ঢাকা, রবিবার 28 May 2017, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪, ১ রমযান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মূর্তি সরিয়ে ধর্মের প্রতি  সম্মান জানানো হয়েছে -আইনমন্ত্রী

 

স্টাফ রিপোর্টার : আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, সুপ্রিম কোর্টের সামনে থেকে মূর্তি সরানোর ফলে ইসলাম ও অন্যান্য ধর্মের প্রতি সম্মান জানানো হয়েছে। কেননা আগামী প্রজন্মের কাছে বিকৃত ইতিহাস যেত। এটা থেমিসের আসল রূপ নয়। আমরা কোনো ইতিহাস বিকৃত করতে চাই না। অতীতে অনেক কিছুই বিকৃত হয়েছে।

গতকাল শনিবার বিশ্ব তামাক মুক্ত দিবস উপলক্ষে আয়োজিত তামাক নিয়ন্ত্রণ সাংবাদিকতা পুরুস্কার অনুষ্ঠান শেষে তিনি এসব কথা বলেন। প্রজ্ঞা আয়োজিত রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক। বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিকি এবং উপস্থিত ছিলেন প্রজ্ঞার নির্বাহী পরিচালক এবিএম জুবায়ের। অনুষ্ঠানে প্রজ্ঞা তামাক নিয়ন্ত্রণ সাংবাদিকতা পুরস্কার ২০১৭ এর বিজয়ীদের পুরস্কার দেওয়া হয়। এতে প্রিন্ট-অনলাইন বাংলা, প্রিন্ট-অনলাইন ইংরেজি ও ব্রডকাস্ট-রেডিও এই তিনটি বিভাগে পুরস্কার দেওয়া হয়। পুরস্কার বিজয়ীরা হলেন বরিশালের স্থানীয় দৈনিক কীর্তনখোলার প্রধান প্রতিবেদক গোলাম মর্তুজা জুয়েল, দ্য ডেইলি স্টারের জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক পরিমল পালমা, যমুনা টেলিভিশনের জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক সুশান্ত সিনহা, যৌথভাবে একটি পুরস্কার পেয়েছেন দৈনিক জনকণ্ঠের (বর্তমানে যুগান্তরে কর্মরত) নিজস্ব প্রতিবেদক এস এ এম হামিদুজ্জামান ও বাংলা ট্রিবিউনের বাণিজ্য বিভাগের প্রধান শফিকুল ইসলাম এবং শিশু সাংবাদিকতায় বিশেষ পুরস্কার পেয়েছে বিডি নিউজের হ্যালো বিভাগের সাদিক ইভান।

আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, তামাক নিয়ন্ত্রণে সচেতনতা প্রয়োজন। এ জন্য প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। জুরিবোর্ডের প্রধান হিসেবে তিনি কীভাবে পুরস্কার বিজয়ীদের নির্বাচন করেছেন, তার একটি সংক্ষিপ্ত বর্ণনাও দেন।

পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন দৈনিক সমকালের উপসম্পাদক মোজাম্মেল হোসেন। এ ছাড়া ফ্রেমওয়ার্ক কনভেনশন অন টোব্যাকো কন্ট্রোলের পরামর্শক শরিফুল আলম, আত্মার আহ্বায়ক মর্তুজা হায়দার লিটন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ