ঢাকা, মঙ্গলবার 30 May 2017, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২8, ৩ রমযান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

রাজশাহীতে হোল্ডিং ট্যাক্স সহনীয় পর্যায়ে আনার ঘোষণা সিটি মেয়রের

রাজশাহী অফিস : রাজশাহী মহানগরীতে হোল্ডিং ট্যাক্স সহনীয় পর্যায়ে আনার ঘোষণা দিয়েছেন রাজশাহী সিটি মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল। এজন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।
গতকাল সোমবার রাজশাহী কর আইনজীবী সমিতি ও বর্ধিত হোল্ডিং ট্যাক্স প্রতিরোধ কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে হোল্ডিং ট্যাক্স বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। দুপুরে নগরভবন সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন সিটি মেয়র মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল। এ সময় বক্তব্য রাখতে গিয়ে মেয়র বলেন, জনগণের মতামতের ভিত্তিতে ট্যাক্স নিয়ে সৃষ্ট সমস্যার সমাধান করা হবে। সকলের মতামতের ভিত্তিতে ট্যাক্স সহনীয় পর্যায়ে নিয়ে আনা হবে। শীঘ্রই সকল পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দের মতামতের ভিত্তিতে ট্যাক্সের বিষয়ে গণশুনানীর আয়োজন করা হবে। এজন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি। সভায় উপস্থিত ছিলেন বর্ধিত হোল্ডিং ট্যাক্স প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সচিব এ্যাড. আবু রায়হান মাসুদ, সদস্য দেবাশীষ রায়, রাজশাহী কর আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাড. কে.এম ইলিয়াস, সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. রহমত উল্লাহসহ বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
রাসিক মেয়রের বাণী 
শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৩৬তম শাহাদৎ বার্ষিকী উপলক্ষে বাণী প্রদান করেছেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল।
গতকাল এক বাণীতে তিনি উল্লেখ করেন, বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদের প্রবক্তা, জাতির বরেণ্য সন্তান, সাহসী বীর, অবিসংবাদিত নেতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান। যিনি একটি স্বাধীন-সার্বভৌম রাষ্ট্র স্থাপন, সমৃদ্ধ বাংলাদেশ নির্মাণ, রাষ্ট্রীয় সংগঠনের বহুদলীয় গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থা পুন:প্রবর্তন, বাংলাদেশী নাগরিকত্ব, জাতীয় সংহতি স্থাপনসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে আমাদের মাঝে চির অমর হয়ে আছেন। তাঁর চেতনায় ছিল বিশ্বশান্তি ও গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় সমৃদ্ধ বাংলাদেশ। সে লক্ষ্যেই প্রতিষ্ঠা করেছিলেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি। তিনি যখন বিএনপির নেতৃত্বে শিক্ষায় নিরক্ষহীনতা, কৃষিতে সবুজ বিপ্লব, শিল্পে সমৃদ্ধি, সংস্কৃতিতে বিকাশ, জনসংখ্যাকে জনসম্পদে রূপায়নে সৃজনশীল মেধা ও কায়িক শ্রমে নিরলস ছিলেন; ঠিক তখনই আন্তর্জাতিক চক্রান্তে শত্রুরা এ মহান নেতাকে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে নির্মমভাবে হত্যা করে। ১৯৮১ সালের ৩০ মে ভোরে তাঁর জীবনাবাসনের সংবাদে জাতি শোকাচ্ছন্ন হয়ে পড়ে। বাংলাদেশের ইতিহাসে সর্বকালের এ মহৎ প্রাণের জীবনাদর্শ আমাদের জাতীয় জীবন চলার পাথেয়। ৩৬তম শাহাদৎ বার্ষিকীতে আমি তাঁর রুহের মাগফিরাত কামনা করছি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ