ঢাকা, রোববার 07 May 2017, ২৪ বৈশাখ ১৪২৩, ১০ শাবান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

সওদাগর চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নয়া সভাপতি জায়েদ খান সম্পাদক

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে (২০১৭-২০১৮) মিশা সওদাগর-জায়েদ খানের প্যানেল জয়ী হয়েছে। ২৫৯ ভোট পেয়ে সমিতির সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন মিশা সওদাগর। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ওমর সানী পেয়েছেন ১৫৩ ভোট। আর ২৭৯ ভোট পেয়ে সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন জায়েদ খান। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী অমিত হাসান পেয়েছেন ১৪৫ ভোট।
নির্বাচন কমিশনার মনতাজুর রহমান আকবর গতকাল শনিবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে বেশ উৎসবমুখর পরিবেশে বিকাল ৬টা পর্যন্ত সুশৃঙ্খলভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ২১টি পদের বিপরীতে মোট ৫৭ জন প্রার্থী লড়েন এবার। আর ৬২৪ জন ভোটারের মধ্যে ৫৫৮ জন ভোট প্রদান করেন, যারা প্রত্যেকেই চলচ্চিত্রের নিবন্ধিত শিল্পী। এর মধ্যে ৪৭ টি ভোট বাতিল হয়।
আগামী দুই বছরের জন্য বাংলাদেশ শিল্পী সমিতির নির্বাচনি লড়াইয়ে ছিলেন ওমর সানী-অমিত হাসান, মিশা সওদাগর-জায়েদ খান ও ড্যানি সিডাক-ইলিয়াস কোবরা প্যানেল। মোট ভোটার ছিলেন ৬২৪ জন আর ভোট দিয়েছেন ৫৫৮ জন। এরমধ্যে সানী-অমিতের প্যানেল থেকে ২০ জন, মিশা-জায়েদ খানের প্যানেল থেকে ২১ জন, ড্যানি- কোবরার প্যানেল থেকে ১৪ জন ও স্বতন্ত্রভাবে নির্বাচনে অংশ নেন ২ জন প্রার্থী।
অন্যদিকে সহসভাপতির দুটি পদে জিতেছেন নায়ক রিয়াজ (৩২৮) ও নাদির খান (২৬৫), সহ সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন আরমান (২৬৫), সাংগঠনিক সম্পাদক সুব্রত (৩১০), আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে ইমন (২৬২), ক্রীড়া ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক জাকির হোসেন (১৯০), কোষাধ্যক্ষ কমল (২৪২) এবং দফতর ও প্রচার সম্পাদক জ্যাকি আলমগীর (২৯৫)।
এদিকে কার্যকরী পরিষদের ১১টি পদের মধ্যে সর্বোচ্চ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন সাইমন সাদিক। তিনি পেয়েছেন ৩৬১ ভোট। আরও জয়ী হয়েছেন অঞ্জনা সুলতানা (৩২২), আলীরাজ (৩০৩), জেসমিন (৩২৬), নাসরিন (২৬৮), পপি (৩০২), ফেরদৌস (২৬১), পূর্ণিমা (২৮২), মৌসুমী (৩৪৯), রোজিনা (৩৪৪) এবং সুশান্ত (৩৪২)।
এদিকে ফল জানার পর শুক্রবার দিনগত রাতেই জয়ী তারকারা আনন্দ মিছিল বের করেন এফডিসিতে। আনন্দ মিছিলে ছিলেন শিল্পী সমিতির নব-নির্বাচিত সভাপতি মিশা সওদাগর ও সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান। এছাড়া নির্বাচিতদের মধ্যে সাইমন, ইমন, জেসমিন ছাড়াও অনেকেই উপস্থিত ছিলেন। মিছিলে যোগ দিয়েছেন জয়ী শিল্পীদের সমর্থনে থাকা অনেক নির্মাতা ও ভোটাররাও। এ সময় জয়ী প্রার্থীদের অনেকেই ফুলের তোড়া দিয়ে উষ্ণ শুভেচ্ছা জানান।
চলচ্চিত্রের দুরবস্থা শিগগিরই কেটে যাবে : জায়েদ খান : এদিকে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় এফডিসিতে এসে বলেন, চলচ্চিত্রে দুরাবস্থা শিগগিরই কেটে যাবে। এ জন্য কয়েকটি পদক্ষেপ নিতে হবে। তবে সবার আগে চলচ্চিত্রের জন্য সেন্ট্রাল সার্ভারের ব্যবস্থা করতে হবে। নির্বাচনে যেহেতু জয়লাভ করেছি অবশ্যই সবার আগে এ বিষয়ে কাজ করবো।
জায়েদ খান বলেন, একটা ছবি মুক্তির আগে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কাছে ধর্ণা দিতে হয়। জিম্মি হয়ে থাকতে হয়। এতে প্রযোজককে চরম বিপাকে পড়তে হয়। আবার দেখা যায়, সপ্তাহ না যেতেই ছবি হল থেকে নেমে যায়।
তিনি বলেন, প্রযোজক সমিতিকে ফিল্মের মাদার অর্গানাইজেশন বলা হয়। সেই প্রযোজকরাই যদি ছবি মুক্তির এসব হেনস্তার শিকার হন, তাহলে পরে আর ছবি বানাতে আগ্রহ পান না। যাবতীয় অনিয়ম বন্ধ ও চলচ্চিত্রের কাঠামো পরিবর্তন করা গেলে চলচ্চিত্র আবার চাঙ্গা হবে বলে মনে করেন জায়েদ খান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ