ঢাকা, বুধবার 31 May 2017, ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২8, ৪ রমযান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

বগুড়ার টিএমএসএস ম্যাটস নার্সিং কলেজ ছাত্রীর লাশ উদ্ধার

বগুড়া অফিস : বগুড়ার টিএমএসএস ম্যাটস নার্সিং কলেজে ইসমত আরা মুন নামের এক ছাত্রীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাকে ধর্ষণের পর কলেজের ছাদে থেকে ফেলে হত্যা করা হয়েছে বলে গুঞ্জন উঠেছে। ইসমত আরা বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার হলদিয়াবগা গ্রামের গাজিউল ইসলামের মেয়ে। সে ওই কলেজে ফাইনাল পরীক্ষা শেষে ইন্টার্ণ করছিলো।  সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে বগুড়া সদর উপজেলার ঠেঙ্গারামায় অবস্থিত কলেজের পাশে স্থানীয়রা তার লাশ পড়ে থাকতে দেখে। পরে কর্তৃপক্ষ লাশ উদ্ধার করে টিএমএসএস পরিচালিত রফাতউল্লাহ কমিউনিটি হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে পুলিশ রাত সারে তিনটার দিকে লাশ উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।
বগুড়া সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) আবুল কালাম আজাদ জানান, খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ টিএমএসএস রফাতুল্লাহ কমিউনিটি হাসপাতাল থেকে উদ্ধার করেন। তিনি বলেন লাশটি ছিলো কিনা সেটা বলতে পরবো না, তবে স্থানীয়রা জানায় উদ্ধারের সময় তার গায়ে ওড়না ছিলো না। মঙ্গলবার বিকেল পর্যন্ত এঘটনায় থানায় মামলা হয়নি।
ধুনটে ইমাম হত্যা মামলায় দুই ভাই গ্রেফতার
প্রায় এক বছর পালিয়ে থাকার পর বগুড়ার ধুনট উপজেলায় ইমামকে কুপিয়ে হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত দুই ভাইকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। সোমবার সন্ধ্যায় শেরপুর উপজেলার শালফা এলাকা থেকে বগুড়ার ধুনট উপজেলার বলারবাড়ী গ্রামের জিল হোসেনের ছেলে সাইফুল ইসলাম (৪০) ও তার ভাই এনামুল হককে (৩৫) গ্রেফতার করে।
জানা যায়, ২০১৬ সালের ৩ জুলাই রাত ১০টায় উপজেলার বানিয়াগাঁতী জামে মসজিদে তারাবির নামাযের ইমামতি শেষে পার্শ্ববর্তি বলারবাড়ী গ্রামের নিজ বাড়ীতে ফিরছিলেন কাজী মতিউর রহমান। পথিমধ্যে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে তাকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী মর্জিনা খাতুন বাদী হয়ে ৬ জনের বিরুদ্ধে ধুনট থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। গ্রেফতারকৃত সাইফুল ইসলাম ও এনামুল হক ওই মামলার এজাহারভুক্ত আসামী।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ধুনট থানার পুলিশ পরিদর্শক (নিরস্ত্র) ফারুকুল ইসলাম জানান, ইমাম মতিউর রহমান হত্যাকান্ডের পর থেকে সাইফুল ইসলাম ও এনামুল হক পলাতক ছিলো। সোমবার সন্ধ্যায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শেরপুর উপজেলার শালফা এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতদের ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে মঙ্গলবার বগুড়ার আদালতে হাজির করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ