ঢাকা, শনিবার 06 May 2017, ২৩ বৈশাখ ১৪২৩, ০৯ শাবান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠে জেএসসি পরীক্ষার বৃত্তিতে এবারও উপজেলা শীর্ষে

চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠ জেএসসি পরীক্ষার সদ্য প্রকাশিত বৃত্তির ফলাফলে ট্যালেন্টপুলে বৃত্তিপ্রাপ্ত ১০ শিক্ষার্থী -সংগ্রাম

শাহজালাল শাহেদ, চকরিয়া : কক্সবাজার জেলার আট উপজেলার মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে বরাবরের মতো সাফল্যের ধারাবাহিতা অক্ষুন্ন রেখেছে চকরিয়া উপজেলার অন্যতম সেরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠ। ৩০ মার্চ চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ড থেকে প্রকাশিত জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষার সদ্য প্রকাশিত বৃত্তির ফলাফলে চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠের ৪৬জন শিক্ষার্থী বৃত্তি পেয়ে অসাধারণ সাফল্য অর্জন করেছে। তারমধ্যে ১০জন পেয়েছে ট্যালেন্টপুল ও অপর ৩৬জন পেয়েছে সাধারণ গ্রেড।
ফলাফল অনুযায়ী ৪৬জন বৃত্তি পেয়ে চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠ এবারও উপজেলার মধ্যে শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে। চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠের প্রধানশিক্ষক মোহাম্মদ নুরুল আখের বলেন, ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষায় চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠ থেকে ৩৯১জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেন। তৎমধ্যে ঘোষিত ফলাফলে ৩৯০জন শিক্ষার্থী পাস করে বরাবরের মতো অসাধারণ সাফল্য অর্জন করেন। কৃতকার্য হওয়া ৩৯০জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ১৩৫ জন জিপিএ-৫ পেয়েছেন। তিনি বলেন, গত ৩০ মার্চ চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ড থেকে প্রকাশিত জেএসসি পরীক্ষার বৃত্তির ফলাফলে চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠের ৪৬ জন শিক্ষার্থী এবার বৃত্তি লাভ করেন। এতে ১০জন পেয়েছেন ট্যালেন্টপুল ও বাকি ৩৬জন পেয়েছেন সাধারণ গ্রেডে।
ট্যালেন্টপুলপ্রাপ্ত কৃতী শিক্ষার্থীরা হলেন মো. রাইসুল ইসলাম চৌধুরী, জাওয়াত বিন হোছাইন, রকিবুল ইসলাম, তাসনিমুল আকিব বিন ফরিদ, মিসফা আহমদ স¤্রাট, সৈয়দ মোহাম্মদ রশিদ, রাহাত আল মামুন, লাবিবা ছালওয়া ইসলাম, তানাজাতুল ইসফার নুপা ও সিদরাতুল মুনতাহা হৃদি। চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠ পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব জাফর আলম বি.এ (অনার্স) এমএ বলেন, বিদ্যালয়টির প্রতিষ্ঠার পর থেকে ভাল মানের ও অভিজ্ঞ শিক্ষকদ্বারা মনোরম শ্রেণিকক্ষে গুণগতমানের পাঠদান ও সঠিকভাবে তদারকির কারণে চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠের শিক্ষার্থীরা ফলাফলের ক্ষেত্রে অসাধারণ সাফল্য অর্জন করে আসছেন।
তার ধারবাহিকতা এখনো অক্ষুন্ন রয়েছে। মূলত সকল শিক্ষকের দায়িত্বশীল ভূমিকা এবং সচেতন অভিভাবকদের নিয়মিত তদারকির কারণে শিক্ষার্থীরা মনোযোগি হয়ে লেখাপড়া করে আসছেন বলেই আমাদের এই সফলতা। তিনি বলেন, আগামীতেও শিক্ষার্থীদের এধরণের সাফল্যের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে পরিচালনা কমিটির পক্ষ থেকে প্রতিষ্ঠানের প্রয়োজনে আর্থিক, প্রশাসনিক ও সুদক্ষ শিক্ষকম-লীকে সার্বিক সহযোগিতা করা হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ