ঢাকা, বুধবার 17 May 2017, ০৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪, ২০ শাবান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

সরকারকে অন্যায়-অবিচারের জন্য জনগণের কাছে জবাবদিহি করতে হবে

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমীর মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর মুক্তির দাবিতে গতকাল মঙ্গলবার জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী উত্তর বিক্ষোভ মিছিল করে -সংগ্রাম

স্টাফ রিপোর্টার : বিশ্বনন্দিত মুফাসসিরে কুরআন আল্লামা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর মুক্তির দাবিতে রাজধানীসহ দেশব্যাপী বিক্ষোভ করেছে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী। বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি মঞ্জুরুল ইসলাম ভূঁইয়া বলেন, সরকার প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতেই আল্লামা সাঈদী’কে কারাগারে বন্দী করে রেখেছে। আওয়ামী সরকারকে প্রতিহিংসা ও ষড়যন্ত্রের রাজনীতি পরিহার করে আল্লামা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীসহ আটক সকল নেতৃবৃন্দকে অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে। অন্যথায় দুর্বার গণআন্দোলনের মাধ্যমে জনগণই জাতীয় নেতৃবৃন্দকে মুক্ত করবে বলে তিনি হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

গতকাল মঙ্গলবার বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর অন্যতম শীর্ষ নেতা আল্লামা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী’র রিভিউ আবেদন খারিজের পর তার মুক্তির দাবিতে কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ আয়োজিত রাজধানীর খিলগাঁও চৌরাস্তায় বিক্ষোভ মিছিল পরবর্তী সমাবেশ তিনি একথা বলেন। বিক্ষোভ মিছিলটি খিলগাঁও রেলগেট থেকে শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে খিলগাঁও চৌরাস্তায় গিয়ে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়।

মঞ্জুরুল ইসলাম ভূঁইয়া আরো বলেন, বাংলাদেশের মানুষ ইসলাম প্রিয়। মাওলানা সাঈদীকে গণমানুষ ইসলাম প্রচারক হিসাবে ভালবাসেন। তিনি দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব টিকিয়ে রাখতে ও জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করতে আজীবন কাজ করেছেন। যার কারণে আওয়ামী লীগ তার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে তাকে ষড়যন্ত্র করে সাজানো মিথ্যা মামলায় জনগণ থেকে দূরে রাখতেই কারাগারে বন্দী করে রেখেছে। জনগণ সরকারের এই ষড়যন্ত্র কখনোই সফল হতে দেবে না। সরকার ফরমায়েশী বাদী, পাতানো স্বাক্ষী দিয়ে আল্লামা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী’কে হত্যা করতে চায়। কিন্তু বীর জনতা তাদের তাদের সে ষড়যন্ত্র মেনে নেবে না বরং যে কোন মূল্যে রুখে দেবে।

বিক্ষোভ মিছিলে আরো উপস্থিত ছিলেন- ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের কর্মপরিষদ সদস্য শামসুর রহমান, কামাল হোসাইন, ইসলামী ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগরী পূর্ব সভাপিত সোহেল রানা মিঠু, মহানগরী দক্ষিণ শূরা সদস্য ছগির বিন সাঈদ, মুহিবুল হক ফরিদ, জামায়াত নেতা নূর মোহাম্মদ মন্ডল, ছাত্রনেতা হাফিজুর রহমান, সাঈদ মোহাম্মদ যোবাইর, রিদওয়ান উল্লাহ সহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ। 

এ দিকে ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের উদ্যোগে রাজধানীর দয়াগঞ্জ চৌরাস্তা মোড়ে আরেকটি বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। দয়াগঞ্জ চৌরাস্তা থেকে শুরু হয়ে রাজধানী সুপার মার্কেটের সামনে গিয়ে মিছিলটি শেষ হয়। মিছিল পরবর্তী সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের কর্মপরিষদ সদস্য মোর্কারম হোসাইন। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার নিজেদের সীমাহীন দুর্নীতি ও অপকর্ম ঢাকতেই একের পর এক জাতীয় নেতৃবৃন্দকে সাজানো মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হত্যার ষড়যন্ত্র করছে। কিন্তু জনগণ তাদের এই হীন উদ্দেশ্য সম্পর্কে সজাগ ও সতর্ক রয়েছে। জনগণ সময়ের ব্যবধানে তাদের এই অপকর্মের সমোচিত দাঁতভাঙ্গা জবাব দিবে। 

বিক্ষোভ মিছিলে আরো উপস্থিত ছিলেন- মহানগরী শূরা সদস্য এম এ রহিম, খোন্দকার আবু ফতেহ, আহসানুল্লাহ, নিজামুল হক নাঈম, আজমল হোসাইন, ইসলামী ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ সভাপতি ছাত্রনেতা শাফিউল আলম, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রশিবির সভাপতি শাহীন প্রধান, মহানগরী জামায়াত নেতা মহিউদ্দিন, মুনির হোসাইন, মোহাম্মদ আলী, ইঞ্জিনিয়ার জসিম উদ্দিন, গিয়াস উদ্দিন, ছাত্রনেতা তোফাজ্জল হোসাইন, কাজী মাসুম সরকার, মজিবুর রহমান মঞ্জু, আব্দুল মাবুদ সিকদার, তারেক নাসরুল্লাহ, ইমাম হোসাইন, শেখ ফরিদ রাহাত সহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

ঢাকা মহানগরী উত্তর: বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের সেক্রেটারি ড. মুহা. রেজাউল করিম বলেছেন, সরকার সাজানো মামলা, ফরমায়েসী সাক্ষী ও দলীয় প্রসিকিউশনের মাধ্যমে বিশ্ববরেণ্য মুফাসফিরে কুরআন আল্লামা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীকে দন্ডিত করেছে। ফলে আল্লামা সাঈদী ন্যায়বিচার থেকে পুরোপুরি বঞ্চিত হয়েছেন। কিন্তু দেশপ্রেমী ও ইসলামপ্রিয় জনতা সরকারের সে ষড়যন্ত্র কখনোই মেনে নেবে না। তিনি আল্লামা সাঈদীর দন্ডাদেশ বাতিল করে অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তি দিতে সরকারের প্রতি জোর দাবি জানান। সরকারকে একদিন এই অন্যায়-অবিচারের জন্য জনগণের কাছে জবাবদিহি করতে হবে।

গতকাল ঢাকা মহানগরী উত্তর আয়োজিত বিক্ষোভ পরবর্তী সমাবেশে ফশফন একথা বলেন। বিক্ষোভ মিছিলটি যমুনা ফিউচার পার্কের সামনে থেকে শুরু হয়ে কুড়িল বিশ্বরোডে গিয়ে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরা সদস্য ও মহানগরী সহকারী সেক্রেটারি লস্কর মোঃ তাসলিম ও মাহফুজুর রহমান, মহানগরী কর্মপরিষদ সদস্য নাজিম উদ্দিন মোল্লা, দেলোয়ার হোসেন, মহানগরী শূরা সদস্য এডভোকেট সুজা উদ্দিন, ডাঃ ফখরুদ্দীন মানিক, মোস্তাফিজুর রহমান, হোসাইন আহমদ, সাইফুল ইসলাম, এডভোকেট ইব্রাহীম খলিল, শাফিউর রহমান, ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগরী উত্তর ও পশ্চিমের সভাপতি যথাক্রমে জামিল মাহমুদ ও ডাঃ মুজাহিদুল ইসলাম এবং প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের সভাপতি মেহেদী হাসান প্রমুখ। 

ড. করিম বলেন, স্থানীয় জনৈক বিশাবালীকে হত্যার কথিত অভিযোগে আল্লামা সাঈদীকে আমৃত্যু কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। কথিত ঐ হত্যাকাণ্ডের সাথে তার দূরতম সম্পর্ক ছিল না। ট্রাইব্যুনাল থেকে বিশাবালীর ভাই সুখরঞ্জনবালী সরকার কর্তৃক অপহৃত হওয়ায় প্রমাণ হয় যে, নালিশি হত্যাকান্ডের সাথে এই বিশ্ববরেণ্য আলেমের কোন সম্পৃক্ততা ছিল না। অপহৃত সুখরঞ্জন বালী ট্রাইব্যুনালে সাক্ষী দিতে পারলে আল্লামা সাঈদী বেকসুর খালাস পেতেন। তাই সরকার ও প্রসিকিউশন যোগসাজস করেই সুখরঞ্জন বালীকে পরিতল্পিতভাবে অপহরণ ও গুম করেছে। ঘটনার ধারাবাহিকতায় সুস্পষ্টভাবে প্রমাণ হয় যে, সরকার রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতেই ষড়যন্ত্রমূলকভাবে আল্লামা সাঈদীকে ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত করেছে। 

তিনি বলেন, সরকার দেশ থেকে ইসলাম ও ইসলামী মূল্যবোধ ধ্বংস করতেই বরেণ্য আলেমে দ্বীন এবং জনপ্রিয় জাতীয় নেতৃবৃন্দকে বিশেষভাবে টার্গেট করেছে। সরকারের সেই ঘৃণ্য ষড়যন্ত্রের অংশ হিসাবেই সাবেক আমীরে জামায়াত মাওলানা মতিউর রহমান নিজামী, আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ, মুহাম্মদ কামারুজ্জামান ও আব্দুল কাদের মোল্লা এবং মীর কাসেম আলীকে নির্মম ও নিষ্ঠুরভাবে হত্যা করা হয়েছে। কিন্তু শহীদানের রক্ত কখনোই বৃথা যাবে না বরং শহীদের রক্তের পথ ধরেই ইসলামী আদর্শ বিজয়ী হবে। তিনি দেশে ন্যায়-ইনসাফের সমাজ প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে শহীদদের স্বপ্ন বাস্তবায়নের আহ্বান জানান।

জামায়াতে ইসলামী চট্টগ্রাম মহানগরীর কর্মপরিষদ সদস্য ফয়সাল মুহাম্মদ ইউনুছ বলেছেন, বিশ্ববরেণ্য আলেমেদ্বীন, মুফাসসিরে কুরআন, জামায়াতের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর ও জাতীয় সংসদের সাবেক সদস্য আল্লামা দেলাওয়া হোসাইন সাঈদীকে সরকার প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার হীন উদ্দেশ্যেই ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত করেছে। দেশের মানুষ আশা করেছিল তিনি রিভিউ আবেদনে মুক্তি পাবেন কিন্তু রিভিউ আবেদন খারিজ হওয়ায় তিনি ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত হয়েছেন। যে মিথ্যা অভিযোগে শাস্তি দেয়া হয়েছে তার সাথে আল্লামা সাঈদী জড়িত থাকার প্রশ্নই উঠে না। সাক্ষী সুখরঞ্জণ বালিকে অপহরণ না করে সাক্ষ্য দিতে দেয়া হলে প্রকৃত ঘটনা উদঘাটিত হতো এবং আল্লামা সাঈদী বেখসুর খালাস পেতেন। সরকারের সাজানো সাক্ষ্যগ্রহণ করে প্রকৃত সত্যকে ধামা-চাপা দেয়া হয়েছে। এতে প্রমাণিত হয় আল্লামা সাঈদী রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের প্রতিহিংসার শিকার। তিনি অবিলম্বে আল্লামা সাঈদীর নি:শর্ত মুক্তি দাবি জানান।

জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমীর, জাতীয় সংসদের সাবেক সদস্য ও বিশ্ব ইসলামী আন্দোলনের নেতা মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীকে ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত করার প্রতিবাদে ও নি:শর্ত মুক্তির দাবিতে জামায়াতে ইসলামী কেন্দ্র ঘোষিত বিক্ষোভ কর্মসূচির অংশ হিসাবে জামায়াতে ইসলামী চট্টগ্রাম মহানগরীর থানা ভিত্তিক অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি সভাপতির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন।

জামায়াতে ইসলামী কোতোয়ালী দক্ষিণ সাংগঠনিক থানার উদ্যোগে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশ থানা আমীর ফয়সাল মুহাম্মদ ইউনুছের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জামায়াত নেতা মুহাম্মদ নুরুল কবির, ছাত্রশিবির নেতা ফয়েজ আহমদ প্রমুখ। সমাবেশ শেষে এক বিক্ষোভ মিছিল বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

বাকলিয়া থানা জামায়াতের উদ্যোগে আল্লামা দেলওয়ার হোসাইন সাঈদীকে ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত করার প্রতিবাদে এক বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল থানা জামায়াত নেতা বদরুল আমিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জামায়াত নেতা নুর আহমদ, মুজিবুর রহমান, ওমর ফারুক ও ছাত্রশিবির নেতা হয়াছিন আরাফাত প্রমুখ। সমাবেশ শেষে এক বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয় মিছিলটি এলাকার বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

আল্লামা দেলওয়ার হোসাইন সাঈদীকে সরকার মিথ্যা মামলায় আমৃত্যু কারাবরণের রায় বহাল রেখে ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত করারর প্রতিক্রিয়ায় জামায়াতে ইসলামী চকবাজার থানা শাখার উদ্যোগে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল থানা জামায়াত নেতা মুহাম্মদ জসিম উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জামায়াত নেতা মুহাম্মদ জাহাঙ্গির আলম ও মুহাম্মদ জহিরুল ইসলাম প্রমুখ। সমাবেশে শেষে এক বিক্ষোভ মিছিল বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। সমাবেশে জামায়াত নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে আল্লামা দেলওয়ার হোসাইন সাঈদীর নি:শর্ত মুক্তির দাবি জানান।

খুলনা অফিস : বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমীর আল্লামা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর বিরুদ্ধে সরকারের সাজানো মামলায় দণ্ডিত করার প্রতিবাদে গতকাল মঙ্গলবার বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে খুলনা মহানগরীতে।

শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ কর্মসূচির নেতৃত্ব দেন মহানগরী জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি অধ্যাপক মাহফুজুর রহমান। এ সময় বক্তব্য রাখেন, জামায়াত নেতা আল আমিন, মুজাহিদুল ইসলাম, আমিরুল জব্বার, আহমেদুল কবির, মোস্তাফিজুর রহমান, মোস্তফা যোবায়ের প্রমুখ। 

নেতৃবৃন্দ বলেন, সরকার রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতেই ষড়যন্ত্রমূলকভাবে আল্ল¬ামা সাঈদীকে ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত করেছে। 

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, সরকার দেশ থেকে ইসলাম ও ইসলামী মূল্যবোধ ধ্বংস করতেই বরেণ্য আলেমে দ্বীন এবং জনপ্রিয় জাতীয় নেতৃবৃন্দকে বিশেষভাবে টার্গেট করেছে। সরকারের সেই ঘৃণ্য ষড়যন্ত্রের অংশ হিসাবেই সাবেক আমীরে জামায়াত মাওলানা মতিউর রহমান নিজামী, আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ, মুহাম্মদ কামারুজ্জামান ও আব্দুল কাদের মোল্ল¬া এবং মীর কাসেম আলীকে নির্মম ও নিষ্ঠুরভাবে হত্যা করা হয়েছে। কিন্তু শহীদানের রক্ত কখনোই বৃথা যাবে না বরং শহীদের রক্তের পথ ধরেই ইসলামী আদর্শ বিজয়ী হবে। নেতৃবৃন্দ দেশে ন্যায়-ইনসাফের সমাজ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে শহীদদের স্বপ্ন বাস্তবায়নের আহবান জানান।

কক্সবাজার সংবাদদাতা : বিশ্ব নন্দিত মুফাসসিরে কুরআন আল্লামা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর নি:শর্ত মুক্তির দাবিতে গতকাল মঙ্গলবার কক্সবাজারে বিক্ষোভ মিছিল বের করেছে জামায়াতে ইসলামী ও ইসলামী ছাত্রশিবির। জেলা জামায়াতে ইসলামীর আমীর মাওলানা মুহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমানের নেতৃত্বে মিছিলটি শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। এ সময় জামায়াত-শিবিরের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বগুড়া অফিস : জামায়াতের কারারুদ্ধ নায়েবে আমির ও বিশ্ব বরেণ্য মুফাস্সির আল্লামা দেলাওয়ার হুসাইন সাঈদীর বিরুদ্ধে দেয়া রায় বাতিল এবং তার মুক্তির দাবিতে বগুড়ায় বিক্ষোভ মিছিল করেছে জামায়াত। কেন্দ্রিয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে গতকাল মঙ্গলবার সকালে জামায়াতে ইসলামী বগুড়া শহর শাখার উদ্যোগে শহরের মাটিডালি এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে মাওলানা সাঈদীর নি:শর্ত মুক্তির দাবি জানানো হয়।

ফরিদপুর জেলা : বাংলাদেশে জামায়াতে ইসলামী ফরিদপুর জেলা শাখার উদ্যোগে জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমীর আল্লামা দেলোয়ার হোসেন সাঈদীর মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে মাওলানা সাঈদীর নি:শর্ত মুক্তি দাবি করেন।

নারায়ণগঞ্জ : বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর অন্যতম শীর্ষ নেতা প্রখ্যাত মুফাস্সিরে কুরআন ও সাবেক জাতীয় সংসদ সদস্য আল্লামা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর মুক্তির দাবিতে টানা চতুর্থ দিনে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিল করেছে নারায়ণগঞ্জ জামায়াতে ইসলামী।

গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে শহরের ডিআইটি থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে দলটি। কয়েকটি সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে মন্ডলপাড়ায় পথ সভা করে নেতাকর্মীরা।

সভার শুরুতে মহান প্রভু আল্লাহর কাছে দু’হাত তুলে দোয়া করেন, আল্লামা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী যাতে মুক্তি পেয়ে আবার দেশের জনগণের মধ্যে ফিরে এসে যাবতীয় অন্যায়, অবিচার, নৈতিক অবক্ষয় ও পাপ-পঙ্কিলতার অন্ধকার থেকে দেশের জনগণকে ফিরিয়ে আনার জন্য যাতে পবিত্র কুরআনের দাওয়াত দিয়ে ঈমানদার সৎ মানুষ গড়ার কাজে আত্মনিয়োগ করতে পারেন সে জন্যে।

আল্লামা সাঈদী যতক্ষণ পর্যন্ত মুক্তি না পাবেন ততক্ষণ পর্যন্ত তার মুক্তির আন্দোলন অব্যাহত রাখার আহ্বান জানান জামায়াত নেতারা।

গাজীপুর সংবাদদাতা : আল্লামা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর আজীবন কারাদণ্ডের প্রতিবাদে ও তাঁর নি:শর্ত মুক্তির দাবিতে মঙ্গলবার বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে গাজীপুর মহানগর জামায়াত।

গাজীপুর জামায়াতের মহানগর সূত্র জানায়, গতকাল মঙ্গলবার সকালে নগর জামায়াতের কর্মপরিষদ সদস্য ও শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের নগর সভাপতি আজহারুল ইসলাম মোল্লার নেতৃত্বে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। বিক্ষোভ মিছিলটি ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের সাইনবোর্ড বাজার ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা প্রদক্ষিণ শেষে পথসভার মাধ্যমে শেষ হয়। পথসভায় নেতৃবৃন্দ বলেন, ভোটারবিহীন জালিম সরকার অন্যায়ভাবে আল্লামা সাঈদীকে কারাগারে বন্দী করে রাখতে চায়। বাংলাদেশের তৌহিদী জনতা তা হতে দেবে না। তারা বলেন, আল্লামা সাঈদী শুধু বাংলাদেশের সম্পদ নয়, সমগ্র বিশ্বের সম্পদ। জনগণের দাবির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে অবিলম্বে সাঈদীকে মুক্তি দেয়ার জন্য নেতৃবৃন্দ সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। 

মিছিলে অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, মহানগর জামায়াতের বাইতুলমাল সেক্রেটারি হাফেজ ইবরাহীম, প্রচার সেক্রেটারি ইরফানুল হক, টঙ্গী পশ্চিম থানা আমীর মোশারফ হোসেন, পুবাইল থানা আমীর আশরাফ আলী, জয়দেবপুর দক্ষিণ থানা আমীর মনির হোসেন, ছাত্রশিবিরের নগর সেক্রেটারি মিজানুর রহমান, শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের মহানগর সহ-সেক্রেটারি নূরে আলম ভুঁইয়া প্রমুখ।

টাঙ্গাইল সংবাদদাতা : গভীর ষড়যন্ত্রের শিকার আন্তর্জাতিক মুফাচ্ছের এ কুরআন আল্লামা দেলওয়ার হোসেন সাঈদীর মুক্তির দাবিতে টাঙ্গাইল শহরে বিক্ষোভ মিছিল করেছে জামায়াতে ইসলামী টাঙ্গাইল শহর ও সদর উপজেলা। গতকাল মঙ্গলবার এ বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। শহরের মোমেনশাহী রোডের হবিবর রহমান প্লাজায় দক্ষিণ প্রান্ত থেকে শুরু হয়ে ভিক্টোরিয়া রোডের বাকা মিয়ার ব্রিজে এসে শেষ হয়। মিছিলে নেতৃত্ব দেন জেলা আমীর আহছান হাবিব মাসুদ, টাঙ্গাইল শহর শাখার আমীর অধ্যাপক মিজানুর রহমান চৌধুরী, টাঙ্গাইল শহর ছাত্র শিবিরের সেক্রেটারী সরোয়ার হোসেন প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ