ঢাকা, রবিবার 28 May 2017, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪, ১ রমযান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

শরবত খেয়ে অচেতন দম্পতির নগদ টাকা স্বর্ণালঙ্কার লুট

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর কদমতলীতে অভিনব কাদায় অচেতন করে দম্পতির স্বর্ণ অলঙ্কার ও নগদ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে এক প্রতারক কবিরাজ। অচেতন অবস্থায় গতকাল শনিবার বিকালে তাদের ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। কদমতলীর নুরবাগে ভাড়া বাসায় থাকেন এই দম্পতি। এরা হলেন- পাখি ব্যবসায়ী মনির হোসেন (৪০) ও স্ত্রী মোসা. জেসমিন (৩০)। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাড়ীর এএসআই  মো. বাবুল মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

মনিরের শ্যালক মো. লিটন জানান, জমি-জমা ও আত্মসাৎ হওয়া সম্পদ উদ্ধার করে দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে এক কবিরাজ তিন-চারদিন থেকে বাসায় যাতায়াত করেন। গতকাল (শুক্রবার) বাসাতেই ছিল কবিরাজ। কবিরাজ রাত ৩টায় ওদের দু’জনকে শরবত খাওয়ায়। শরবত খাওয়ার পর স্বামী ও স্ত্রী দু’জনই অচেতন হয়ে পড়েন। এ সময় ওই প্রতারক কবিরাজ আমার বোনের গলার চেইন, কানের দুল ও ঘরের নগদ টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়।

লিটন বলেন, ‘গতকাল শনিবার বেলা ১০টার পর পরেও তারা ঘুম থেকে না ওঠায় অন্যদের সহযোগিতায় তাদের উদ্ধার করে হাসপতালে ভর্তি করাই।’ তবে কী পরিমাণ জিনিসপত্র বাসা থেকে খোয়া গেছে তা তাৎক্ষণিক জানাতে পারেননি লিটন।

অজ্ঞাত যুবকের লাশ উদ্ধার

ডেমরা স্টাফ কোয়াটারের রোড সরদার রুলিং মিলের পাশের রাস্তায় অজ্ঞাত (৩০) যুবকের হাত-পা ও মুখ বাধা অবস্থায় লাশ উদ্ধার করেছে ডেমরা থানা পুলিশ। গতকাল শনিবার (২৭ মে) দুপুর ২টার দিকে লাশ উদ্ধার করা হয়।

ডেমরা থানার ওসি স্নেহাশীষ রায় জানিয়েছেন, দুপুরে খবর পেয়ে হাত-পা রশি দিয়ে বাধা অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে কে বা কারা তাকে হত্যা করে ফেলে রেখে গেছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মিটফোর্ড হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ