ঢাকা, রোববার 07 May 2017, ২৪ বৈশাখ ১৪২৩, ১০ শাবান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

অর্থ পাচারকারীরা দেশের মানুষের দুশমন -অধ্যাপক মুজিব

বাংলাদেশ থেকে প্রতি বছরই প্রচুর অর্থ বিদেশে পাচার হওয়ার খবরে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমীর ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মুজিবুর রহমান।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ থেকে প্রতি বছরই প্রচুর অর্থ বিদেশে পাচার হওয়ার খবরে দেশবাসী গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। দেশের অর্থ বিদেশে পাচারকারীরা দেশের মানুষের দুশমন। 

গতকাল শনিবার দেয়া বিবৃতিতে তিনি বলেন, গণমাধ্যমে প্রকাশিত তথ্য থেকে দেখা যাচ্ছে যে, বর্তমান সরকারের আমলে গত ২০১৩ সালে বাংলাদেশ থেকে প্রায় ৭৭ হাজার কোটি টাকা, ২০১৪ সালে প্রায় ৭৩ হাজার কোটি টাকা এবং এভাবে গত ১০ বছরে বাংলাদেশ থেকে প্রায় ৬ লাখ কোটি টাকা বিদেশে পাচার করা হয়েছে। যারা দেশের অর্থ বিদেশে পাচার করছে তারা দেশের কল্যাণকামী নয়। যারা ক্ষমতায় থেকে দুর্নীতি করে কালো টাকার পাহাড় গড়ছে তারাই নামে-বেনামে বিদেশে অর্থ পাচার করে দেশের স্বার্থ বিকিয়ে দিচ্ছে। কিন্তু উদ্বেগের বিষয় হলো দেশের জনগণের অর্থ পাচারকারীরা আজ পর্যন্ত চিহ্নিত হয়নি এবং তাদের বিচারও হয়নি। সরকার বিদেশে অর্থ পাচারকারীদের সম্পর্কে নীরব কেন? তাদের চিহ্নিত করে বিচার করছে না কেন এবং কেন পাচার করা অর্থ দেশে ফেরত আনার কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করছে না, তা দেশবাসী জানতে চায়। 

তিনি বলেন, বাংলাদেশে দুর্নীতি দমন কমিশন নামক একটি সংস্থা রয়েছে। তাদের কাজ হলো দুর্নীতি দমন করা এবং দুর্নীতিবাজদের চিহ্নিত করে বিচারের ব্যবস্থা করা। যারা বিদেশে অর্থ পাচার করে দেশকে তলাবিহীন ঝুড়িতে পরিণত করছে, তাদের চিহ্নিত করে বিচারের মাধ্যমে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের ব্যবস্থা করা সরকারের দুর্নীতি দমন কমিশনের প্রধানতম দায়িত্ব। 

জাতীয় স্বার্থে অবিলম্বে বিদেশে অর্থ পাচারকারী ব্যক্তিদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানসহ পাচারকৃত অর্থ দেশে ফেরত আনার লক্ষ্যে যথোপযুক্ত পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ