ঢাকা, শনিবার 06 May 2017, ২৩ বৈশাখ ১৪২৩, ০৯ শাবান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

৩৫টি জিপিএ-৫ সিলেটের পাঠানটুলা জামেয়ার কৃতীত্বপূর্ণ ফলাফল

কবির আহমদ, সিলেট : ২০১৭ সালে অনুষ্ঠিত মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডের অধীনে দাখিল পরীক্ষায় ৩৫টি জিপিএ-৫ অর্জন করে সিলেটের অন্যতম ইসলামী বিদ্যাপীঠ শাহজালাল জামেয়া ইসলামীয়া পাঠানটুলা কামিলা মাদরাসা সাফল্যমন্ডিত ফলাফল অর্জন করেছে। মোট পাসের হার গত বছরের তুলনায় কিছুটা কমলেও অন্যান্য সব সূচকেই ভালো করেছে এ মাদরাসার পরীক্ষার্থীরা। যদিও মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডেই এবার ফলাফল অর্জনের ধারা অন্য বছরের তুলনায় পিছিয়েছে। অধ্যক্ষের কার্যালয় সূত্র জানিয়েছে, এবার দাখিল পরীক্ষায় পাশের হার ৯১ দশমিক ৯২ শতাংশ। ২শ ৬০ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন ২শ ৩৯ জন। এদের মধ্যে এ প্লাস পেয়েছেন ৩৫ জন। এ গ্রেড পেয়েছেন ৯৯ জন, এ মাইনাস পেয়েছেন ৭৭ জন, বি গ্রেড পেয়েছেন ২৩ জন এবং সি গ্রেড পেয়েছেন ৫ জন।
ফলাফল বিশ্লেষণে দেখা যায়, ২০১৬ সালের দাখিল পরীক্ষায় পাশের হার ছিলো ৯৭ দশমিক ৭৩ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছিলো ২৮ জন। ২শ ২১ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছিল ২শ ১৬ জন। জিপিএ-৫ কম হওয়া এবং পাশের হার সম্পর্কে জামেয়ার অধ্যক্ষ মাওলানা লুৎফুর রহমান জানান, মাদরাসা বোর্ডে গণিতে সৃজনশীল প্রশ্ন পদ্ধতি অনেকের মধ্যে ভীতি তৈরি করেছে এবং বিভিন্ন কারণে আমরা দুর্বল পরীক্ষার্থীদের বাদ দিতে পারিনি। আমাদের প্রত্যাশা ছিল শতভাগ সফলতা অর্জন করবো। তবে তিনি এই সফলতা অর্জনে সন্তোষ প্রকাশ করে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষকমন্ডলীর অবদানের জন্য অভিনন্দন জানান। জামেয়ার এই সাফল্যের এই ধারা আগামীতে আরো এগিয়ে নিতে সহযোগিতা কামনা করেন। জামেয়ার গভর্ণিং বডির সদস্যদের প্রতি কৃতজ্ঞতা এবং সার্বিক ফলাফলের জন্য মহান আল্লাহর নিকট শুকরিয়া প্রকাশ করেন। জামেয়া থেকে এ প্লাস প্রাপ্ত মো. মোজাম্মেল হক উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে জানায়, ভালো ফলাফল অর্জন করতে পারায় খুব ভালো লাগছে। সে ভবিষ্যতে আইন পেশায় বিশেষ দক্ষতা অর্জন করে একজন বিজ্ঞ আইনজীবী হতে চায়। দেশ ও মানুষকে আইনী সেবা দিয়ে মানবসেবায় অংশ নেয়া তার ইচ্ছা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ