ঢাকা, বুধবার 03 May 2017, ২০ বৈশাখ ১৪২৩, ০৬ শাবান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

সোনারগাঁয় ইজিবাইক চালক হত্যা ॥ ঘাতকের আদালতে দায় স্বীকার

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) সংবাদদাতা :  নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে ইজিবাইকের চালককে জবাই করে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা (ইজিবাইক) ছিনতাইয়ের ঘটনায় গ্রেফতারকৃত মেহেদী হাসান নামে এক কিশোর আদালতে দোষ স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছে।  গত বুধবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ইশরাত জাহানের আদালতে ১৬৪ ধারায় মেহেদী হাসানের জবানবন্দি গ্রহণ করেছে। কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক সোহেল আলম এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
নারায়ণগঞ্জ আদালত সূত্রে জানা যায়, মেহেদী হাসান বন্দর উপজেলার কোন এক স্কুলের ৮ম শ্রেনীর ছাত্র। তার সহপাঠী একই ক্লাশের ছাত্র অনিক, রিয়াজ, পারভেজ ও রিংকু। রিয়াজের বন্ধু ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা (ইজিবাইক) চালক নিহত সোহন। পারভেজ ও রিংকুর প্রস্তাবে মেহেদী ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা ছিনতাইয়ের পরিকল্পনা করে। এরপর পরিচিত সোহানের অটোরিকশায় বন্দর থেকে ৫জন উঠে সোনারগাঁয়ের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে বেড়ায়। এরমধ্যে ছিনতাইয়ের পর অটোরিকশা বিক্রির জন্য শাহীনকে প্রস্তুত থাকার কথা বলে ৩টি ছুরি সংগ্রহ করে তারা। রাত সাড়ে ১০টার দিকে সোনারগাঁ উপজেলার সোনারগাঁ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের সামনে  ব্রিজের কাছে এসে অটোরিকশা চালক সোহানের উপর হামলা চালায়। প্রথমে সোহানের গলায় মেহেদী হাসান ছুরিকাঘাত করে। পরে সোহানের পেটে রিংকু ছুরিকাঘাত করে হত্যা শেষে সড়কের ঢালুতে লাশ ফেলে দেয়। এরপর পারভেজ অটোরিকশা চালিয়ে নিয়ে তাদের এক ইয়াবা সেবনকারী বন্ধুর বাসায় রাখে। সেখান থেকে ট্রাকে উঠিয়ে অটোরিকশাটি নারায়ণগঞ্জ নিয়ে আসার সময় এলাকাবাসীর হাতে আটক হয় তিনজন। পরে পুলিশ আটক করে একজনকে। এ ঘটনায় ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, নিহত ইজিবাইক চালক সোহান বন্দর শাহী মসজিদ ঠাকুরবাড়ি কলোনি এলাকার আবদুর রশিদ মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া আলী আহম্মদের ছেলে। গত  সোমবার রাতে সোনারগাঁ  বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের কাছে ব্রিজের সামনে সোহানের গলা কাটা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ