ঢাকা, সোমবার 08 May 2017, ২৫ বৈশাখ ১৪২৩, ১১ শাবান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

ওয়ালটন ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক ঘুরে দেখলেন বুয়েটের শিক্ষার্থীরা

গাজীপুরের চন্দ্রায় স্থাপিত দেশের ইলেকট্রনিক্স জায়ান্ট ওয়ালটন ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক পরিদর্শন করেছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যাল (বুয়েট)  অধ্যয়নরত একদল শিক্ষার্থী। শিক্ষা কার্যক্রমের অংশ হিসেবে গত বৃহস্পতিবার ওয়ালটনের কারখানা পরিদর্শন করলেন বুয়েটের ৫৩ জন শিক্ষার্থী।  

বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্জিত প্রাতিষ্ঠানিক জ্ঞানের প্রয়োগিক ব্যবহারের অভিজ্ঞতা লাভে শিক্ষার্থীদের জন্য এই সফরটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে মনে করছেন ওয়ালটন কারখানা পরিদর্শনে আসা বুয়েটের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। 

বুয়েটের ম্যাটেরিয়ালস অ্যান্ড মেটালার্জিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং (এমএমই) বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. কাজী মো. সোহরাওয়ার্দী, প্রভাষক শিকদার আশিকুজ্জামান অয়ন এবং সুস্মিতা মজুমদারের নেতৃত্বে ওয়ালটন কারখানা পরিদর্শন করেছেন শিক্ষার্থীরা।

পরিদর্শনে আসা বুয়েটের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের স্বাগত জানান ওয়ালটন গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এস এম মাহবুবুল আলম। তিনি শিক্ষার্থীদের বিশ্বের লেটেস্ট প্রযুক্তিতে তৈরি ওয়ালটন কম্প্রেসার ইউনিটে চলমান উৎপাদন প্রক্রিয়াসহ বিভিন্ন ইক্যুইপমেন্ট এবং মেশিন অপারেটিং সিস্টেম সম্পর্কে খুঁটিনাটি বিষয়ে ধারণা দেন। 

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে এস এম মাহবুবুল আলম বলেন, ‘দেশে-বিদেশে যেখানেই কাজ করুন না কেন, দেশকে নিজের মধ্যে ধারণ করবেন। যদি বিদেশে উচ্চশিক্ষা ও কর্মের জন্য যান, তবে সুযোগ পেলেই দেশে ফিরে আসবেন এবং দেশকে এগিয়ে নিবেন।’

তিনি জানান, ওয়ালটনের পুরো কারখানা দেশীয় প্রকৌশলী ও বিশেষজ্ঞ দ্বারা চালিত হচ্ছে।

ওয়ালটনের মেটালার্জি বিভাগের প্রধান প্রকৌশলী মো. আব্দুল হালিম শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘ওয়ালটনের প্রতিটি পণ্যের আনুষঙ্গিক উপাদানের গুণগত মান আধুনিক ল্যাব টেস্টের মাধ্যমে নিশ্চিত করা হয়। আমরা চ্যালেঞ্জ নিয়ে কাজ করি। বিভিন্ন পণ্যের কাঁচামাল ও মেটালিক পার্ট প্রকৌশলী ও বিশেষজ্ঞদের দ্বারা নির্বাচন করা হয় বলে উৎপাদিত পণ্যের গুণগত মান বজায় থাকে।’

বুয়েটের ম্যাটেরিয়ালস অ্যান্ড মেটালার্জিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং (এমএমই) বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. কাজী মো. সোহরাওয়ার্দী তাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদেরকে কারখানা পরিদর্শনের সুযোগ করে দেয়ার জন্য ওয়ালটনের পরিচালককে ধন্যবাদ জানান।

ওয়ালটনের কারখানা পরিদর্শন সম্পর্কে মূল্যায়ন এবং শিক্ষা সফরের গুরুত্ব সম্পর্কে জানতে চাইলে ড. কাজী মো. সোহরাওয়ার্দী বলেন, ‘এই পরিদর্শন ছাত্রছাত্রীদের তাত্ত্বিক জ্ঞানকে বাস্তব প্রক্রিয়ার সঙ্গে সমন্বয় করতে সহায়তা করবে।’ তিনি কারখানায় বিভিন্ন পণ্যের উৎপাদন প্রক্রিয়া দেখে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, ‘ওয়ালটন তাদের বিভিন্ন পণ্যের কাঁচামাল নিজেরাই তৈরি করছে। এতে করে উৎপাদিত পণ্যের গুণগত মান নিশ্চিত করতে সক্ষম হচ্ছে তারা।’ প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ