ঢাকা, বৃহস্পতিবার 18 May 2017, ০৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪, ২১ শাবান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

চলবে স্ট্যাবিলাইজার ছাড়াই ওয়ালটনের অত্যাধুনিক ডিজিটাল ডিসপ্লে ফ্রিজ এখন বাজারে

সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে গ্রাহকদের হাতে নিত্য নতুন প্রযুক্তি পণ্য তুলে দিতে ওয়ালটন প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। সেই লক্ষ্যে ওয়ালটনের শক্তিশালী আরএন্ডডি টিমের প্রকৌশলীরা নিরলস পরিশ্রম ও ব্যাপক গবেষণার মাধ্যমে প্রতিনিয়ত উদ্ভাবন করছে নতুন নতুন মডেলের পণ্য। এরই ধারাবাহিকতায় ওয়ালটন এবার বাজারে নিয়ে এসেছে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ও আকর্ষণীয় মডেলের ব্যাপক বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী ডিজিটাল ডিসপ্লে সম্বলিত ফ্রিজ। জানা গেছে, সম্প্রতি ওয়ালটন ফ্রিজের প্রোডাক্ট লাইনে যুক্ত হয়েছে ৩২৩ লিটার বা ১৭ সিএফটি’র নন-ফ্রস্ট রেফ্রিজারেটর। যেটির কম্প্রেসারে ব্যবহার করা হয়েছে বিশ্ব স্বীকৃত সম্পূর্ণ পরিবেশবান্ধব আর৬০০এ গ্যাস। স্ট্যাবিলাইজার ছাড়াই গ্রাহকরা নির্বিঘেœ ব্যবহার করতে পারবে ওয়ালটনের নতুন মডেলের এই ফ্রিজটি। এর আরেকটি স্বতন্ত্র্য বৈশিষ্ট্য হলো- ফ্রিজের দরজাতে ডিজিটাল ডিসপ্লে’র সংযুক্তি। যেখানে রয়েছে ফ্রিজার, রেফ্রিজারেটর, ইনক্রিমেন্ট ও ডিক্রিমেন্ট (তামপাত্রা কমানো ও বাড়ানো), চাইল্ড লক, ইকো ও সুপারকুল কি বা বোতাম। যেগুলো চেপে গ্রাহকরা ফ্রিজের দরজা না খুলে অনায়াসেই নিজের পছন্দমত রেফ্রিজারেটরের নরমাল ও ডিপ অংশের তাপমাত্রার নির্ধারণ করাসহ বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী মুড, সুপারকুল মুড, চাইল্ড লক সিস্টেম ও ইকো মুড চালু করতে পারবেন। যা কিনা প্রদর্শিত হবে ডিজিটাল ডিসপ্লেতে। ফলে, ব্যবহারকারি বাইরে থেকেই নিজের পছন্দমত ফ্রিজের তাপমাত্রা ও অন্যান্য সেটিংস নিয়ন্ত্রণ বা পরিবর্তন করতে পারবেন। ওয়ালটনের প্রকৌশলীরা জানান, গ্রাহকদের জন্য ফ্রিজ পরিচালনা আরো সহজ করার বিষয়টি মাথায় রেখেই তৈরি করা হয়েছে নতুন মডেলের এই ফ্রিজ। এর দরজায় ডিজিটাল ডিসপ্লে’তে সংযুক্ত ফ্রিজার বোতাম একবার চেপে গ্রাহক ডিপ অংশের তাপমাত্রা প্রয়োজনমত গ্রীষ্মকালীন ও শীতকালীন মুড নির্ধারণ করতে পারবেন। ইনক্রিমেন্ট ও ডিক্রিমেন্ট বোতামের সাহায্যে তাপমাত্রা বাড়াতে বা কমাতে পারবেন। ফ্রিজার বোতামটি দ্বিতীয়বার চাপলে ফ্রিজার কেবিনেট এর তাপমাত্রা ডিজিটার ডিসপ্লে-১ এ প্রদর্শিত হবে। রেফ্রিজারেটর বোতাম একবার চাপলে ডিসপ্লে-২ এ নরমাল কেবিনেট এর তাপমাত্রার মান প্রদর্শিত হবে। সুপারকুল বোতামের সাহায্যে সর্বোচ্চ ৯৯ ঘন্টা পর্যন্ত সময় নির্ধারণ গ্রাহক ফ্রিজের কম্প্রেসারটি চালু রাখতে পারবেন। এক্ষেত্রেও গ্রাহক তার প্রয়োজন মত নরমাল কেবিনেটে গ্রীষ্মকালীন ও শীতকালীন তাপমাত্রার মুড নির্ধারণ করতে পারবেন। এই ফ্রিজের আরেকটি বিশেষ দিক হলো চাইন্ড লক সিস্টেম। গ্রাহক ৩ সেকেন্ড সময় পর্যন্ত চাইল্ড লক বোতমটি চেপে ধরলে ডিজিটাল ডিসপ্লেতে সংযুক্ত অন্যসব বোতামগুলো নিষ্ক্রিয় হয়ে যাবে। এর ফলে, শিশুরা ডিসপ্লেতে সংযুক্ত বোতামগুলো চেপে ফ্রিজের সেটিংস পরিবর্তন করতে পারবে না। গ্রাহক ৩ সেকেন্ড সময় পর্যন্ত চাইন্ড লক বোতামটি আবার চাপলে সক্রিয় হবে অন্যসব বোতাম। বিদ্যুৎ সাশ্রয়ের জন্য ওয়ালটনের নতুন মডেলের এই ফ্রিজের ডিসপ্লেতে রয়েছে ইকো কি বা বোতাম। যার মাধ্যমে গ্রাহক সবচেয়ে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী মুড এ ফ্রিজটি পরিচালনা করতে পারবেন। ইকো বোতামের সাহায্যে গ্রাহক মাইনাস ১৪, ১৫ ও ১৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস নির্ধারণ করে যথাক্রমে এক স্টার, দুই স্টার ও তিন স্টার রেটিং সেট করতে পারবে। যা কিনা ডিজিটাল ডিসপ্লে’র ইকো আইকন এ প্রদর্শিত হবে। গ্রাহক ফ্রিজের নরমাল কেবিনেটের দরজা খুললেই ডিজিটাল ডিসপ্লে’তে সংযুক্ত ডোর ওপেন আইকনটি জ্বলে উঠবে। দরজা যদি ২০ সেকেন্ড পর্যন্ত খোলা থাকলে ফ্রিজে সংযুক্ত শব্দ যন্ত্রটিতে মৃদু শব্দ করবে। আর যদি গ্রাহক ভুলক্রমে ১ মিনিটের মধ্যেও দরজা বন্ধ না করে, তাহলে যন্ত্রটিতের কর্কশ ধরনের শব্দ করবে। 

এছাড়াও, এই ফ্রিজে বরফ জমবে না।ওয়ালটন ফ্রিজ আরএন্ডডি (গবেষণা ও উন্নয়ন) বিভাগের প্রধান তাপস কুমার মজুমদার বলেন, নিয়মিত গবেষণার মাধ্যমে ওয়ালটন ফ্রিজে প্রতিনিয়ত যুক্ত হচ্ছে বিশ্বের লেটেস্ট সব প্রযুক্তি। এরই ধারাবাহিকতায় এবার যুক্ত হলো ডিজিটাল ডিসপ্লে প্রযুক্তি। পাশাপাশি, ব্যবহার করা হয়েছে ন্যানো হেলথ কেয়ার টেকনোলজির। যা ফ্রিজের খাবারে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া অনুপ্রবেশ স্বয়ংক্রিয়ভাবে প্রতিরোধ করে। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ