ঢাকা, শুক্রবার 02 June 2017, ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২8, ৬ রমযান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

চিটাগাং চেম্বার সভাপতির সাথে  দিল্লীস্থ অস্ট্রিয়ান ট্রেড কমিশনের কমার্শিয়াল এ্যাটাচে’র মতবিনিময়

 

গত ২৯ মে বিকেলে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারস্থ চেম্বার কার্যালয়ে দিল্লীস্থ অস্ট্রিয়ান ট্রেড কমিশনের কমার্শিয়াল এ্যাটাচে সিগফ্রায়েড ওয়েডলিচ (Mr. Siegfried Weidlich) দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি’র সভাপতি মাহবুবুল আলম’র সাথে দ্বিপাক্ষিক ব্যবসা-বাণিজ্য ও বিনিয়োগ নিয়ে মতবিনিময় করেন। এ সময় চেম্বার পরিচালক এম. এ. মোতাবেল উপস্থিত ছিলেন। মতবিনিময়কালে চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম অস্ট্রিয়াকে বাংলাদেশের বন্ধুপ্রতীম রাষ্ট্র উল্লেখ করে বলেন, উভয় দেশের মধ্যে বাণিজ্যিক সম্ভাবনা থাকা সত্ত্বেও বাংলাদেশে অস্ট্রিয়ান বিনিয়োগ যথেষ্ট নয়। তিনি বিদেশী বিনিয়োগ আকর্ষণে বর্তমান সরকার ঘোষিত বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা অবহিতকরণপূর্বক প্রস্তাবিত ১০০টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল তথা চট্টগ্রামের মিরসরাই এবং আনোয়ারায় অস্ট্রিয়ান বিনিয়োগ প্রত্যাশা করেন। চেম্বার সভাপতি বাংলাদেশের সম্ভাবনাময় বিদ্যুৎ ও জ্বালানি, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, পর্যটন, ভৌত অবকাঠামো খাতে অস্ট্রিয়ান উদ্যোক্তাদের বিনিয়োগ উৎসাহিতকরণ এবং তরুন প্রজন্মকে দেশের প্রবৃদ্ধি ও শিল্পায়নের ধারক উল্লেখ করে দক্ষ মানব সম্পদ উন্নয়নে অস্ট্রিয়ান সরকারের সাহায্য কামনা করেন। সিগফ্রায়েড ওয়েডলিচ বলেন, চট্টগ্রাম হচ্ছে বাণিজ্যিক সম্ভাবনাময় একটি গুরুত্বপূর্ণ শহর। তিনি দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কোন্নয়নে পারস্পরিক যোগাযোগ বৃদ্ধি, তথ্য আদান-প্রদান ও বাণিজ্যিক প্রতিনিধিদল প্রেরণের উপর গুরুত্বারোপ করেন। এরই অংশ হিসেবে আগামী ফেব্রুয়ারী ’১৮ একটি উচ্চ পর্যায়ের অস্ট্রিয়ান বাণিজ্য প্রতিনিধিদল চট্টগ্রাম সফর করবে বলে তথ্য প্রকাশ করেন। তিনি বাংলাদেশের অর্থনীতি সমৃদ্ধির প্রতীক ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার পরিদর্শনকালে এদেশের রপ্তানিযোগ্য পণ্য সামগ্রীর উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

চেম্বার পরিচালক এম. এ. মোতালেব বাংলাদেশের ফুড ও বেভারেজ সামগ্রী ইউরোপের বিভিন্ন দেশে রপ্তানির প্রসংগ উল্লেখ করে অস্ট্রিয়ান বাজারে প্রবেশে ট্রেড কমিশনের সহযোগিতা কামনা করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ