ঢাকা, মঙ্গলবার 06 June 2017, ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২8, ১০ রমযান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

শীর্ষ রাজনীতিকদের নিয়ে খালেদা জিয়ার ইফতার

গতকাল সোমবার রাজধানীর বসুন্ধরা কনভেনশন সেন্টারে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার উদ্যোগে রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের সম্মানে ইফতার মাহফিলের আয়োজন করা হয় -সংগ্রাম

স্টাফ রিপোর্টার : রাজনীতিবিদদের নিয়ে ইফতার করেছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া। গতকাল সোমবার রাজধানীর কুড়িল বিশ্ব রোড সংলগ্ন ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরার নবরাত্রি হলে এ ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। ইফতার মাহফিলে বিএনপির শরিক দল ছাড়াও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা উপস্থিত ছিলেন। খালেদার আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে উপস্থিত হন বিকল্পধারা বাংলাদেশের চেয়ারম্যান ডা. এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সভাপতি আ স ম আব্দুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না। খালেদা জিয়ার সাথে মঞ্চে একই টেবিলে বসে ইফতার করেন বিকল্পধারার সভাপতি ডা. একিউ এম বদরুদ্দৌজা চৌধুরী, এলডিপি সভাপতি কর্ণেল (অব.) অলি আহমদ, বাংলাদেশ জামাযাতে ইসলামীর নায়েবে আমীর ও সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপক মজিবুর রহমানসহ বিশ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতৃবৃন্দ। 

ইফতারের আগে

সন্ধ্যা ৬ টা ২৬ মিনিটে খালেদা জিয়া অনুষ্ঠান স্থলে প্রবেশ করেই প্রথম সারিতে বসা অধ্যাপক একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, আসম আবদুর রব ও তার স্ত্রী তানিয়া রব, মাহমুদুর রহমান মান্নার টেবিলে এসে বসেন। প্রথমেই কুশল বিনিময় করেন তাদের সাথে। কথা বলেন আসম আবদুর রব ও মাহমুদুর রহমান মান্নার সাথেও। প্রায় ৭ মিনিট এই আলাপচারিতায় দেশের পরিস্থিতি নিয়ে নেতৃবৃন্দের সাথে বিএনপি চেয়ারপার্সনের খোলামেলা কথা বলতে দেখা যায়। এরপর খালেদা জিয়া আমন্ত্রিত অতিথিদের টেবিল ঘুরে কুশল বিনিময় করেন। তিনি উপস্থিত অন্যান্য নেতৃবৃন্দের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। 

খালেদা জিয়া আয়োজিত ইফতার মাহফিলে ২০ দলীয় জোট নেতাদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন, জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমীর ও সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরোয়ার ও মাওলানা শামছুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও মহানগরী উত্তরের আমীর মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন, কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য সাহাব উদ্দিন, মোবারক হোসেন, মহানগরী দক্ষিণের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি মঞ্জুরুল ইসলাম ভ’ইয়া, মহানগরী উত্তরের সেক্রেটারি ড. রেজাউল করিম, মহানগরী দক্ষিণের কর্মপরিষদ সদস্য অধ্যাপক মোকাররম হোসেন, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহীম, জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) ডা. টি আইএম ফজলে রাব্বী চৌধুরী, বাংলাদেশ ন্যাপের চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এনডিপি) চেয়ারম্যান খোন্দকার গোলাম মোর্তুজা, বাংলাদেশ লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, বাংলাদেশ পিপলস লীগের সভাপতি গরীবে নেওয়াজ, ন্যাপ (ভাসানী) সভাপতি অ্যাডভোকেট আজহারুল ইসলাম, ইসলামী ঐক্যেজোটের এম এ রকিব, বাংলাদেশ মুসলিম লীগের এ এইচ এম কামরুজ্জামান, বাংলাদেশ সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক কমরেড সাঈদ আহমেদ, বাংলাদেশ ইসলামিক পার্টির চেয়ারম্যান আবু তাহের, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের আমীর নুর হোসেন কাসেমী, খেলাফত মজলিসের মাওলানা সৈয়দ মুহাম্মদ মুজিবুর রহমান, ডেমোক্রেটিক লীগের সাইফুদ্দিন মনি, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টির (জাগপা) ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অধ্যাপিকা রেহানা প্রধান এবং জাগপার সাবেক সভাপতি মরহুম শফিউল আলম প্রধানের মেয়ে ব্যারিস্টার তাসমিয়া প্রধান, বিকল্প ধারার মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান প্রমুখ।

এছাড়া কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান তালুকদার, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম দেলোয়ার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান, সদস্য মাহবুুবুর রহমান পারভেজ, মাকসুদ এলাহী, যুব আন্দোলনের আহ্বায়ক হাবিব উন নবী সোহেল, ছাত্র আন্দোলনের আহ্বায়ক রিফাতুল ইসলাম দ্বীপ, বাংলাদেশ জাতীয় দলের সভাপতি সৈয়দ এহসাননুল হুদা প্রমুখও অংশ নেন খালেদার ইফতার মাহফিলে।

এছাড়া এলডিপি‘র রেদোয়ান আহমেদ, সাহাদাত হোসেন সেলিম, জাগপা‘র খোন্দকার লুৎফর রহমান, মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা, লেবার পার্টির হামদুল্লাহ আল মেহেদি, ন্যাপের গোলাম মোস্তফা ভুঁইয়া, মুসলিম লীগের শেখ জুলফিকার বুলবুল চৌধুরী, মাওলানা দেলোয়ার হোসাইন সাঈদীর ছেলে শামীম সাঈদী প্রমুখ ইফতারে অংশ নেন। 

বিএনপি নেতাদের মধ্যে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, শ্যামা ওবায়েদ, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, সহ-দফতর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু প্রমুখ ইফতারে অংশ নেন।

এই ইফতার মাহফিলে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ও সভাপতিমণ্ডলীর সদস্যদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। কিন্তু আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে কেউ আসেননি বলে জানান বিএনপি চেয়ারপার্সনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ