ঢাকা, রবিবার 28 May 2017, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪, ১ রমযান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

সিয়াম সাধনার মাধ্যমেই  আদর্শ সমাজ গঠন করা সম্ভব    -মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ 

 

বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন প্রধান, আমীরে শরীয়ত মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী হুজুর এক বিবৃতিতে  বলেছেন,  রোজা মহান আল্লাহ তা‘আলার সান্নিধ্য লাভের অন্যতম মাস। হযরত আদম (আঃ) এর জমানা থেকেই  রোজার মাধ্যমে মানুষ তাক্বওয়া বা আত্মসুদ্ধি অর্জন করে আসছে। মহান আল্লাহ পবিত্র কোরআনে বলেছেন-”হে ঈমানদারগণ! তোমাদের উপর  রোজা ফরজ করা হয়েছে, যেমনটি ফরজ করা হয়েছিল তোমাদের পূর্ববর্তীদের উপর, যাতে তোমরা মুত্তাকী হতে পারো। তাই রমযানে বেশী বেশী ইবাদাত করে আল্লাহার নৈকট্য হাসিল, তাকওয়া অর্জন এবং নিজেকে আল্লাহর প্রিয় বান্দা হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। কেননা সুশৃংখল ও শান্তিপূর্ণ সমাজ বিনির্মাণে মুত্তাকী পরহেজগার মানুষের বড় প্রয়োজন। সমাজের সর্বস্তরের মানুষগুলো মুত্তাকী হলে সন্ত্রাস- দুর্নীতি, খুন-রাহজানী, ধর্ষণ-ইভটিজিং, জুলুম-নির্যাতন সমাজ থেকে চিরতরে বিদায় নিবে। সুতরাং সিয়াম সাধনার মাধ্যমেই আদর্শ সমাজ গঠন করা সম্ভব। তাই আসুন! মাহে রমযানের সাধনায় মগ্ন হয়ে আদর্শ সমাজ গড়ে তুলি।

রমজানকে স্বাগত জানিয়ে মিছিল: বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর ও ঢাকা মহাগনর আমীর মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী আলেম-উলামাদের সাথে তার কৃত ওয়াদা অনুযায়ী এদেশের ৯৫ ভাগ জনগণের চিন্তা-চেতনা ও বিশ্বাসের সাথে সাংঘর্ষিক গ্রীক দেবী থেমিসের মূর্তিকে সুপ্রীম কোর্টের সামনে থেকে রমজানের ঠিক আগে আগেই অপসারণ করায় তাকে আমরা ধন্যবাদ জানাই। পাশাপাশি ন্যায়বিচারের কথিত প্রতীক হিসেবে এই মূর্তিকে যেন অন্য কোথাও স্থাপন করার প্রহসন না করা হয় সেই দাবি জানাই। থেমিসের মূর্তি অপসারণের মাধ্যমে তৌহিদি জনতার দীর্ঘ দিনের আন্দোলন বিজয় হয়েছে এবং বাংলাদেশের জনগণের সাথে সম্পর্কহীন পরগাছা নাস্তিক-মুরতাদ ও সেক্যুলারদের মুখে চপেটাঘাত পড়েছে। গুটিকয়েক যেসব নাস্তিক-মুরতাদ ও তাদের দালালরা গভীর রাতে মূর্তি অপসারণের প্রতিবাদ জানিয়েছে তারা এদেশের জনগণের শত্রু। তাদের প্রতিহত করার জন্য এদেশে আপামর তৌহিদি জনতা সদা প্রস্তুত রয়েছে।

মাহে রমজানকে স্বাগত জানিয়ে বাদ জুমা বায়তুল মোকাররম উত্তর গেটে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন ঢাকা মহানগর আয়োজিত এক মিছিলে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বায়তুল মোকাররম উত্তর গেট থেকে মিছিলটি বের হয়ে পল্টন মোড় ও ফটো জার্নালিস্ট মোড় ঘুরে এসে বায়তুল মোকাররম ওভারব্রিজের নিচে দুআর মাধ্যমে সমাপ্ত হয়। মিছিলে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন মহানগর উপদেষ্টা ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল হান্নান আল হাদী, কেন্দ্রীয় যুব বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা ফখরুল ইসলাম, মহানগর নায়েবে আমীর মাওলানা ফিরোজ আশরাফি, সাধারণ সম্পাদক হাফেজ মাওলানা আবু তাহের, যুগ্ম সম্পাদক মাওলানা মাহবুবুর রহমান, মো: মোফাচ্ছির হোসেন, এডভোকেট মো: কামরুদ্দীন, মো: জহিরুল ইসলাম, আব্দুস সবুর খান সুমন, মুফতি মাহফুজুর রহমান, প্রিন্সিপাল শফিকুল ইসলাম, মো: আব্দুর রব প্রমূখ। প্রেসবিজ্ঞপ্তি। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ