ঢাকা, রবিবার 28 May 2017, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪, ১ রমযান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

নাটোরে জুডিশিয়াল কনফারেন্স অনুষ্ঠিত

নাটোর সংবাদদাতা : নাটোরে জেলা জজশিপ এর আয়োজনে জুডিশিয়াল কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়েছে। সম্মেলনে জানানো হয়, তীব্র বিচারক সংকটের পরেও গত পাঁচ মাসে নাটোর জেলার ২১টি আদালতে মোট ছয় হাজার ৫১২টি মামলা নিস্পত্তি করা হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে জেলা ও দায়রা জজ এর সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এই কনফারেন্সে সভাপতির বক্তব্যে নাটোরের জেলা ও দায়রা জজ মোঃ রেজাউল করিম বলেন, বিচারকগণ ‘ইনসাফ’ করতে চান, নিস্পত্তির নামে ‘সাফ’ করতে নয়। তিনি সংশ্লিষ্ট সকলকে সত্যতা ও ন্যায় পরায়নতার সাথে মামলার কাজ করে দ্রুত নিষ্পত্তির ব্যবস্থা করার আহবান জানান। এসময় আরো বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যজিস্ট্রেট রবিউল ইসলাম, নাটোর সদর কোর্টের সিনিয়র বিচারক মোঃ আসাফুদ্দৌলা, নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালের আরএমও ডাঃ মোঃ আবুল কালাম আজাদ, নাটোর জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাভোকেট রুহুল আমিন তালুকদার টগর, পিপি আ্যাডভোকেট মোঃ সিরাজুল ইসলাম, জিপি অ্যাডভোকেট মোঃ আসাদুল ইসলাম এবং নাটোর কোর্টের জিআরও পুলিশ পরিদর্শক মোঃ নাসির উদ্দিন। এসময় জানানো হয়, নাটোর জজশীপের ২১টি পৃথক আদালতের জন্য এখন  বিচারক রয়েছেন মাত্র ১৩জন যার মধ্যে দু’জন গিয়েছেন প্রশিক্ষণে। তীব্র বিচারক সংকট থাকার পরেও গত পাঁচ মাসে নাটোর জেলার ২১টি আদালতে মোট ছয় হাজার ৫১২টি মামলা নিস্পত্তি করা হলেও প্রয়োজনীয় সংখ্যক সব বিচারক থাকলে তা দ্বিগুন হতে পারতো। এছাড়াও চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ভবন নির্মাণের জন্য কোর্ট চত্বরের অদূরে জায়গা অধিগ্রহণ করার পরে দীর্ঘদিনেও সেখানে ভবন নির্মাণের কোন উদ্যোগ নেয়া হচ্ছেনা। বিভিন্ন সরকারি দপ্তরে নিরাপত্তার জন্য সিসি ক্যামেরা স্থাপনা করা হলেও নাটোর জজ কোর্টে কবে কখন তা করা হবে সেটাও জানা যাচ্ছেনা। নাটোর জেলার সদর উপজেলা ভেঙ্গে প্রায় চার বছর আগে নলডাঙ্গা নামে একটি পৃথক উপজেলা গঠন করার পর সেখানে সকল প্রশাসনিক কার্যক্রম শুরু করা হলেও পৃথক আদালত গঠনের কোন সিদ্ধান্ত এখনও নেয়া হয়নি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ