ঢাকা, মঙ্গলবার 06 June 2017, ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২8, ১০ রমযান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

লন্ডনে সন্ত্রাসী হামলায় খালেদা জিয়ার শোক ও নিন্দা

স্টাফ রিপোর্টার : ম্যানচেষ্টারে হামলার রেশ না কাটতেই আবারও সন্ত্রাসী হামলায় রক্তাক্ত হলো যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডন। সন্ত্রাসীদের দ্বারা গত শনিবার রাতে রাজধানী লন্ডনের অন্যতম প্রধান পর্যটন কেন্দ্র লন্ডন ব্রীজের ফুটপাথে পথচারিদের ভিড়ের মধ্যে ভ্যান চালিয়ে পিষ্ট করে ও ছুরিকাঘাতে সাত জনকে হত্যা ও কমপক্ষে ৩০ জনকে আহত করার প্রাণবিনাশী রক্তাক্ত ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা জানিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া।

গতকাল সোমবার এক বিবৃতিতে বিএনপি চেয়ারপার্সন বলেন, গত শনিবার সাপ্তাহিক ছুটির রাতে লন্ডন ব্রীজে ভিড়ের মধ্যে ভ্যান চালিয়ে চাপা দিয়ে ও ছুরি নিয়ে সন্ত্রাসীদের বর্বরোচিত হামলায় সাত জনের প্রাণহানী ও কমপক্ষে ত্রিশ জন গুরুতর আহত হওয়ার ঘটনায় আমি গভীরভাবে বেদনার্ত ও শোকাহত হয়েছি। বিশ্বব্যাপী চলছে হানাহানী ও রক্তারক্তির সহিংস ঘটনা। বিশ্বমানবসম্প্রদায় এখন ভয়াবহ সন্ত্রাসের ঝুঁকির মধ্যে। আর এই সমস্ত বর্বরোচিত সন্ত্রাসী রক্তাক্ত ঘটনা সংঘটিত করতে উগ্রবাদী সন্ত্রাসীরা গড়ে তুলেছে মানবসভ্যতাবিরোধী রক্তরঞ্জিত নেটওয়ার্ক। যুক্তরাজ্যে কয়েক মাসে রক্তপিপাসু সন্ত্রাসীরা যেভাবে সাধারণ পথচারি ও নিরীহ মানুষকে আকস্মিক আক্রমণ চালিয়ে হত্যা করেছে তা মানববিবেককে নিদারুণভাবে ব্যথিত করেছে, বিশ্ববাসীর হৃদয়ে অশ্রু ঝরেছে।।

রাজনৈতিক উদ্দেশ্য সাধনে যে মানবঘাতি বিকৃতপন্থা অবলম্বন করে উগ্রবাদী সন্ত্রাসীরা বিশ্বের দেশে দেশে বিভৎস ঘাতকের রুপে আবির্ভূত হয়ে নিরীহ মানুষ হত্যা করছে তাতে মানবজাতির অর্জিত সভ্যতা, সংস্কৃতি এখন হুমকির মুখে। এরা মানুষের অগ্রগতিকে বাধা দিয়ে সারা দুনিয়াকে আদিম অন্ধকারের দিকে নিয়ে যেতে চায়। সুশাসন, আইন-শৃঙ্খলা ও মানুষের স্বাধীনতাকে নিজেদের পাশবিক ইচ্ছার অধীন করতেই সন্ত্রাসীরা বেপরোয়া মরণখেলায় মেতে উঠেছে। এই রক্তপিপাসু দানবীয় শক্তিকে এই মূহুর্তে পরাজিত করতে হবে, দেশে দেশে এদের প্রাণঘাতি নেটওয়ার্ক নির্মূল করতে হবে। আর যাতে কোন ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলা না ঘটে তার জন্য বিশ্ব সম্প্রদায়কে একযোগে প্রস্তুত থাকতে হবে, কঠোর অবস্থান নিয়ে সন্ত্রাস ও উগ্রবাদ দমনে একযোগে কর্মপন্থা অবলম্বন করতে হবে

গত শনিবার রাতে লন্ডন ব্রীজে সন্ত্রাসীদের কর্তৃক ভ্যান চালিয়ে ও ছুরি দিয়ে সন্ত্রাসী হামলায় যারা নিহত ও আহত হয়েছেন তাতে বেদনার্ত যুক্তরাজ্যবাসীর মতো আমিও সমব্যাথী। ধৈর্য্য ও সাহসিকতার সাথে এই সন্ত্রাসী ঘটনা মোকাবেলা ও অপরাধীদের শাস্তি বিধানে যুক্তরাজ্য সরকার সক্ষম হবে বলে আমি দৃঢ়ভাবে আশাবাদী। লন্ডনে গত শনিবার সংঘটিত সন্ত্রাসী ঘটনায় সাত জনের প্রাণহানী ও কমপক্ষে ত্রিশ জনের অধিক মানুষ আহত হওয়ার ঘটনায় গভীর শোক ও দূঃখ প্রকাশ করছি, নিহতদের আত্মার শান্তি ও আহতদের সুস্থতা কামনা করছি।”

অপর এক বার্তায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গত শনিবার রাতে লন্ডন ব্রীজে ভিড়ের মধ্যে ভ্যান চালিয়ে চাপা দিয়ে ও ছুরি দিয়ে সন্ত্রাসীদের দ্বারা সংঘটিত রক্তাক্ত সন্ত্রাসে হতাহতের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, এখন বিশ্বব্যাপী সন্ত্রাসীরা সাধারণ মানুষের জীবন কেড়ে নেয়ার উন্মাদনায় মেতে উঠেছে। নির্মম ও পৈশাচিক কায়দায় হত্যা ও জখম করে মানুষের রক্ত নিয়ে হোলিখেলাকে তারা আনন্দ উৎসব বলে মনে করে। সন্ত্রাসীরা বন্য পশু’র হিং¯্রতাকেও হার মানিয়েছে। গত শনিবার যুক্তরাজ্যের লন্ডন ব্রীজে সংঘটিত সন্ত্রাসী ঘটনায় আমি নিহতদের প্রতি গভীর শোক এবং তাদের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি। আহতদের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি এবং তারা যেন দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠেন এই কামনা করছি। আমি নিহতদের পরিবার-পরিজনসহ নিকটজনদের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করে ধৈর্যের সঙ্গে পরিস্থিতি মোকাবেলা করার জন্য যুক্তরাজ্য সরকার ও জনগণের প্রতি আহবান জানাচ্ছি। অশুভ নেটওয়ার্ক দ্রুত খুঁজে বের করে এর সাথে জড়িত অপরাধীরদের শাস্তি নিশ্চিত হবে বলেও আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ