ঢাকা, রোববার 07 May 2017, ২৪ বৈশাখ ১৪২৩, ১০ শাবান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

ইনানীর বালুকাবেলায় হাঁটলেন প্রধানমন্ত্রী

কমরুদ্দিন মুকুল, উখিয়া (কক্সবাজার) : সমুদ্রতীরে যাবেন আর বালুকাবেলায় হাঁটবেন না, তাতো হয় না। গতকাল শনিবার কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলায় ইনানী বিচে সমুদ্রপানিতে হাঁটলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। খালি পায়ে হেঁটে বেড়ালেন বালুকাবেলায়। ইনানীর বে ওয়াচ রিসোর্টের সামনে সৈকতের বেলাভূমিতে তৈরি করা মঞ্চে হয় এই অনুষ্ঠানটি। গতকাল শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় অনুষ্ঠান শেষ হলে শেখ হাসিনা সোজা সৈকতে নেমে যান। সেখানে কিছুক্ষণ খালি পায়ে হাঁটেন তিনি, নামেন পানিতেও। বে ওয়াচ রিসোর্টেই মধ্যাহ্ন ভোজ সারেন তিনি। এই অনুষ্ঠানের বক্তব্যে শেখ হাসিনার বাবা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সঙ্গে প্রথম সমুদ্র দেখার অভিজ্ঞতার কথা জানান।

ইনানীর সঙ্গে জড়িয়ে আছেন বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিও। ১৯৫৮ সালে সামরিক শাসনামলে অরণ্যঘেরা ইনানীর চেংছড়ি গ্রামে বেশ কিছু দিন ছিলেন বাংলাদেশের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বিশ্বের দীর্ঘতম পর্যটন শহর কক্সবাজারকে আরও আকর্ষণীয়ভাবে গড়ে তোলার কথাও বলেন শেখ হাসিনা। সকালে বিমানের বোয়িং উড়োজাহাজ মেঘদূত-এ কক্সবাজার নামার পর সরাসরি ইনানী সৈকতে যান প্রধানমন্ত্রী। এর মধ্য দিয়ে কক্সবাজার বিমান বন্দরে সুপরিসর বিমান চলাচল শুরু হল। 

এদিকে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কসহ ১৬টি প্রকল্প উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল শনিবার বেলা ১১টা ২৫ মিনিটে কক্সবাজর মেরিন একাডেমিতে এ প্রকল্পের উদ্বোধন করা হয়। এ সময় দেশ ও জাতির কল্যানে মোনাজাতে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী। নির্মিত ৮০ কিলোমিটার এ সড়কের একপাশে রয়েছে সমুদ্র সৈকত, অন্যপাশে পাহাড়। তিন ধাপে এই নির্মাণ কাজ শেষ করা হয়েছে। এ সড়কে ১৭টি ব্রিজ, ১০৮টি কালর্ভাট রয়েছে। সড়ক বিভাগের তত্ত্বাবধানে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী এই নির্মাণ কাজ পরিচালনা করে। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এবং সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক ছিলেন। 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেলা আড়াইটায় উদ্বোধন করেন, কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজের একাডেমিক ভবন, কক্সবাজার সরকারি কলেজের ১০০ শয্যার ছাত্রী হোস্টেল, একাডেমিক ভবন কাম পরীক্ষার হল, কক্সবাজার সরকারি মহিলা কলেজের ১০০ শয্যার ছাত্রী হোস্টেল, উখিয়া বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মহিলা কলেজের দ্বিতল একাডেমিক ভবন, মহেশখালী-আনোয়ারা গ্যাস সঞ্চালন পাইপ লাইন।

ভিত্তিপ্রস্তর উন্মোচন করা হয় কক্সবাজার আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর প্রকল্পের বাঁকখালী খালে ৫৯৫ মিটার খুরুশকুল ব্রিজ, কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, কক্সবাজার আইটি পার্ক, এলএনজি টার্মিনাল, ইনস্টেলেশন অব সিংগেল পয়েন্ট মুরিং, নাফ ট্যুরিজম পার্ক, কুতুবদিয়া কলেজের একাডেমিক ভবন ও কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (কউক) অফিস ভবন। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ