েছে। ৬ জন গুলিবিদ্ধ তন্মধ্যে তাদের চমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ৫ জনকে আটক করা হয়েছে।
বাঁশখালী উপজেলার কাথারিয়া ইউনিয়নের বাগমারা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে গোলাগুলি হয়েছে।ভোটগ্রহণের মাঝপথে মঙ্গলবার বেলা ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে বলে পুলিশ ও নির্বাচন পর্যবেক্ষকরা জানিয়েছে।কাথারিয়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী ইবনে আমিন। আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী জয়নাল আবেদীন এই ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান।
দুই পক্ষের বক্তব্য অনুযায়ী, সংঘর্ষে আহতদের মধ্যে ইবনে আমিনের সমর্থক এরশাদ ও খোরশেদ এবং জয়নাল আবেদীন চৌধুরীর সমর্থক ওয়াসিম ও মুন্নু।তবে পুলিশ ও নির্বাচন কর্মকর্তাদের দাবি সংঘর্ষে একজন আহত হয়েছেন।
চট্টগ্রাম জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এ কে এম এমরান ভুঁইয়া বলেন, কাথারিয়ার একটি কেন্দ্রে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে সংঘর্ষে একজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ