ঢাকা, সোমবার 22 May 2017, ০৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪, ২৫ শাবান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে তল্লাশি সরকারের নীল নকশার অংশ -ব্যারিস্টার মওদুদ

গতকাল রোববার জাতীয় প্রেস ক্লাবে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক দল আয়োজিত বহুদলীয় গণতন্ত্র ও সুশাসন প্রতিষ্ঠায় শহীদ জিয়ার অবদান শীর্ষক আলোচনা সভায় বক্তব্য পেশ করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ -সংগ্রাম

 

স্টাফ রিপোর্টার : দেশের সর্ববৃহৎ রাজনৈতিক দল বিএনপিকে প্রতিহত কিংবা ঠেকানোর পরিকল্পনার অপকৌশল হিসেবেই সরকার গুলশানে খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে তল্লাশির মতো ন্যক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ। তিনি বলেন, বিএনপি যাতে নির্বাচনে অংশ না নেয়, আওয়ামী লীগ যাতে আরও একবার একদলীয় নির্বাচনের মাধ্যমে অবৈধভাবে ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারে তারই নীলনকশার অংশ গুলশানে তল্লাশি ।

গতকাল রোববার জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক দলের উদ্যোগে এই আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। 

বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে পুলিশি তল্লাশির নিন্দা জানিয়ে মওদুদ আহমেদ বলেন, গভর্নমেন্ট হ্যাজ বিকাম ডেসপারেট সরকার বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। বাংলাদেশে সুষ্ঠু রাজনীতি হোক, এটা তারা চায় না। তবে এসব কৌশল কাজে দেবে না বলেও সরকারকে হুঁশিয়ার করেন বিএনপি নেতা। 

 মওদুদ বলেন, আমরা বলতে চাই, আগামীতে আর একদলীয় নির্বাচন করতে দেওয়া হবে না। যতই আপনারা কৌশল গ্রহণ করুন, যতই আপনারা আমাদের কার্যালয়ে পুলিশি হামলা চালান, ততই আমাদের জনপ্রিয়তা বাড়বে। আপনাদের যদি কিছু জনপ্রিয়তা থাকেও, এই হামলার (গুলশান কার্যালয়) ঘটনায় সেটা কমবে। ভোট আপনারা কম পাবেন কালকের এই ঘটনার জন্য। 

 দেশে আইনের শাসন নেই মন্তব্য করে তিনি বলেন, আজকে আইনের প্রয়োগ দুই রকমের হয়। আপনি যদি বিরোধী দলে থাকেন একই আইন একভাবে প্রয়োগ করা হয়। আর যদি আপনি সরকারি দলে থাকেন, সেই আইন প্রয়োগ অন্যভাবে হবে, যাতে আপনার কোনো অসুবিধা না হয়। আর আইনের এই দুই রকমের প্রয়োগের জন্য দেশের ব্যাংকসমূহের অর্থ লুণ্ঠন করে ব্যাংকগুলোকে শূন্য করে দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগও করেন তিনি।

মওদুদ বলেন, সম্পূর্ণভাবে সমাজকে বিভক্ত করে দেয়া হয়েছে। দেশের ৭০/৮০ শতাংশ মানুষ আইনের শাসন থেকে বঞ্চিত। আর ২০ শতাংশ মানুষ আইনের সুবিধা নিয়ে লুটতরাজ করে, দুর্নীতি করে কোটি কোটি টাকার মালিক হয়েছেন, হতে চলেছেন।

মওদুদ আরও বলেন, যে সরকারের জবাবদিহিতা নেই, সেই সরকার কোনও দিনই বাংলাদেশের মানুষের ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটাতে পারে না, দেশের মানুষের প্রতিনিধিত্ব করার অধিকার তাদের থাকে না।

জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক দলের সভাপতি হুমায়ুন কবীর বেপারীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য অধ্যাপক সুকোমল বড়ুয়া, কেন্দ্রীয় নেত্রী শিরিন সুলতানা, জাসাস সহসভাপতি বাবুল আহমেদ বক্তব্য রাখেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ