ঢাকা, রোববার 07 May 2017, ২৪ বৈশাখ ১৪২৩, ১০ শাবান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মণিরামপুরে যুবক খুন

মণিরামপুর (যশোর) সংবাদদাতা: মণিরাপুরের আলোচিত নির্মান শ্রমিক মানোয়ার হত্যা মামলার অন্যতম আসামী আতাউর রহমান (২৮) খুন হয়েছে। সোমবার রাতে দুর্বৃত্তরা মনিরামপুর-কুলটিয়া সড়কের পাড়িয়ালি হিমাংসুর দোকানের সামনে রাস্তায় তাকে গুলি করে হত্যা করে। নিহত আতাউর উপজেলার বাঙ্গডাঙ্গা গ্রামের আবুল কাশেম মোড়লের ছেলে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে রাতেই লাশটি উদ্ধার করে। পুলিশ ও এলাকাবাসি জানায়, সোমবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে শহিদুল ইসলাম নামের এক যুবকের মোটর সাইকেলে ছিলো আতাউর। মণিরামপুর-কুলটিয়া সড়কের পাড়িয়ালি গ্রামের হিমংসুর দোকানের সামনে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা তকে গুলি করে হত্যা করে। পুলিশ জানায়, নিহত আতউর এর মাথায় ৩/৪ টি গুলির আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। কি কারনে খুন হয়েছে পুলিশ নিশ্চিত হতে পারেনি। থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোকাররম হোসেন আতাউর হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে। তবে আতাউরের বহনকারী মোটরসাইকেল চালক শহিদুল নামে এক যুবককে জিজ্ঞাসাবাদ করতে আটক রাখা হয়েছে। 
কে এই আতাউর? মনিরামপুরে বাগডাঙ্গা গ্রামের কাশেম মোড়লের ছেলে। উপজেলার মাসনা কওমি মাদ্রাসার ছাত্র ছিলো সে। পুলিশ বলেছে, মাদ্রাসা ছাত্র থেকে প্রথমে আতাউর ফেনসিডিল ব্যবসা শুরু করে। এরপর র‌্যাবের সোর্স, কখনো চাকরিদাতা হয়ে ওঠে। ২০১৪ সালের ২৯ মার্চ তার গ্রামের নির্মাণ শ্রমিক মানোয়ার হত্যাকা-ের পর আলোচনার শীর্ষে উঠে আসে এই আতাউর। নিহত মানোয়ারের পরিবার আতাউরকে প্রধান আসামী করে মামলা করা হয়। তাকে আইন আমলে নিতে এলাকাবাসী বিভিন্ন কর্মসূচিও পালন করে। কিন্তু রহস্যজনক কারনে বারংবারই মামলার তদন্তকারীরা আতাউরকে ধরা-ছোঁয়ার বাইরে রাখে। তবে সোমবার রাতে দুর্বৃত্তদের হতে খুন হওয়ার পর এলাকার মানুষরের মাঝে আতংক বিরাজ করছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ