ঢাকা, শুক্রবার 21 September 2018, ৬ আশ্বিন ১৪২৫, ১০ মহররম ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

বিয়ের আগে প্রয়োজন গুরুত্বপূর্ণ কিছু ডাক্তারি পরীক্ষা

অনলাইন ডেস্ক: বিয়ে আসন্ন! তাই বিয়েতে নিজেদের রাঙ্গিয়ে তুলতে এবং আনন্দময় করতে যেন প্রস্তুতির শেষ নেই। কিন্তু কখনো কি ভেবেছেন, বিয়ে করতে শুধু আড়ম্বরতা নয়, পাশাপাশি সচেতনতাও থাকতে হয়। আর সেই সচেতনতা সুস্থতার সাথে জড়িত। শুধু তাই নয়, এই সচেতনতা আপনাকে দাম্পত্য জীবনের এবং পরবর্তী প্রজন্মের নিরাপত্তাকেও অনেকখানি নিশ্চিত করবে। তাই বিয়ের আগে সচেতনভাবে সেরে নিন কিছু ডাক্তারি পরীক্ষা।

এইচআইভি এবং অন্যান্য যৌনরোগ

আধুনিক যুগে প্রত্যেকের উচিত বিয়ের আগে গুরুত্বপূর্ণ এই পরীক্ষাটি সেরে নেয়া। কারণ, এই রোগগুলোতে আক্রান্ত কাউকে সারা জীবন বয়ে বেড়ানো সঙ্গীর জন্য ভীষণ কষ্টের। হয়তো এর পাশাপাশি তখন আপনি সমাজ সংসারের চাপে,  চাইলেও সহজেই কোন সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন না। কি দরকার এত চাপ সইবার! তার চেয়ে আগেই সচেতন হয়ে যান।

রক্তের গ্রুপ পরীক্ষা করে নিন

স্বামী-স্ত্রীতে রক্তের গ্রুপের মধ্যে সামঞ্জস্যতা না থাকলে পরবর্তী সময়ে নানা ভোগান্তি পোহাতে হয়। এর ফলে অকালে গর্ভপাত, প্রতিবন্ধী সন্তানের জন্ম দেওয়া সহ নানা শারীরিক জটিলতা দেখা দেয়। তাই ব্লাড গ্রুপের জটিলতা এড়াতে বিয়ের আগে সেরে নিন পরীক্ষাগুলো।

উর্বরতা পরীক্ষা

বিয়ের আগে দুজনেই উর্বরতা পরীক্ষাটি সেরে নিন। কারণ, শারীরিক জটিলতা, মানসিক জটিলতা, বংশগত সমস্যা ইত্যাদি নানা বিষয় থেকে সন্তান জন্মদানে সমস্যা হয়। কিন্তু বিয়ে পরবর্তী সময়ে এগুলো নিজেদের জন্য যেমন চাপ হয়, তেমনি পরিবারের সবাইকেও চাপ ‍দেয়। আর বাড়তি হিসেবে তো সামাজিক চাপ আছেই।

বংশগত বা অন্যকোন রোগ

বংশগত কোনো বড় ধরণের রোগ আছে কিনা তা জেনে নিতে চেষ্টা করুন। এছাড়া কিডনির সমস্যা, হার্টের রোগ, থ্যালাসেমিয়া, ডায়াবেটিসসহ অন্যান্য কী রোগ থাকতে পারে তা আগেই পরীক্ষার মাধ্যমে জেনে নিতে চেষ্টা করুন।

সর্বোপরি এসব জানতে চাওয়া বা জেনে নেওয়াকে উভয়পক্ষেরই আন্তরিকতার সাথে গ্রহণ করা উচিত। কারণ, এসব সচেতনতার এবং পরবর্তী জীবনকে সুন্দর করার একটি অংশ।

-চ্যানেল আই

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ