ঢাকা, শুক্রবার 02 June 2017, ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২8, ৬ রমযান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মিঠু’র হত্যাকা-ে ড. মামুনকে  জড়ানো আজগুবি গল্প    ---------বিএনপি

 

স্টাফ রিপোর্টার : খুলনা জেলা বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক, ফুলতলা উপজেলা বিএনপি’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান সরদার আলাউদ্দিন মিঠু হত্যাকা-ের সঙ্গে বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য লন্ডন প্রবাসী ড. মামুন রহমানকে জড়িয়ে যে আজগুবি গল্প ফাঁদা হয়েছে তাতে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। 

গতকাল বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বিএনপি মহাসচিব বলেন, জনপ্রতিনিধি হিসেবে মিঠুর পরিবার এলাকায় খুবই জনপ্রিয় হবার কারনেই ইতোপূর্বে তার পিতা ও বড় ভাইকেও খুনীরা পৈশাচিক কায়দায় হত্যা করে। পিতা ও ভাইকে খুন করার পর বেশ কয়েকবার সরদার আলাউদ্দিন মিঠুকেও হত্যা প্রচেষ্টা চালানো হলেও খুনীদের অপারেশন ব্যর্থ হয়। সবচেয়ে আশ্চর্যের বিষয় এই যে, একই পরিবারের তিনটি খুনই আওয়ামী লীগ সরকারের আমলেই সংঘটিত হয়েছে। কিন্তু অদৃশ্য ইঙ্গিতে তিনটি খুনের ঘটনাকেই ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে চেষ্টা চালানো হয়েছে। মিঠু হত্যার ঘটনাতেও জনদৃষ্টিকে অন্যত্র সরাতে বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য লন্ডনপ্রবাসী ড. মামুন রহমানকে মিঠুর হত্যায় অর্থ জোগানদাতা হিসেবে জড়িয়ে সম্পূর্ণ বানোয়াট কাহিনী রচনায় খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি’র বক্তব্যে আমরা হতাশ হয়েছি। 

তিনি বলেন, মিঠুকে হত্যার জন্য ড. মামুন ৩০ লক্ষ টাকা দিয়েছেন-এটি পুলিশের বানানো গল্প ছাড়া আর কিছুই নয়। আইন শৃঙ্খলা বাহিনী সরদার আলাউদ্দিন মিঠু’র প্রকৃত হত্যাকারীদের শাস্তি নিশ্চিত করতে যথাযথ উদ্যোগ গ্রহণ করবে বলে প্রত্যাশা করেন বিএনপি মহাসচিব

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ