ঢাকা, শনিবার 06 May 2017, ২৩ বৈশাখ ১৪২৩, ০৯ শাবান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

অস্ত্রসহ গ্রেফতার আ’লীগ নেতার ভাইকে ছিনতাই

চট্টগ্রাম অফিস : চট্টগ্রামে এক আওয়ামী লীগ নেতার ছোট ভাইকে অস্ত্রসহ গ্রেফতারের পর তাকে পুলিশের কাছ থেকে ছিনিয়ে নিয়েছে স্বজনরা।
চট্টগ্রাম নগর পুলিশের সহকারী কমিশনার (পাঁচলাইশ জোন) এসএম মো.বাশ্বের হোসেন জানান, গত বৃহস্পতিবার রাত থেকে শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত বোয়ালখালী উপজেলার সারোয়াতলী ইউনিয়নের হোরারবাগে এ ঘটনায় তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।
আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন- চট্টগ্রাম নগরীর বায়েজিদ বোস্তামী থানার এসআই মো.হাম্মদ আইয়ুব উদ্দিন, এসআই এইচ এম এরশাদ উল্লাহ ও চন্দগাঁও থানার এসআই মো. মফিজ উদ্দিন।
ছিনিয়ে নেয়া আসামী মো. সাইফুদ্দিন বাপ্পী (৪৬) বোয়ালখালী উপজেলার ৫ নম্বর সারোয়াতলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের সভাপতি বেলাল উদ্দিনের ছোট ভাই।
অস্ত্রসহ গ্রেফতার তিন ডাকাতকে জিজ্ঞাসাবাদে ‘অস্ত্রদাতা হিসেবে’ বাপ্পীর নাম আসার পর পুলিশ দুটি পিস্তলসহ তাকে গ্রেফতার করেছিল।
পুলিশ জানায়, গত ১ মে বিকালে নগরীর শহীদ নগর এলাকা থেকে অস্ত্র ও ১১ রাউন্ড গুলিসহ তিন ‘ডাকাতকে’ গ্রেফতার করে বায়েজিদ বোস্তামী থানা পুলিশ। তাদের কাছ থেকে অস্ত্রদাতা হিসেবে বাপ্পীর নাম পাওয়া যায়।
এর অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার রাতে বায়েজিদ থানার আমিন জুট মিল পেট্রোল পাম্প এলাকা থেকে দুইটি বিদেশি পিস্তলসহ বাপ্পীকে গ্রেফতার করে পুলিশ।
তার কাছে আরও অস্ত্র থাকার কথা স্বীকার করার পর নগরীর বায়েজিদ বোস্তামী ও চান্দগাঁও থানার পুলিশ বোয়ালখালী থানা পুলিশকে সাথে নিয়ে রাতে সারোয়াতলী ইউনিয়নের হোরারবাগ চেয়ারম্যান বাড়িতে (বাপ্পীর বাড়িতে) অস্ত্র উদ্ধারে যায়।
অভিযানের নেতৃত্বে থাকা নগর পুলিশের সহকারী কমিশনার (পাঁচলাইশ জোন) এসএম মো.বাশ্বের হোসেন বলেন, “বাড়ি থেকে অস্ত্র ও অস্ত্র তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার শেষে বাপ্পীকে নিয়ে ফেরার পথে তার ছোট ভাই সালাউদ্দিন রুমির নেতৃত্বে ৫০/৬০ জন লোক পুলিশের ওপর হামলা চালিয়ে বাপ্পীকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়।”
অভিযানে বাড়ি থেকে একটি বিদেশি রিভলবার, একটি শাটার গান, একটি এয়ারগান, চাইনিজ কুড়াল, বিভিন্ন সাইজের চারটি ধামা, ১৬টি বিভিন্ন সাইজের ছুরি, ওয়েল্ডিং মেশিন, বায়ু সরবরাহকারী মেশিন, লোহার ঘষার রেত, কাটা কম্পাস, ড্রিল মেশিনের মুখ, লোহার ছাঁচ, গ্লিন্ডার মেশিন, অস্ত্রের ম্যাগাজিন স্প্রিং, ছোট বড় প্লাস, ড্রিলিং স্কুসহ অস্ত্র তৈরির বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয় বলে জানান তিনি। 
পুলিশ কর্মকর্তা মো.বাশ্বের বলেন, “বাপ্পীর বাড়ি থেকে উদ্ধার করা সরঞ্জামগুলো দিয়ে অস্ত্র তৈরি করা হয়ে থাকে। এছাড়া আমাদের কাছেও তথ্য আছে বাপ্পী অস্ত্র বিক্রির সাথে জড়িত।”
এদিকে বাপ্পী ও রুমিকে ধরতে পুলিশের অভিযান চলছে বলেও জানান তিনি।      
এ ঘটনায় পুলিশ বাপ্পী ছাড়াও তার ছোট ভাই সালাউদ্দিন রুমি ও অজ্ঞাতদের আসামী করে বোয়ালখালী থানায় মামলা করতে যাচ্ছে।
বাপ্পীর বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে আরও তিনটি মামলা আছে বলে জানিয়েছে বায়েজিদ বোস্তামী থানার পুলিশ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ