ঢাকা, বৃহস্পতিবার 15 June 2017, ০১ আষাঢ় ১৪২8, ১৯ রমযান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

নম্বর ঠিক রেখেই অপারেটর পরিবর্তন সুবিধা চালু করছে বিটিআরসি

স্টাফ রিপোর্টার : মোবাইল নম্বর ঠিক রেখেই একই সিমে অপারেটর পরিবর্তনের সুবিধা চালু করতে যাচ্ছে বিটিআরসি। কর্তৃপক্ষ বলছে, গ্রাহক সুবিধা বাড়াতে মোবাইল নম্বর পোর্টেবিলিটি (এমএনপি) পরিসেবা প্রদানের এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এ সুবিধায় নম্বর অপিরবর্তন রেখেই অপারেটর পরির্বতনের সুযোগ পাবেন গ্রাহকরা। বিটিআরসি কর্তৃপক্ষ বলছে, অনগামী দু’ সপ্তাহের মধ্যে শুরু হবে এমএনপি লাইসেন্স প্রক্রিয়া। এতে অংশগ্রহণ করবে ৫টি প্রতিষ্ঠান।
অবশেষে খুলতে যাচ্ছে বহু প্রত্যাশিত এমএনপি লাইসেন্স প্রক্রিয়ার জট। অর্থাৎ গ্রাহক চাইলেই তার নম্বর অপরিবর্তিত রেখে যেকোন অপারেটরের সেবা নিতে পারবেন। এই স্থানান্তর প্রক্রিয়ায় কাজ করবেন তৃতীয় একটি কোম্পানি। যা এমএনপি অপারেটর হিসেবে পরিচিতি পাবে।
এ সম্পর্কে বিটিআরসি’র চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ বলেন, ‘আমরা দুই সপ্তাহের মধ্যে এটি নিয়ে কাজ শুরু করবো। কোন কোম্পানিকে এই কাজ দেব তা আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যেই সিদ্ধান্ত নিয়ে নিতে পারি। এরপর মাত্র তিন মাসের মধ্যে কার্যক্রম চালু হয়ে যেতে পারে।’
বিটিআরসি গত বছরের ১৪ জুন এমএনপি সেবা লাইসেন্স নিলামের রোডম্যাপ প্রকাশ করেন। কিন্তু ২১ সেপ্টেম্বর নিরাপত্তা ইস্যুতে সরে আসে নিয়ন্ত্রণ সংস্থাটি। এরপর এমএনপি সেবার লাইসেন্স নীতিমালা সংশোধনের প্রস্তাবনা হয়। বর্তমানে তার আর্থিক পর্যালোচনা করছে অর্থ মন্ত্রণালয়।
এ সম্পর্কে বিটিআরসির চেয়ারম্যান আরও বলেন, যেহেতু এমএনপি অত্যন্ত সংবেদনশীল, তাই এটি যাতে ভুল প্রতিষ্ঠানের হাতে না পরে তাই যারা আমাদের কাছে নাম দিয়েছে তাদের নাম আমরা সিকিউরিটি চেকের জন্য পাঠিয়েছি’।
এদিকে সংশোধিত নীতিমালায় লাইসেন্স অ্যাকুইজিশন ফি ২০ থেকে ১০ কোটি টাকা করা হয়েছে। এছাড়া বার্ষিক লাইসেন্স ফি ২৫ লাখ টাকা। দ্বিতীয় বছর থেকে ১৫ শতাংশ রাজস্ব পাবে সরকার। নিরাপত্তা জামানত ১ কোটি টাকা। আর ব্যাংক গ্যারান্টি দিতে হবে ১০ কোটি টাকা।
তবে বাজার যাচাই করে এমএনপি সেবা চালু করার পরামর্শ মোবাইল অপারেটরদের। এ সম্পর্কে অ্যামটবের মহাসচিব টি আই এম নুরুল কবির বলেন, ‘আইসিএক্স একটা মিডেল লেয়ার আছে। আইসিএক্সয়ের জন্য আমার এমএনপিতে কী ধরনের সমস্যা হতে পারে এবং বাজারের কথা চিন্তা করে এমএনপি চালু করে তাহলে এটি সফলতা পাবে বলে মনে হয়।’
বিটিআরসির তথ্য অনুযায়ী দেশে ৫টি অপারেটরের মোবাইল গ্রাহকের সংখ্যা সাড়ে ১৩ কোটি। এমএনপি সুবিধা দিতে অপারেটররা গ্রাহকের থেকে নিতে পারবেন ৩০ টাকা করে। একবার সুবিধা নেওয়ার পর গ্রাহক আবার নতুন অপারেটরে যেতে চাইলে ৪৫দিন অপেক্ষা করতে হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ