বৃহস্পতিবার ০৮ এপ্রিল ২০১০
Online Edition

সাইক্লোন আর রেঞ্জার্সের ম্যাচ দিয়ে এনসিএল শুরু

স্পোর্টস রিপোর্টার : সাইক্লোন অব চট্টগ্রাম বনাম রাজশাহী রেঞ্জার্স এর মধ্যেকার ম্যাচ দিয়েই মাঠে গড়াচ্ছে এনসিএল টি-টোয়েন্টি লীগ। আগামী ১১ এপ্রিল থেকে শুরু হবে আলোচিত এনসিএল টি-টোয়েন্টি লীগ, যার সমাপ্তি ঘটবে ২০ এপ্রিল। গতকাল স্থানীয় একটি হোটেলে এই লীগের লোগো উম্মোচন, গ্রুপিং এর ক্রিকেটারদের নিলাম অনুষ্ঠিত হয়। দেড় কোটি টাকা দিয়ে এই লীগের টাইটেল স্পন্সর হয়েছে ডেসটিনি গ্রুপ। গতকাল টাইটেল স্পন্সর ডেসটিনি গ্রুপ এবং এই টুর্নামেন্টের স্বত্ব ক্রয় যারা প্রতিষ্ঠান এটিএন রেকর্ডসের সাথে চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠিত হয়। ডেসটিনির পক্ষে ভাইস চেয়ারম্যান গাজী গোফরানুল হক এবং এটিএন রেকর্ডসের পক্ষে মাহফুজুর রহমান চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। ক্রিকেটবোর্ড থেকে এটিএন রেকর্ডস এনসিএল টি-টোয়েন্টি এর মার্কেটিং স্বত্ব কিনে নিয়েছে। এবং প্রতিটি বিভাগীয় দলকে ইতোমধ্যে ৬৫ লাখ টাকা করে বিক্রি করে দিয়েছে এটিএন রেকর্ডস। ঢাকা বিভাগীয় দল কিনেছে বেক্সিমকো গ্রুপ। চট্টগ্রাম বিভাগীয় দল আইএফআইসি, রাজশাহী দল সিএন এন গ্রুপ, খুলনা দল এটিএন বাংলা, সিলেট দল রিচ ইভেন্ট এবং বরিশাল দল কিনেছে পারটেক্সসহ চাটি গ্রুপ যৌথভাবে। লটারির মাধ্যমে ছয়টি বিভাগীয় দলকে স্থান নির্ধারণও করা হয়। এতে রাজশাহী বিভাগ এ, চট্টগ্রাম বিভাগ বি, সিলেট বিভাগ সি, ঢাকা বিভাগ ডি, বরিশাল বিভাগ ই এবং খুলনা বিভাগ এফ নামে পরিচিত হবে। পজিশন অনুযায়ী উদ্বোধনী ম্যাচেই মুখোমুখি রাজশাহী বনাম চট্টগ্রাম বিভাগ। এটিএন বাংলা মিরপুর স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ১৫টি ম্যাচ সরাসরি সম্প্রচার করবে। বিভাগীয় ৬টি দলের নামও দেয়া হয়েছে। ঢাকা বিভাগীয় দলের নাম হচ্ছে ঢাকা ডিনামাইট, চট্টগ্রামের নাম সাইক্লোন অব চট্টগ্রাম, রাজশাহীর নাম রাজশাহী রেঞ্জার্স, খুলনার নাম কিংস অব খুলনা, সিলেটের নাম সুলতান অব সিলেট এবং বরিশালের নাম বরিশাল ব্লেজার্স। এনসিএল টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট লীগকে সমশক্তির দল ও আকর্ষণীয় করার জন্য পুলভুক্ত ২৪ ক্রিকেটারকে আগেই ভাগ করে দেয়া হয়েছে। যার মধ্যে একজন মেগা আইকন আর বাকি তিনজন আইকন। ঢাকা বিভাগীয় দলে আশরাফুলকে মেগা আইকন করে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, জহিরুল ইসলাম অমি আর মাহবুবুল আলম রবিনকে আইকন প্লেয়ার হিসেবে দেয়া হয়েছে। চট্টগ্রাম বিভাগে তামিম ইকবাল মেগা আইকন আর আইকন তালিকায় আছে আফতাব, রুবেল ও ফয়সাল হোসেন। রাজশাহী বিভাগে নায়েম ইসলাম মেগা আর আইকন তালিকায় আছেন জুনায়েদ সিদ্দিকি, সাইফুল ইসলাম ও সোরাওয়াদী শুভ। খুলনা বিভাগে মেগা আইকন সাকিব আল হাসান, আইকন তালিকায় আছেন আব্দুর রাজ্জাক, ইমরুল কায়েস ও ডলার মাহমুদ। বরিশালে মেগা আইকন শাহরিয়ার নাফিস, আইকন হিসেবে আছেন রকিবুল হাসান, নাজিম উদ্দিন ও জিয়াউর রহমান। সিলেটের মেগা আইকন অলক কাপালী। আইকন হিসেবে আছে ফরহাদ রেজা, নাজমুল হোসেন ও মোশাররফ হোসেন রুবেল। প্রতিটি দল ১৪ জন লোকাল ক্রিকেটার আর ৬ জন বিদেশী ক্রিকেটারসহ ২০ ক্রিকেটার নিয়ে দল গড়তে পারবে। তবে প্রতি ম্যাচে ২ জনের বেশি বিদেশী ক্রিকেটার মাঠে নামাতে পারবে না। এই টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন দল পাবে ৭০ লাখ টাকা। রানার আপ দল ৩৫ লাখ টাকা। ম্যান অব দ্য টুর্নামেন্ট এক লাখ টাকা, দ্রুততম ফিফটির জন্য ৫০ হাজার এবং সর্বোচ্চ ওভার বাউন্ডারীর জন্য ৫০ হাজার টাকা প্রাইজ মানি পাবেন। ক্রিকেটারদের দামও নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে। গ্রেড এ প্লাস পাবে চার লাখ টাকা। গ্রেড এ তিন লাখ টাকা, গ্রেড বি দুই লাখ টাকা, গ্রেড সি দেড় লাখ টাকা এবং গ্রেড ডি এক লাখ টাকায় যে কোন দলে যুক্ত হতে পারবেন। মেগা আইকন আর আইকন ক্রিকেটার ক্রিকেট বোর্ড নির্দিষ্ট করে দেয়ায় বাকি ১১৯ জন ক্রিকেটারকে দলে নিতে নিলামে গতকাল অংশ নেয় বিভাগীয় দলগুলো। পছন্দের ক্রিকেটারকে পাইতে লটারিতে অংশ নেয় প্রতিটি দল।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ