ঢাকা, রবিবার 04 June 2017, ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২8, ৮ রমযান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

নয়নের খুনিদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে

খাগড়াছড়ির দিঘীনালা উপজেলার মোটর সাইকেল চালক নুরুল ইসলাম নয়নের খুনিদের গ্রেফতারের দাবীতে প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদ। গত শুক্রবার রাজধানীর শাহবাগে অনুষ্ঠিত সমাবেশে উপজাতি সন্ত্রাসী কর্তৃক পরিকল্পিতভাবে হত্যার তীব্র্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন পার্বত্য নাগরিক পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার আলকাছ আল মামুন ভুইয়া। একই সাথে আগামী ৪৮ ঘন্টার মধ্যে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে প্রকৃত দোষীদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানান তিনি।
পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদের ঢাকা মহানগর সভাপতি মো: সাহাদাৎ ফরাজি সাকিবের সভাপতিত্বে এক প্রতিবাদ সমাবেশে মামুন ভুইয়া এ কর্মসূচী ঘোষণা করেন। সমাবেশে পার্বত্য নাগরিক পরিষদের যুগ্ম সম্পাদক শেখ আহাম্মদ রাজু, পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় নেতা সারোয়ার জাহান খানও পার্বত্য নাগরিক পরিষদের মো: সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ নেতা বক্তব্য রাখেন।
এ সময় নেতৃবৃন্দ বলেন, মহালছড়ির সাদিকুল কে যে ভাবে ডেকে নিয়ে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করা হয়েছে ঠিক একই ভাবে (১লা জুন) বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার সময় দিঘীনালা সড়কের চার মাইল নামক স্থানে লংগদু উপজেলা বাইট্রা পাড়ার মোটর সাইকেল চালক নুরুল ইসলাম নয়ন (৪০)কে ভাড়ার নামে উপজাতীয় সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা হত্যা করে। লংগদুতে বাঙালিরা যখন নয়ননের লাশের জানাজা ও বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে ব্যস্ত। ঠিক তখনই জেএসএস কর্মীরা উপজাতিদের ভাঙ্গা ও অকেজু ঘরে আগুন লাগিয়ে নয়ন হত্যার বিষয়টিকে ধামা চাপা দেয়ার চক্রান্ত চালায়।
তারা বলেন, ফেইসবুকে নাস্তিক ইমতিয়াজ মাহমুদ তার স্ট্যাটাসে উপজাতি সন্ত্রাসী কর্তৃক নিহত নুরুল ইসলাম নয়নকে শিবিরের কর্মী বলে উল্লেখ করে বিষয়টিকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার পায়তারা করছেন। তার এহেন মানসিকতার নিন্দা জানিয়ে ইমতিয়াজ মাহমুদ এর কাছে প্রশ্ন উপজাতি সন্ত্রাসী কর্তৃক পার্বত্য চট্টগ্রামে আর কত নিরীহ বাঙালী খুন হলে তাদেরকে আপনি মানুষ হিসেবে গণ্য করবেন? আপনারা নিশ্চয়ই জানেন, উপজাতিদের একটা পুরাতন কৌশল যে কোন ইস্যুতে তারা বাঙালীদের হত্যা করে, বাঙালী হত্যার দৃষ্টি অন্যদিকে প্রবাহিত করতে তারা নিজেরা নিজেদের ঘরে আগুন লাগিয়ে দেয়। বারং বার একই রকম কাজ করে লাভবান হয় উপজাতিরা। কারণ বাঁশের বেড়ার ঘরের পরিবর্তে পাকা দালান ও তার সাথে সারা জীবন ঘরে বসে বসে খাবার মত বিপুল পরিমাণ সরকারি ও আন্তর্জাতিক সাহায্য তারা তারা খুব সহজে পায়। এজন্য তাদের কাজই হচ্ছে জাতীয় বা আন্তর্জাতিক ভাবে বাঙালীদের তথা বাংলাদেশকে বর্হিবিশ্বের কাছে হেয় প্রতিপন্ন করা। তাইন্দং ট্র্যাজেডি উজ্জল উদাহরণ।
অন্য দিকে রাঙ্গামাটিতে পার্বত্য নাগরিক পরিষদের আহবায়িকা বেগম নুর জাহান ও জাহাঙ্গীরের নেতত্বে বিক্ষোভ মিছিল, খাগড়াছড়িতে পার্বত্য বাঙালি ছাত্রপরিষদের আহবায়ক কমিটির সদস্য আবদুল মজিদ ও আসাদের নেতৃত্বে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। বক্তারা অবিলম্বে নয়নের হত্যাকারীকে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবী জানান। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ